logo
  • ঢাকা বুধবার, ১৭ জুলাই ২০১৯, ২ শ্রাবণ ১৪২৬
evaly

‘বাদ পড়েছি তার মানে এই না যে ক্রিকেট ছেড়ে দেবো’

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ১৭ এপ্রিল ২০১৯, ১২:০১
২০১৮ সালের অক্টোবরে বিশ্বকাপ ট্রফি ট্যুরে ট্রফি হাতে ইমরুল কায়েস || ছবি: বিসিবি
বাংলাদেশের বিশ্বকাপ স্কোয়াডে জায়গা হয়নি ইমরুল কায়েসের। অভিজ্ঞ এই ব্যাটসম্যানকে সুযোগ না দেয়ার ব্যখ্যাও দিয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু। তার মতে ওপেনিং জুটিতে বাম হাত ও ডান হাতের মিশ্রণের দিকে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে। আর তাই বাদ পড়ছেন ইমরুল।

নান্নু বলেছেন, যেহেতু তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার বাঁহাতি, সেহেতু ইমরুল কায়েস এখানে জায়গা পাননি।

বাংলাদেশ দলের নির্বাচকদের মতে, ইমরুলের তুলনায় দ্রুত রান তুলতে সক্ষম লিটন দাস ও সৌম্য সরকার। তবে পরিসংখ্যান বলছে ভিন্ন কথা। ২০১৮ সালে টাইগার ব্যাটসম্যানদের মধ্যে সর্বোচ্চ স্ট্রাইকরেট ইমরুলেরই। মাত্র ৮ ম্যাচ খেলে বাম-হাতি এই ব্যাটসম্যান তুলেছেন ৪৩৬ রান ৬২.২৮ স্ট্রাইরেটে তার ব্যাটিং গড় ৯০.৪৫।

মঙ্গলবার স্কোয়াড ঘোষণার পর থেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ইমরুল কায়েসকে দলে সুযোগ দেয়ার দাবিতে সরব ভক্তরা। অন্যদিকে একটা পক্ষ প্রচারণা চালিয়েছে, ‘বিশ্বকাপ স্কোয়াডে সুযোগ না পেয়ে অবসরে যাচ্ছেন ইমরুল’! এমন পরিস্থিতিতে বুধবার ফেসবুকের মাধ্যমে মুখ খুলেছেন ৩১ বছর বয়সী এই তারকা।
 
নিজের টাইমলাইনে পোস্ট করে তিনি বলেছেন, ‘আমি একটা জিনিস কয়কেদিন যাবৎ লক্ষ্য করছি আমাকে নিয়ে অনেকে পোস্ট করছেন আমি নাকি ক্রিকেট থেকে অবসরে যাবো। এটা সত্যি আমার জন্য অনেক দুঃখজনক, এই খবরগুলো। আমার ১১ বছরের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ক্যারিয়ারে আমি সব সময় দেশ ও দেশের মানুষকে ভালো কিছু দেয়ার চেষ্টা করছি। কখনো আল্লাহর রহমতে সফল হয়েছি, কখনো আবার ব্যর্থ হয়েছি। তবে যদি বাংলাদেশ ক্রিকেটে এক শতাংশও কিছু দিতে পেরে থাকি তো আমি নিজেকে সার্থক মনে করি।’

বাংলাদেশের হয়ে ৭৮ ওয়ানডেতে ২ হাজার ৪৩৪ রানের মালিক স্পষ্টই জানিয়েছেন এখানেই হার মানছেন না তিনি। ইমরুল বলেন, ‘ক্রিকেট আমার ভালবাসা। আমি বিশ্বকাপ স্কোয়াড থেকে বাদ পড়েছি তার মানে এই না যে ক্রিকেট ছেড়ে দেবো। আমার সামনে যখনি সুযোগ আসবে বাংলাদেশ ক্রিকেটকে কিছু দেয়ার আমি সর্বাত্মক চেষ্টা করব। সবাই আমার পাশে থাকবেন এবং আমার জন্য দোয়া করবেন। ধন্যবাদ আমার সব ভক্ত ও সমালোচকদের।’

ওয়াই

evaly
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়