logo
  • ঢাকা সোমবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

দৃষ্টি প্রতিবন্ধীদের জাতীয় দাবায় বাপ্পী-সোনাই চ্যাম্পিয়ন

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ২০:০৫
chess
ছবি- সংগৃহীত
 

বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের আয়োজনে ‘ওয়ালটন এয়ার কন্ডিশনার দৃষ্টিহীনদের চতুর্থ জাতীয় দাবা প্রতিযোগিতা-২০১৯’ এ রাজশাহীর বাপ্পী সরকার অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন এবং ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের সৈয়দ এজাজ হোসেন অপরাজিত রানার-আপ হয়েছেন। মেয়েদের বিভাগে সোনাই খাতুন অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন ও নুরুন্নাহার তনিমা রানার-আপ হয়েছেন।

বিজয়ীদের নগদ ৫০ হাজার টাকার অর্থ পুরস্কার এবং অংশগ্রহণকারী সকল খেলোয়াড়কে ওয়ালটন সামগ্রী প্রদান করা হয়। মঙ্গলবার সকালে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের পুরাতন ভবনের তৃতীয় তলায় দাবা ক্রীড়াকক্ষে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হয়। 

ওয়ালটন গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক এফএম ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন) প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আন্তর্জাতিক দাবা বিচারক মো. হারুন অর রশিদ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন এনএফএভিএইচ এর নির্বাহী পরিচালক মো. জাহাঙ্গীর আলম।

প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণের আগে ৫১তম বিশ্ব সাদাছড়ি দিবস উপলক্ষ্যে র‌্যালি করা হয়। র‌্যালি শেষে প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়া দৃষ্টিহীন দাবাড়ু ও অন্যান্যদের সাদাছড়ি বিতরণ করা হয়। এরপর অনুষ্ঠিত হয় পুরস্কার বিতরণ।

পুরুষ বিভাগে ৭ খেলায় বাপ্পী ও এজাজ দুজনই সাড়ে ছয় পয়েন্ট করে অর্জন করেন। টাইব্রেকিং পদ্ধতির বুশলজ স্কোরে বাপ্পী শিরোপা জয় করেন এবং গতবারের চ্যাম্পিয়ন এজাজ রানার-আপ হন। ছয় পয়েন্ট নিয়ে রাজশাহীর শহিদুর তৃতীয হন। পাঁচ পয়েন্ট করে নিয়ে চতুর্থ হতে ত্রয়োদশ স্থান লাভ করেছেন যথাক্রমে- মনির রানা, মনিরুজ্জামান, এস এম শাহিন, সুজন মাতবর, বিপদ দাস, ফারুক মিয়া, রফিকুল ইসলাম-১, মফিজুল ইসলাম, আনোয়ার হোসেন এবং আলফাজ উদ্দিন। 

মহিলা বিভাগে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সোনাই খাতুন ৬ খেলায় পূর্ণ ৬ পয়েন্ট পেয়ে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হন। পাঁচ পয়েন্ট নিয়ে মোহাম্মদপুর সেন্ট্রাল কলেজের নুরুন্নাহার তনিমা রানার-আপ হন। চার পয়েন্ট করে নিয়ে, বদরুন্নেসা মহিলা কলেজের আসমা আমিন তৃতীয়, ইডেন মহিলা কলেজের তানজিলা আক্তার রুমা চতুর্থ এবং বদরুন্নেসা মহিলা কলেজের রীনা আক্তার পঞ্চম হন। সাড়ে তিন পয়েন্ট করে নিয়ে বদরুন্নেসা মহিলা কলেজের ইয়াসমীন ষষ্ঠ ও টিচার্স ট্রেনিং কলেজের হোসনে আরা বেগম সপ্তম হন। 

ঢাকা শহর বিভিন্ন জেলা, বিশ্ববিদ্যালয় এবং কলেজের ওপেন বিভাগে ৫৭ জন এবং মহিলা বিভাগে ২৩ জন খেলোয়াড় এ ইভেন্টে অংশগ্রহণ করেন।

ওয়াই

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • খেলা এর সর্বশেষ
  • খেলা এর পাঠক প্রিয়