Mir cement
logo
  • ঢাকা রোববার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮

‘এমন পিচে খেললে ব্যাটসম্যানের ক্যারিয়ার শেষ হয়ে যাবে’ (ভিডিও)

bangladesh t20 world cup 2021, shakib al hasa, rtv online
ছবি-আরটিভি নিউজ

অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টানা সিরিজ জয়। তবু হোম অব ক্রিকেটের মন্থর পিচ নিয়ে ব্যাপক আলোচনা। ব্যর্থ ব্যাটসম্যানরা। সাকিব আল হাসানের মুখেও একই সুর। তবে শেষ দুইটা সিরিজে ব্যাটসম্যানদের পারফরমেন্স ভুলে যেতে বলেছেন বাংলাদেশ দলের সবচেয়ে বড় তারকা।

শনিবার (১১ সেপ্টেম্বর) পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান এলআর গ্লোবাল অ্যাসেট ম্যানেজমেন্টের উপদেষ্টা হিসেবে যোগ দিয়েছেন সাকিব। এলআর গ্লোবালের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রিয়াজ ইসলামের সভপতিত্বে এতে অতিথি হিসেবে যোগ দিয়েছিলেন আরটিভির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ আশিক রহমান।

রাজধানীর একটি হোটেলে নতুন দায়িত্ব গ্রহণ করার পর সাকিব মুখোমুখি হয়েছিলেন সংবাদ মাধ্যমের।

মিরপুরের অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বোলাররা দুর্দান্ত ছিলেন। মুদ্রার এপিঠের মতো ছিলেন ব্যাটসম্যানরা। তবে সাকিব বলেন, ‘এই নয়-দশটা ম্যাচ যারা খেলেছে, সবাই অফ ফর্মেই আছে।’ একটু হেসে তিনি বলেন, ‘কারণ পিচটাই এমন। এমন পিচে কেউ যদি দশ-বারোটা ম্যাচ খেলে তাহলে একটা ব্যাটসম্যানের ক্যারিয়ার শেষ হয়ে যাবে। খুবই স্বাভাবিক। এটা কাউন্ট না করি আমরা।’

জাতীয় দলের অভিজ্ঞ এই সদস্যের বিশ্বাস আসন্ন বিশ্বকাপে ঘুরে দাঁড়াবে ব্যাটসম্যানরা।

‘যারা দলে আছে সবাইকে বলবো দেশকে জেতানোর জন্য। যার যার জায়গা থেকে সেরাটা দেয়ার জন্য।’

মূল পর্বে নামার আগে বাছাই পর্বে উতরাতে হবে লাল-সবুজদের। স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে বিশ্বকাপ যাত্রা শুরু করবে বাংলাদেশ। ম্যাচটি মাঠে গড়াবে ১৭ অক্টোবর। ১৯ অক্টোবর দ্বিতীয় ম্যাচে প্রতিপক্ষ ওমান। পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে বাছাই পর্বের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচ ২১ অক্টোবর।

‘আমরা শেষ পর্যন্ত থাকতে চাই। তবে তার আগে ধাপে ধাপে এগুতে হবে। ম্যাচ বাই ম্যাচ চিন্তা করবো। যদি বাছাই পর্বে ভালো করতে পারি তাহলে মূলপর্বে ভালো করার চেষ্টা করব।’

এবারের বিশ্বকাপে বাংলাদেশকে কোন পর্যায়ে দেখতে চান সাকিব আল হাসান। এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন,

‘আমার কাছে মনে হয় ভালো সুযোগ আছে। সব থেকে বড় বিষয়টি হচ্ছে শেষ তিনটি সিরিজ আমরা জিতেছি। হয়তো অনেক সমালোচনা হয়েছে। পিচ নিয়ে। বিশেষ করে লো স্কোরিং পিচ। তবে আপনি যখন জয়ের মধ্যে থাকবেন তখন আলাদা আত্মবিশ্বাস থাকবে। এই আত্মবিশ্বাস নিয়ে আমরা যেতে চাই।’

এবারের বিশ্বকাপ বসছে ওমান ও সংযুক্ত আরব আমিরাতে। বাছাই পর্বের জন্য আগে থেকেই দেশ ছাড়তে হচ্ছে বাংলাদেশকে।

‘১৫-১৬ দিন আগে যাওয়ায় আমাদের হাতে সময় থাকবে। আরব আমিরাতের পিচের সঙ্গে মানিয়ে নেয়ার সুযোগ থাকবে। আমি মনে করি পিচ-কন্ডিশন তেমন প্রভাব ফেলবে না। আমরা জয়ের মধ্যে আছি সেই আত্মবিশ্বাস কাজে দিবে।’

বিশ্ব আসরের আগে আমিরাতেই ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) অংশ নিতে দেখা যাবে সাকিব ও মোস্তাফিজকে। তাদের অভিজ্ঞতা কি দলের জন্য বাড়তি পাওয়া?

‘আশাকরি সাহায্য করবে। আমাদের ওই কন্ডিশনও দেখা হবে। আমরা ওই অভিজ্ঞতাটা শেয়ার করতে পারবো। আটটা ফ্র্যাঞ্চাইজির মধ্যে দুইটায় আমি ও মোস্তাফিজ অংশ নিচ্ছি। বিশ্বকাপ নিয়ে অন্য দেশের খেলোয়াড়দের ভাবনা গুলো দলের অন্যদের জানাতে পারব। যেটা আমাদের ভালো করতে সাহায্য করবে।’

২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপে ব্যাট-বলে দুর্দান্ত সাকিবকে দেখা গেছে। এবারও তার প্রতি থাকবে বিশেষ নজর।

‘আসলে গত আইপিএল শেষ হওয়ার পর বিশ্বকাপে গিয়েছিলাম। এবারও সুযোগ থাকছে। চেষ্টা করবো নিজের সেরা দিয়ে প্রস্তুতি নিতে। দেশের হয়ে আমার পক্ষে যতটুকু সম্ভব দেয়ার চেষ্টা করবো। সব সময় একরকম পারফর্ম হবে সেটা ঠিক না। তবে চেষ্টা করবো।’

সাকিবের মতে সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে যেকোনও দলই শিরোপা জয় করতে পারে।

‘টি-টোয়েন্টি ফরম্যাট সব দলের সুযোগ থাকে। মোমেন্টামের খেলা। মোমেন্টাম যদি আমরা প্রথমে নিতে পারি তাহলে অবশ্যই অনেক বড় সুযোগ রয়েছে। আমাদের দলে অনেকেই রয়েছেন যারা ভালো করতে পারবেন।’

আর একটি উইকেট তুললে সুযোগ রয়েছে লাসিথ মালিঙ্গাকে টপকে যাওয়ার। ১০৭ নিয়ে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের সবচেয়ে বেশি উইকেটের মালিক লঙ্কান কিংবদন্তি। রেকর্ড গড়েই বিশ্বকাপের মঞ্চে পা রাখার দ্বারপ্রান্তে সাকিব।

‘আমার কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ দলের হয়ে কতটুকু ভূমিকা রাখতে পারছি। আমার ফোকাসটা সব সময় এমনই ছিল। এমনই থাকবে। এটার কোনও পরিবর্তন আসবে না। সেটা উইকেট না পেয়ে রান কম দিয়েও হয় এতেও আমি খুশী থাকবো। ক্যারিয়ারের এই প্রান্তে এসে দলগত পারফরমেন্সটাই আমার কাছে মহাগুরুত্বপূর্ণ।’ যোগ করেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

ওয়াই

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS