Mir cement
logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৯ জুন ২০২১, ৫ আষাঢ় ১৪২৮

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি নিউজ

  ১১ জুন ২০২১, ১৭:৫৬
আপডেট : ১১ জুন ২০২১, ১৯:২৮

রাগ-ক্ষোভের ম্যাচে আবাহনীর বিপক্ষে মোহামেডানের জয়

khaled mahmud sujon, shakib al hasan, খালেদ মাহমুদ সুজন, rtv online, আরটিভি অনলাইন, abahani vs mohammedan
ছবি- সংগৃহীত

মিরপুর হোম অব ক্রিকেটে মাঠে নেমেছিল আবাহনী-মোহামেডান। ঐতিহ্যের লড়াই চলাকালে আম্পায়ারের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে গিয়ে দুইবার ক্ষোভ ঝাড়তে দেখা গেছে মোহামেডান অধিনায়ক সাকিবকে। এমনকি আবাহনীর কোচ খালেদ মাহমুদ সুজনের সঙ্গেও দ্বন্দ্বে জড়াতে দেখা যায় তাকে। শেষ পর্যন্ত ম্যাচটি অবশ্য জিতে নিয়েছে মোহামেডানই।

শুক্রবার (১১ জুন) ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ (ডিপিএল) টি-টোয়েন্টিতে বৃষ্টি আইনে ৩১ রানে জয় তুলে নেয় সাকিব আল হাসান নেতৃত্বাধীন দলটি।

লিগের ৪০তম ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করে মোহামেডান। ২০ ওভারে ছয় উইকেট হারিয়ে ১৪৫ রান সংগ্রহ করে তারা।

দুটি ছয় ও এক চার মেরে ২৭ বলে সর্বোচ্চ ৩৭ রান করেন সাকিব। আবাহনীর হয়ে ৩ ওভারে ২৪ রানে তিনটি উইকেট নেন একেএস স্বাধীন।

১৪৬ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুভাগত হোমের ঘূর্ণি জাদুতে পড়তে হয় আবাহনীকে। মোহাম্মদ নাঈম গোল্ডেন ডাক মারেন। দুই বল খেলে রানের খাতা খুলতে পারেননি স্বাধীন। অন্যদিকে ৭ বল খেলে ২ রান তুলে বিদায় নেন আফিফ হোসেন।

নাজমুল হোসেন শান্তকে সঙ্গে নিয়ে প্রাথমিক বিপর্যয় সামলানোর চেষ্টা করেন মুশফিকুর রহিম। পঞ্চম ওভারের বল করছিলেন সাকিব। শেষ বলে স্ট্রাইকে ছিলেন আবাহনীর দলনেতা মুশফিক। সাকিব এলবিডব্লিউর আবেদন করলেও আম্পায়ার ইমরান পারভেজ আউট দেননি। মুহূর্তেই ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা যায় সাকিবকে। স্ট্যাম্পে লাথি দিয়ে আম্পায়ারের সঙ্গে কথা বলতে থাকেন তিনি।

ষষ্ঠ ওভারের পঞ্চম বল পর্যন্ত আবাহনীর সংগ্রহ ছিল ৩ উইকেটে ৩১ রান। আকাশ ছিল মেঘলা। খেলা থামিয়ে মাঠকর্মীদের পিচ ঢাকার জন্য নির্দেশ দেন আম্পায়ার। ঠিক এমন সময় সাকিব আবারও চড়াও হন। দৌড়ে এসে স্ট্যাম্প উপড়ে ফেলেন তিনি। তার পর রাগ দেখিয়ে মাঠ থেকে বের হয়ে আসেন।

সাকিবরা মাঠ থেকে বের হওয়ার সময় আবাহনীর কোচ ও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পরিচালক খালেদ মাহমুদ সুজন সাকিবের দিকে তেড়ে আসতে থাকেন। সাকিবও দূর থেকে তার সঙ্গে কথা বলতে থাকেন। সাকিবের পাশে থাকা টিম ম্যানেজমেন্টের লোক তাকে ধরে রাখেন। অন্যদিকে সুজনকে মোহামেডানের খেলোয়াড় শামসুর রহমান শুভ ধরে থাকেন।

সুজন ও সাকিবের বিষয়টির অবশ্য মীমাংসা হয়েছে বলে জানান আবাহনীর ম্যানেজার মাসুদ ইকবাল মামুন।

বৃষ্টি থামলে ওভার কমিয়ে নতুন লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয় আবাহনীর জন্য। জিততে হলে ৯ ওভারে মুশফিকদের করেতে হতো ৭৬ রান।

মাঠে ফিরতেই তাসকিন আহমেদের বলে বোল্ড হয়ে বিদায় নেন শান্ত। ২০ বলে ১৫ রান তুলেন তিনি। আবু জায়েদ রাহির বলে আবু হায়দার রনির হাতে ক্যাচ তুলে মাঠ ছাড়েন মোসাদ্দেক হোসেন। তার আগে ৩ বলে করেন ৩ রান।

২ বল খেলে কোনও রান না করেই বিদায় নেন সাইফ উদ্দিন। উইকেটটি আদায় করেন তাসকিন।

১৮ বলে ১৮ রান করে ক্রিজে ছিলেন মুশফিক তার সঙ্গে ১ বলে ১ রান করে অপরাজিত থাকেন আমিনুল ইসলাম।

নির্ধারিত ৯ ওভারে ২২ রান করতে সক্ষম হয় আবাহনী লিমিটেড। ম্যাচ সেরা হয়েছেন মোহামেডানের শুভাগত হোম।

ওয়াই

RTV Drama
RTVPLUS