logo
  • ঢাকা সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৬

এমসিসির নন ব্রিটিশ প্রেসিডেন্ট সাঙ্গাকারা

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ০২ মে ২০১৯, ১০:৩৫ | আপডেট : ০২ মে ২০১৯, ১০:৪১
ছবি- সংগৃহীত

শতাব্দীর পুরনো প্রথা ভেঙে ব্যতিক্রমী সিদ্ধান্ত নিয়েছে ক্রিকেটের আইন প্রণয়নকারী সংস্থা মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাব (এমসিসি)। সংস্থাটির ইতিহাসে নন ব্রিটিশ প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত করা হয়েছে একজন এশিয়ানকে। যিনি আগামী ১ অক্টোবর থেকে ২০১০ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এমসিসির প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করবেন। পরবর্তী গ্রীষ্মে লর্ডসে ইংল্যান্ডের দুটি টেস্টের সঙ্গে চালু হবে ‘দ্য হান্ড্রেড’।  

এমসিসির নতুন নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট হলেন শ্রীলঙ্কার কিংবদন্তী ক্রিকেটার সাবেক অধিনায়ক কুমারা সাঙ্গাকারা।

বুধবার লর্ডসে এমসিসির বার্ষিক সাধারণ সভায় প্রেসিডেন্ট পদে সাঙ্গাকারার নাম প্রস্তাব করেন ক্লাবের বর্তমান প্রেসিডেন্ট অ্যান্থনি রেফোর্ড। উপস্থিত সদস্যরা তাতে সমর্থন জানালে লঙ্কান ক্রিকেট দলের সাবেক উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যানকে প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচন করা হয়।

এমসিসির সঙ্গে অবশ্য সাঙ্গার সম্পর্ক বেশ পুরনোই। ২০১২ সালে এমসিসির আজীবন সদস্যপদ পান। একইবছর থেকে তিনি এমসিসির ওয়ার্ল্ড ক্রিকেট কমিটির সদস্য নির্বাচিত হন। ২০১১ সালে এমসিসি স্পিরিট অফ ক্রিকেট কাউড্রি লেকচার দিয়েছিলেন তিনি, যা সমাদৃত হয়েছিল অনেক। 

দায়িত্ব পেয়ে ৪১ বছর বয়সী সাঙ্গাকারা জানিয়েছেন, এমসিসির পরবর্তী প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়ে গর্ববোধ করছি। এই ভূমিকা পালন করার জন্য আমি অপেক্ষায় রয়েছি। আমার কাছে এমসিসি বিশ্বের সবচেয়ে মহান ক্রিকেট ক্লাব। ক্রিকেটের প্রসারে সারা বিশ্বে মাঠের ভিতরে ও বাইরে এই ক্লাবের উদ্যোগ প্রশংসনীয়। ২০২০ সাল ক্রিকেটে অনেক তাৎপর্যপূর্ণ একটা বছর, বিশেষ করে লর্ডসে। 

সাঙ্গাকে নিয়ে বর্তমান প্রেসিডেন্ট রেফোর্ড বলেছেন, এমসিসি যেহেতু এর দিগন্ত ও আন্তর্জাতিক সুখ্যাতি বারাতে চায়, আমি খুশি যে কুমার এই পদের দায়িত্বটা গ্রহণ করেছে এ বছরের জানুয়ারিতে। সে মাঠে ও মাঠের বাইরে দারুণ এক ব্যক্তিত্ব, ক্লাবে তার অবদান হবে অনেক। বিশ্বকাপ ও অ্যাশেজের বছর হিসেবে প্রেসিডেন্ট পদে তার ভূমিকাও হবে গুরুত্বপূর্ণ।

ক্যারিয়ারে ১৩৪টি টেস্টে মোট ১২ হাজার ৪০০ রান করেছেন সাঙ্গাকারা। ৩৮টি সেঞ্চুরির পাশাপাশি রয়েছে ৫২টি হাফসেঞ্চুরি। ৪০৪টি ওয়ানডেতে করেছে ১৪ হাজার ২৩৪ রান। রয়েছে ২৫টি সেঞ্চুরি ও ৯৩টি হাফসেঞ্চুরি। ৫৬টি টি-টোয়েন্টিতে ৮টি হাফসেঞ্চুরিতে করেছেন ১ হাজার ৩৮২ রান। 

এএ/এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়