• ঢাকা সোমবার, ২১ জানুয়ারি ২০১৯, ৮ মাঘ ১৪২৫

বিশ্বকাপের বছরে বাংলাদেশের যত খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ২৫ ডিসেম্বর ২০১৮, ২০:৩৪ | আপডেট : ২৫ ডিসেম্বর ২০১৮, ২০:৪৬
আনন্দ-বেদনায় মিশ্রিত ছিল বাংলাদেশ ক্রিকেটের ২০১৮ সালটা। জয়-পরাজয়ের বিচারে দেশের সেরা বছর কাটলেও তিনটি টুর্নামেন্টে ফাইনাল খেলে ট্রফি জিততে না পারার কষ্ট পুরো বছর পুড়িয়েছে দলের খেলোয়াড় ও ভক্তকূলদের। বছরের শুরুতেই ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজে জিম্বাবুয়ে ও শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে ফাইনালে উঠলেও ফাইনাল লঙ্কানদের বিপক্ষে ৭৯ রানের পরাজয়ে ট্রফি হারাতে হয়েছে লাল-সবুজের প্রতিনিধিদের।

 ফেব্রুয়ারিতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে ১-০তে হারার পর টি-টোয়েন্টি সিরিজ হারে ২-০ তে। মার্চে বাংলাদেশ দল সম্মুখীন হয় নিদহাস ট্রফির ট্র্যাজেডির। স্বাগতিক শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে নো-বলের বিতর্কিত ম্যাচে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের বীরত্বে জয় পেলেও ফাইনালে ভারতীয় ব্যাটসম্যান দীনেশ কার্তিকের অতিমানবীয় ব্যাটিংয়ের কাছে শেষ বলে হারতে হয় টাইগারদের।

এরপরই আসে বছরের সবচেয়ে কলঙ্কিত অধ্যায়। ভারতের দেরাদুনে আফগানিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ হোয়াইটওয়াশ হয়ে ফিরতে হয়। এরপর জুন-জুলাইতে ক্যারিবীয় সফরে গিয়ে টেস্ট সিরিজ বাজে ভাবে হারলেও জিতে নেয় ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ থেকে ফিরে অংশ নেয় আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিত এশিয়া কাপে। শ্রীলঙ্কা, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানকে হারিয়ে ফাইনালে পৌঁছালেও আবার স্বপ্ন ভঙ্গ হয় ভারতের কাছে।

অক্টোবরে ঘরের মাঠে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ করলেও ট্রফি ভাগাভাগি করতে হয় টেস্ট সিরিজ। বছরের শেষ দিকে সাফল্যটা আরও বেশি ধরা দেয় টাইগার শিবিরে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ফিরতি সিরিজে টেস্ট ও ওয়ানডে সিরিজ জিতে প্রথম বারের মতো ট্রেবল জয়ের সুযোগ আসে বাংলাদেশের সামনে। তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষ ম্যাচটি হেরে সেই স্বপ্ন বিসর্জন হয় স্বাগতিকদের।

পুরো বছরে ২০টি ওয়ানডে খেলে ১৩ টিতে জয় ও ৮টি টেস্ট খেলে ৩টি জয়, একটি ড্রতে বছরের প্রাপ্তি একেবারে কম নয়।

এবার নতুন বছর নতুন করে শুরু করার পালা। ২০১৯ এর শুরুটাই হবে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) জমকালো আয়োজন দিয়ে। বিশ্বকাপের বছরে প্রথম আন্তর্জাতিক সফর শুরু হবে নিউজিল্যান্ড সফর দিয়ে।

১৩ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হতে যাওয়া সিরিজে তিনটি টেস্ট ও তিনটি ওয়ানডে খেলবে স্টিভ রোডসের শিষ্যরা। এরপরই আয়ারল্যান্ডের উদ্দেশে যাত্রা করবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও স্বাগতিকদের বিপক্ষে ত্রিদেশীয় টুর্নামেন্ট খেলতে।

ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলেই বিশ্বকাপের জন্য নিজেদের প্রস্তুত নিবে মাশরাফি-সাকিবরা। ২ জুন দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে বাংলাদেশের বিশ্বকাপ মিশন। গ্রুপ পর্বে ৯টি ম্যাচ খেলবে টাইগাররা।

বিশ্বকাপের পর প্রথম সিরিজ হবে অক্টোবরে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ঘরের মাঠে তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজ দিয়ে। এরপর আফগানিস্তানের বিপক্ষে একটি টেস্ট ও ২টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ হবে একই মাসে।

২০১৯ সালটা শেষ করবে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সফর দিয়ে ডিসেম্বর মাসে।

তাই বলা যায় বিশ্বকাপের বছরে ঠাসা সূচিতে ব্যস্ত থাকতে হবে টিম বাংলাদেশকে।

এস/ওয়াই

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়