বিসিবি’র ভাবনায় বিশ্ব-একাদশের বিপক্ষে ম্যাচ

প্রকাশ | ২৬ মার্চ ২০১৯, ২০:৩২ | আপডেট: ২৬ মার্চ ২০১৯, ২২:১২

স্পোর্টস ডেস্ক
বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসান পাপন

বাংলাদেশের বিশেষ দিবসগুলোতে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড প্রীতি ম্যাচের আয়োজন করে থাকে প্রতিবার। স্বাধীনতা দিবস কিংবা বিজয় দিবসে লাল দল বনাম সবুজ দল বা শহীদ মুস্তাক একাদশ বনাম শহীদ জুয়েল একাদশের খেলার আয়োজন করে দিনটাকে স্মরণ করে বিসিবি।

আজ মহান স্বাধীনতা দিবসে মিরপুরের শের ই বাংলা স্টেডিয়ামে আয়োজন করা হয় যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় বনাম বিসিবির কর্মকর্তাদের মধ্যে প্রীতি ম্যাচ।

ম্যাচটা উপভোগ করেছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনও। তবে ম্যাচ শেষে তিনি যা শোনালেন তাতে দেশের ক্রিকেট ভক্তদের জন্য খুশির সংবাদই বটে।

ম্যাচ শেষে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেন, আগামী বছর জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী। আর ২০২১ সালে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে বিশ্ব একাদশ ও বাংলাদেশ একাদশের বিশেষ একটা ম্যাচ আয়োজনের পরিকল্পনা আছে আমাদের। যদিও এখনো কিছু চূড়ান্ত হয়নি।

বাংলাদেশের মাটিতে বাংলাদেশ বনাম বিশ্ব একাদশের সঙ্গে ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়নি কখনও। তবে ১৯ বছর আগে এশিয়া একাদশ ও অবশিষ্ট বিশ্ব একাদশের মধ্যে একটা ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছিল ঢাকায়।

পাপন আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকীর সঙ্গে যোগ হয়েছে আমাদের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী। এটাকে উপলক্ষ করে আমরা এখন থেকেই একটা প্ল্যান অনুযায়ী আগাচ্ছি। যেহেতু এটা নিয়ে ভাবছি তাই আমরা এমন একটা কিছু করতে চাচ্ছি যেখানে সারা পৃথিবীর যারা ক্রিকেট দেখে, তারা যেন এক সাথে বসে দেখতে চায়। তবে এটা একদমই প্রাথমিক পর্যায়ে আছে, এখনো কারো সাথে আলাপ হয়নি। সব কিছু নির্ভর করছে আন্তর্জাতিক সূচির ওপর। সবগুলো দেশকে পাওয়া খুব কঠিন। খেলা নেই এমন পাওয়া খুব কঠিন। এই জন্য সব থেকে বেশি খেলোয়াড় দেশ থেকে এনে একটা রিপ্রেজেন্টেটিভ ম্যাচ খেলা প্লাস আইসিসি থেকে ওটা রিকগনিশন পাওয়া, এটা নিয়ে ইতিমধ্যে আমরা আইসিসিকে জানিয়েছি। এ নিয়ে আমরা কাজ করছি।

নাজমুল হাসান নিশ্চিত করেন, সেরা ক্রিকেটারদেরই এই ম্যাচে খেলানোর চেষ্টা করবে বিসিবি। এ নিয়ে আলাপ করছি। এখনও প্রাথমিক ধাপেই আছি। এরপর বড় বড় দেশ গুলোর সঙ্গে যেমন ভারত, অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ডের মতো দেশগুলোর পার্টিসিপেশন নিশ্চিত করা। তারপর আমাদের দেখতে হচ্ছে কোথায় ফাঁকা আছে, যেখানে সবাই ব্যস্ত না এবং তাদের বেস্ট প্লেয়ারদের পাওয়া সম্ভব। তারপর নির্ভর করবে বেস্ট প্লেয়াররা আমাদের এখানে আসতে চায় কিনা। আমরা চেষ্টা করছি সবচেয়ে আকর্ষণীয় একটা খেলা বাংলাদেশে করার জন্য।

আরো পড়ুন: 

এমআর/