logo
  • ঢাকা শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৬ আশ্বিন ১৪২৬

এখনও ইংল্যান্ড যাবার সুযোগ রয়েছে তাসকিনের?

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ১৬ এপ্রিল ২০১৯, ১৭:২১ | আপডেট : ১৬ এপ্রিল ২০১৯, ১৭:৩২
তাসকিন আহমেদ || ছবি: আরটিভি অনলাইন
৩ মে থেকে শুরু হচ্ছে বিশ্বকাপ। বিশ্ব ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় মঞ্চের দ্বাদশ আসরের জন্য এরই মধ্যে স্কোয়াড ঘোষণা শুরু করে দিয়েছে দলগুলো। এবার বাংলাদেশও ঘোষণা করল নিজেদের বিশ্বকাপ স্কোয়াড। এতে সুযোগ হয়নি সদ্য ইনজুরি থেকে ফেরা তাসকিন আহমেদের। 

মঙ্গলবার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে বিশ্বকাপ ও আয়ারল্যান্ডে শুরু হতে যাওয়া ত্রিদেশীয় সিরিজের দল ঘোষণা করা হয়। এতে সুযোগ না পাওয়া তাসকিন কান্নায় ভেঙে পড়েন।

সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় তাসকিনের চোখ দিয়ে পানি ঝরছিল। এসময় তিনি বলেন, না ঠিকাছে, সবাই তো ভালই চায়, খারাপ চায় না কেউ। সামনে আরও সুযোগ আছে। আমি আমার চেষ্টা চালিয়ে যাবো। ভালো করে খেলার চেষ্টা করব। সবাইকে ধন্যবাদ। আমার জন্য দোয়া করবেন। 

২৪ বছর বয়সী এই বোলারের কথা স্পষ্ট, এখানেই দমে যেতে চান না তিনি। অন্যদিকে নির্বাচকদের পক্ষ থেকে জানানো হয় অভিজ্ঞদের বেশি অগ্রাধিকার দেয়া হয়েছে। যেহেতু দলে ইনজুরি সমস্যা রয়েছে আর দুই টুর্নামেন্ট অনেক লম্বা সময় পর্যন্ত চলবে সেহেতু ব্যাকআপে থাকা ক্রিকেটারদেরও তৈরি রাখা হবে। সুতরাং ভাগ্যে থাকলে বিশ্বকাপে খেলার আরেকটি সুযোগ আসতেই পারে তাসকিনের কাছে। 

প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু এদিন বলেছেন, ইংল্যান্ডে বিশ্বকাপটি হচ্ছে সুতরাং এখানে আমরা অভিজ্ঞতাকে বেশি মূল্যায়ন করেছি। আর ওখানকার কন্ডিশন উপমহাদেশ থেকে ভিন্ন। আমরা কিন্তু এক বছর আগেও ওখানে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি খেলে এসেছিলাম। সেই অভিজ্ঞতার কথা চিন্তা করেই কিন্তু অভিজ্ঞ দল সাজানো হয়েছে।

২০১৫ সালে জাতীয় দলের হয়ে অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড বিশ্বকাপে অংশ নিয়েছিলেন তাসকিন। সেবার বাংলাদেশের হয়ে সবচেয়ে বেশি ৯ উইকেট তুলে নিয়েছিলেন তিনি। যা প্রথমবারের মতো কোয়ার্টার ফাইনালে খেলতে টাইগারদের সহায়তা করেছিল। নান্নুর বক্তব্যে অনুযায়ী অভিজ্ঞতার আলোকে সামনের কাতারে থাকার কথা তাসকিনের।

স্কোয়াড ঘোষণার সময় তাসকিনকে না রাখার প্রসঙ্গে নান্নু বলেন, আমরা তাকে নিয়ে অনেক দিন থেকেই চিন্তা করছি। সে কিন্তু ২০১৭ সালের ২২ অক্টোবর সর্বশেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছে। তার পরেও কিন্তু আমরা যখন ওকে নিউজিল্যান্ড সফরের জন্য চিন্তা করেছিলাম তখন আবারও ইনজুরিতে পড়তে হয়। এখন পর্যন্ত সে পুরোপুরি ফিট না। সেই হিসেবে আমরা তাকে স্কিল ফিট হিসেবে চাচ্ছি না। সে ঘরোয়া লিগে একটি ম্যাচে খেলেছে স্কিল ফিট হিসেবে। কিন্তু তার ফিটনেস শতভাগ নয়। 

যদিও আশার আলো একেবারেই নিভে যায়নি তাসকিনের জন্য সে বিষয়টি জানানো হয়েছে। নান্নু বলেন, তবে এখনও সময় আছে। আয়ারল্যান্ড সফরে আমাদের ১৭ জন সদস্য যাচ্ছে। এর মধ্যে ও যদি পুরো ফিট হয়ে যায় এবং দরকার হয় তাহলে তাকে আমরা ব্যাকআপ হিসেবে রাখবো।

আয়ারল্যান্ড সিরিজের পর স্কোয়াড পরিবর্তন হবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে নান্নু বলে, আয়ারল্যান্ড সফরের পারফরমেন্স তো অবশ্যই গণ্য হবে। আর এটি চিন্তা ভাবনা করতে হবে। যেহেতু ২২ মে’র আগে একটা  সুযোগ আছে। সেই হিসেবে এখনই নিশ্চিত থাকা যাবে না, আমাদের পারফরমেন্স অ্যানালাইসিস করতে হবে। আমাদের কিছু খেলোয়াড়ের ইনজুরিও আছে। আর যেহেতু একটা লম্বা সফরে যাচ্ছি, এই সময়ের মধ্যে যদি কেউ ইনজুরিতে পরে সেক্ষেত্রে আমাদের ব্যাকআপ খেলোয়াড় রাখতে হবে। 

বিশ্বকাপ ও আয়ারল্যান্ডের জন্য ঘোষণা করা স্কোয়াডের বাইরে থাকা খেলোয়াড়দের প্রস্তুত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক নান্নু। তিনি বলেন, ১৭ জনের বাইরে এখানে যারা খেলোয়াড় আছে তাদেরকেও আমরা একটি প্রস্তুতির মধ্যে রাখবো। কারণ কখন কাকে দরকার হয় বলা যায় না। মানসিকভাবে সেভাবে তৈরি করে রাখতে হবে যেন দ্রুতই পরিবর্তন করা যায়। 

ওয়াই

evaly
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়