logo
  • ঢাকা শনিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৯, ৯ ভাদ্র ১৪২৬

আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি পেলো টি-টেন ক্রিকেট

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ০৮ আগস্ট ২০১৮, ০৯:০৪ | আপডেট : ০৮ আগস্ট ২০১৮, ০৯:২২
টেস্ট, ওয়ানডের পর ক্রিকেটের জনপ্রিয়তা বাড়াতে সংযুক্ত হয় টি-টোয়েন্টি। এর জনপ্রিয়তা তুঙ্গে ওঠার পর আবুধাবিতে গত বছর অনুষ্ঠিত হয় আরও সংক্ষিপ্ত ভার্সন টি-টেন লিগের। প্রথম সেই আসরটিকে আইসিসি মৌখিক সম্মতি জানালেও আনুষ্ঠানিক কোনও কথা বলেনি। কিন্তু এবারের আসরটিকে আনুষ্ঠানিকভাবেই স্বীকৃতি জানিয়েছে আইসিসি। শারজাহতে আগামী নভেম্বরে বসবে টি-টেন লিগের দ্বিতীয় আসর। 

bestelectronics
মঙ্গলবার টি-টেন লিগকে অনুমোদন দেয় আইসিসি। ক্রিকেটের বিকেন্দ্রীকরণ ও প্রচারের জায়গা থেকেই অনুমোদন পেয়েছে মাত্র ১০ ওভারের এই ক্রিকেট।

প্রথম আসরের চেয়ে এবার আরও জমজমাট আয়োজনের অপেক্ষায় টি-টেন লিগ। ২৩ নভেম্বর শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বসবে ১০ ওভারের এই আসর। এবার ছয় দল থেকে বেড়ে দল হয়েছে আটটি। টুর্নামেন্টের দৈর্ঘ্যও ৪ দিন থেকে বাড়িয়ে ১০ দিন করা হয়েছে। ভারতের ক্রিকেট নিয়ন্ত্রণ বোর্ডের পলিসির অংশ হিসেবে ভারতের বর্তমান কোনও ক্রিকেটার এই লিগে অংশ নিতে পারেননি।

চলতি বছরের মে মাসে অবশ্য আইসিসি টি-টেন লিগকে ক্রিকেটের জন্য হুমকি হিসেবে উল্লেখ করেছিল। পাশাপাশি তারা টি-টেন লিগকে ক্রিকেটের বিকেন্দ্রীকরণ ও অংশগ্রহণের দিক দিয়ে ইতিবাচক হিসেবে বিবেচনা করেছিল। তবে আইসিসি অনুমোদন দিলেও এই খেলাটিকে সমর্থন দেয়া কিংবা এই ফরম্যাটের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট চালু করার কোনও পরিকল্পনা নেই সংস্থাটির।

বর্তমান সময়ে টেস্ট ও ৫০ ওভারের ক্রিকেট টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের কাছে বলতে গেলে মার খাচ্ছে। এমন সময়ে টি-টেন লিগকে আইসিসি অনুমোদন দেয়ায় আয়োজকরা নিঃসন্দেহে উচ্ছ্বসিত।

টি-টেন লিগের প্রেসিডেন্ট সালমান ইকবাল মনে করছেন, আইসিসির এই আনুষ্ঠানিক অনুমোদনে বিশ্বজুড়ে এই টুর্নামেন্টটি আরও গ্রহণযোগ্যতা পাবে। এটাকে ভীষণ ইতিবাচক দিক মনে করছেন তিনি।

তবে এই নতুন ফরম্যাটের এই লিগ নিয়ে অনানুষ্ঠানিকভাবে আপত্তি তুলেছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। এই আপত্তির প্রধান কারণ শারজাহ’র ক্রিকেট সংক্রান্ত দুর্নীতিতে জড়িত থাকা। এবারও দুর্নীতিমুক্ত আসর আয়োজন আয়োজকদের জন্য কঠিন হবে বলেই মনে হচ্ছে। 

কিছুদিন আগেই কাতার-ভিত্তিক আল-জাজিরা টেলিভিশন চ্যানেলের এক স্টিং অপারেশন থেকে এক ভয়াবহ চিত্র উঠে আসে। যেখানে ক্রিকেট ফিক্সংয়ের সঙ্গে আমিরাতের সরাসরি সম্পর্ক তুলে ধরা হয়। সেই অপারেশন থেকে পাওয়া তথ্য দেখিয়ে দিয়েছে ক্রিকেট ফিক্সিংয়ের সঙ্গে জড়িতদের সবচেয়ে প্রিয় স্থান আমিরাত এবং আইসিসি এটা জানে। তবে এবার আইসিসি’র অনুমোদন পাওয়ার পর প্রশ্নটা আবারও উঠবে কিনা সেটাই দেখার বিষয়।

এবারের টি-টেন লিগে বড় অনেক তারকাই অংশ নিচ্ছেন। শহীদ আফ্রিদিসহ কয়েকজন তারকা তো আগেই ছিলেন। এবার নাম লিখিয়েছেন আফগানিস্তানের তারকা স্পিনার রশিদ খান, অস্ট্রেলিয়ার শেন ওয়াটসন, নিউজিল্যান্ডের ব্রেন্ডন ম্যাককালামের মতো ক্রিকেটার।

এই আসরের জন্য আফগানিস্তানের তারকা লেগ স্পিনার রশিদ খান (মারাঠা অ্যারাবিয়ান্স), পাকিস্তানের সাবেক অলরাউন্ডার শহীদ আফ্রিদি (পাখতুনস), শোয়েব মালিক (পাঞ্জাবি লিজেন্ডস), মরগ্যান (কেরালা কিংস), নিউজিল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক ব্র্যান্ডন ম্যাককালাম (রাজপুতস), ওয়েস্ট ইন্ডিজের সুনিল নারাইন (বেঙ্গল টাইগার্স), ড্যারেন স্যামি (নর্দার্ন ওয়ারিয়র্স) এবং অস্ট্রেলিয়ার শেন ওয়াটসন (করাচিয়ানস) এরইমধ্যে আইকন খেলোয়াড় হিসেবে নিজ নিজ দলে যুক্ত হয়েছেন।

আরও পড়ুন : 

এএ/পি

bestelectronics bestelectronics
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়