আপনারা মাশরাফিকে বেশি খোঁচান: পাপন

প্রকাশ | ০১ মার্চ ২০২০, ১৭:৪৫

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন (ফাইল ছবি)

বর্তমান বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে আলোচিত বিষয় মাশরাফি বিন মুর্তজার অবসরের বিষয়টা। গত বিশ্বকাপের শুরু থেকেই বেশ বলাবলি শুরু হয়েছিল, মাশরাফি কবে অবসর নেবেন।

মাশরাফি বিশ্বকাপ খেলে দেশে ফিরে যাবার কথা ছিল শ্রীলঙ্কায়, তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলতে। কিন্তু শেষ মুহূর্তে চোটে পড়ায় মাঠে ফিরতে অপেক্ষা করতে হয়েছে দীর্ঘ সাত মাস।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলতে এসেছেন সিলেট। তার আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে এক গণমাধ্যমকর্মীর প্রশ্নে ক্ষেপে যান ওয়ানডে অধিনায়ক।

মাশরাফির প্রতি প্রশ্ন ছিল, যে প্রশ্নটা আপনার কাছে আসে তা অনেকটা আত্মসম্মানের। যে জায়গাটায় এখন দাঁড়িয়ে আছেন, বিশেষ করে ৮ ম্যাচে উইকেট নেই। ২০০১ সালে যখন শুরু করলেন নভেম্বরে টেস্ট ম্যাচ দিয়ে, ওয়ানডে খেললেন। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে শুরু হয়েছিল, ফ্লাওয়ার ব্রাদার্সের উইকেট নিলেন। ২০০৭-২০০৮ সালে তিন চারটা ম্যাচে আপনি উইকেট পাননি, কিন্তু এই পরিস্থিতিতে আপনাকে পড়তে হয়নি। প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ে বলেই কী একটা বাড়তি মোটিভেশন কাজ করছে, আপনার যদিও মোটিভেশনের দরকার পড়ে না।

উত্তরে মাশরাফি বলেছিলেন, প্রথমত হচ্ছে যে, আত্মসম্মান বা লজ্জা- আমি কি চুরি করি মাঠে? আমি কি চোর? খেলার সাথে লজ্জা, আত্মসম্মান আমি মেলাতে পারি না। এত জায়গায় এত চুরি-চামারি হচ্ছে, তাদের লজ্জা নাই? আমি মাঠে এসে উইকেট না পেলে আমার লজ্জা লাগবে কেন। আমি কি চোর? উইকেট আমি নাইবা পেতে পারি, আমার সমালোচনা আপনারা করবেন, সাপোর্টাররা করবে, লজ্জা পেতে হবে কেন? আমি কি বাংলাদেশের হয়ে খেলছি নাকি অন্য দেশের হয়ে ক্রিকেট খেলছি, যে আমার লজ্জা পেতে হবে। আমি পারিনি আমাকে বাদ দিয়ে দেবে। জিনিসটা সাধারণ। এখন কথা হচ্ছে, আমার লজ্জা, আত্মসম্মানবোধ কার সঙ্গে দেখাতে যাব? আমি তো বাংলাদেশের হয়ে খেলতে নামছি। আমি কি বাংলাদেশের মানুষের বিপক্ষের মানুষ। যে কেউ পারফর্ম নাই করতে পারে। সেটা তো তার ডেডিকেশন না থাকে, কোনো জায়গায় ঘাটতি থাকে, সেটা নিয়ে প্রশ্ন আসতেই পারে। আরেকটা সমালোচনা হতে পারে স্বাভাবিক- যেটা সারা পৃথিবীতেই হতে পারে, যে আমি উইকেট পাই না আমার সমালোচনা হবে। কিন্তু কথা যখন আসে লজ্জা, আত্মসম্মানবোধ তখন আমার প্রশ্ন থাকে। আমার সমালোচনা করুক কিন্তু আমার আত্মসম্মানবোধ! আমি ক্রিকেট খেলতে এসে কি আমার আত্মসম্মানবোধ বিসর্জন দিতে আসছি নাকি। আমি কি অন্য দেশের হয়ে খেলছি নাকি চুরি-চামারি করছি। তা তো না। সুতরাং এই জিনিসটার সঙ্গে আমি মোটেও একমত না।

তার একদিন পর সিলেটে ম্যাচ দেখতে এসে বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসান কথা বলেন গণমাধ্যমের সঙ্গে। 

যেখানে পাপন বলেন, পুরো প্রেস কনফারেন্সটা দেখে আমার কাছে মনে হয়েছে আপনারা ওকে বেশি খোঁচান। আমার মনে হয় এরকম একটা সময় ওর এই সময়টায় আপনাদেরই পাশে থাকা উচিৎ। সে জায়গায় ওকে কষ্টটা একটু বেশি দিয়ে দিচ্ছেন। আমার মনে হয় ওকে এসব আর না বলা উচিৎ। ও বলে দিয়েছে সে কি চায়।

বিসিবি প্রধান আরও বলেন, আমি সব সময় দুইটা প্লেয়ারের কথা বলি। সাকিব এজ অ্যা প্লেয়ার, যার রি-প্লেসমেন্ট আমাদের কাছে নাই। মাশরাফি এজ অ্যা ক্যাপ্টেন, আমাদের কাছে কোনো রি-প্লেসমেন্ট নাই। মাশরাফির অবদান কোনোভাবেই খাটো করার সুযোগ আমাদের কাছে নেই। আপনারা হয়তো একটা জিনিস খেয়াল করেছেন, মাশরাফিকে আমরা চেষ্টা করেছি বেশি সুযোগ দেয়ার। মুশফিককে যখন বাদ দিয়ে মাশরাফিকে ক্যাপ্টেন দিলাম তখন কাউকে কিন্তু জিজ্ঞাসও করিনি। ও কবে রিটায়ার করবে সেটা ওর ব্যাপার।

চলতি সিরিজের আগে বিসিবি প্রধান ইঙ্গিত দেন, এই সিরিজটাই মাশরাফি বিন মুর্তজার অধিনায়ক ক্যারিয়ারের শেষ সিরিজ হতে যাচ্ছে। এতে করে আগামী পাকিস্তান সফরের একমাত্র ওয়ানডে সিরিজে কে নেতৃত্ব দেবেন এমন প্রশ্নে পাপন বলেন, ক্যাপ্টেন কে হবে এটা বোর্ডের সিদ্ধান্ত।
পি