logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

সেমিফাইনালের আশা জাগালো পাকিস্তান

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ২৯ জুন ২০১৯, ২৩:০২ | আপডেট : ৩০ জুন ২০১৯, ০৮:৫৪
পাকিস্তান
আইসিসি বিশ্বকাপে নিজেদের অষ্টম ম্যাচে আফগানিস্তানের বিপক্ষে তিন উইকেটে জয়ের মধ্য দিয়ে সেমিফাইনালে ওঠার আশা জাগিয়ে রাখল পাকিস্তান। এখন পর্যন্ত সরফরাজবাহিনী আট ম্যাচের চারটিতে জয়, তিনটিতে হার ও একম্যাচ পরিত্যক্ত হওয়ায় নয় পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের চার নম্বরে পৌছালো।

আফগানিস্তানের দেয়া ২২৮ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই বড় ধাক্কা খায় পাকিস্তান। দলীয় ও ব্যক্তিগত রানের খাতা না খুলেই সাজঘরে যেতে হয় ফখর জামানকে। আফগান অফ স্পিনার মুজিব-উর রহমানের বলে প্রথম ওভারের দ্বিতীয় বলে এলবিডব্লিউর শিকার হয়ে সাজঘরে যায়। রিভিউ নিয়েও রক্ষা হয়নি ফখর জামানের।

ইমাম-উল-হক ও বাবর আজম জুটি দলের হাল ধরেন। দৃঢ়তার সঙ্গে ব্যাটিংয়ে জুটি থেকে ৭২ রান আসার পর নবীর আঘাতে বিচ্ছিন্ন হয়। ৫১ বলে চারটি বাউন্ডারি মেরে ৩৬ রান করার পর মোহাম্মদ নবীর কাছে ধরা দেন ইমাম-উল হক।

বেশিক্ষণ উইকেটে থাকতে পারলেন না বাবর আজমও। আবারো সেই নবীর আঘাত। ১৮তম ওভারে ইমাম-উল-হকের সমান বল মোকাবেলা করে একটি বাউন্ডারি বেশি খেলে নিজের রানের খাতায় ৪৫ রান যোগ করে সাজঘরে যায় বাবর।

এরপর মোহাম্মদ হাফিজ দলের হাল ধরতে চাইলেও উইকেটে থাকতে দিলেন না  মুজিব-উর রহমান। সাজঘরে যাওয়ার আগে ৩৫ বলে ১৯ রান করেন হাফিজ।

হারিস সোহেল ও সরফরাজ আহমেদ রানের গতি বাড়ান। রশীদ খানের কাছে ধরা দেন হারিস খান। সাজঘরে যাওয়ার আগে নিজের রানের খাতায় লেখান ২৭ রান। ১৮ রান করে রানআউট হয়ে সাজঘরে যান অধিনায়ক সরফরাজ। শাদাব খান সাজঘরে গেলে চাপে পরে পাকিস্তান। শেষ পর্যন্ত টানটান উত্তেজনার ম্যাচে দুই বল হাতে রেখে তিন উইকেটে জয় পায় পাকিস্তান। ইমাদ ওয়াসিম ৪৯ ও ওয়াহাব রিয়াজ ১৫ রানে অপরাজিত ছিলেন।

এর আগে টসে জিতে আগে ব্যাটিংয়ে নামলে শুরু থেকেই চেপে ধরে পাকিস্তানের বোলাররা। শাহীন আফ্রিদির পেসিং তাণ্ডবে পঞ্চম ওভারে দুইজনকে সাজঘরে যেতে হয়। বাঁহাতি এই পেসার দলীয় ২৭ রানে প্রথমে সাজঘরে পাঠান গুলবদিন নাইবকে। পরের বলেই হাশমতউল্লাহ শহীদিকে রানের খাতা খুলতে না দিয়ে সাজঘরের পথ দেখান।

রহমত শাহ একপাশ আগলে রেখে  ইকরাম আলি খিলকে নিয়ে দলের হাল ধরতে চাইলেন। কিন্তু ইমাদ ওয়াসিম বেশিক্ষণ থাকতে দিলেন না। ৪৩ বলে ৩৫ রান করে  ইমাদ ওয়াসিমের বলে বাবর আজমের তালুবন্দী হয়ে মাঠ ছাড়েন রহমত শাহ।

আসগর আফগান এবার ইকরাম আলি খিলকে নিয়ে রানের গতিবাড়াতে চান। ভয়ঙ্কার হয়ে ওঠা আসরকে ৪২ রানে ফেরান শাবাদ খান। অধিনায়কের বিদায়ের পর একই পথে হাঁটেন ইকরাম আলীও। ইমাদের বলে হাফিজের তালুবন্দি হন ইকরাম।  শেষ পর্যন্ত নাজিবুল্লাহ জাদরানের ৪২ রানে ভর করে নয় উইকেটে ২২৭ রান সংগ্রহ করে আফগানিস্তান। পাকিস্তানের পক্ষে ৪ উইকেট নেন শাহীন। দুটি করে উইকেট নেন পান ইমাদ ও ওয়াহাব।

সই/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • খেলা এর সর্বশেষ
  • খেলা এর পাঠক প্রিয়