logo
  • ঢাকা রোববার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ২৮ চৈত্র ১৪২৭

তামিমা আগে রাকিবের ছিল, এখন আমার: নাসির

নাসির হোসেন ও তার স্ত্রী তামিমা

বিয়ে করে যেন মহা বিপদে পড়েছেন জাতীয় দলের এক সময়ের নিয়মিত খেলোয়াড় নাসির হোসেন। গত ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা দিবসের দিন ঘটা করে তামিমা তামি নামের একজনের সঙ্গে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন নাসির হোসেন। এরপর দিন জানা যায় তামিমা তামির আগেও বিয়ে হয়েছিল রাকিব হাসান নামের এক ব্যাক্তির সঙ্গে তবে তাকে ডিভোর্স না দিয়েই ঘর বাঁধেন নাসিরের সঙ্গে। আগের সংসারে ৮ বছর বয়সী একটি মেয়ে সন্তানও রয়েছে।

এতেই সমালোচনা শুরু হয় নাসির-তামিমা দম্পতিকে ঘিরে। শেষ পর্যন্ত আজ বুধবার বনানীতে সংবাদ করে সম্মেলনে হাজির হন নাসির হোসেন ও স্ত্রী তামিমা তামি। দুজনেই সংবাদ সম্মেলনে এসে নিজেদের বক্তব্য তুলে ধরেন গণমাধ্যমের সামনে। এসময় নাসির জানান, দীর্ঘ পরিচয়ের পর সব জেনেশুনেই তামিমাকে বিয়ে করেছেন।

‘আমি তামিমাকে চিনি প্রায় চার-সাড়ে চার বছর ধরে। সে আমার খুব ভালো একটা বন্ধু ছিল। তারপর আমাদের প্রেম এবং বিয়ে করি। আমরা আইনগত ভাবে ইসলামী শরিয়াহ মেনে সবাইকে জানিয়ে বিয়ে করেছি। আমাদের মনে যদি কিছু থাকতো এভাবে ওপেনলি বিয়ে করতাম না। আমরা সবাইকে জানিয়ে ধুমধাম করে বিয়ে করেছি। তামিমার আগে বিয়ে হয়েছিল, বাচ্চা আছে, ডিভোর্স হয়েছে। সব জেনেই তাকে বিয়ে করেছি। ডিভোর্স পেপার দেখেই বিয়ে করেছি।’

এসবের আগে তামিমার আগের স্বামী রাকিব হাসান মামলার প্রস্তুতিসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তামিমা ও নাসিরকে নিয়ে বিভিন্ন ধরণের মন্তব্য করেন। এসব নিয়ে নাসির জানান, আইনি ব্যবস্থা নিবেন।

‘রাকিব সাহেব যেসব বলেছেন সেসব ঠিক না। আগে তামিমা উনার ছিল এখন তামিমা আমার। সে যেই হোক আমার ওয়াইফকে নিয়ে বাজে মন্তব্য করলে কাউকেই ছাড় দিব না এবং সেটা আইনের মাধ্যমে। আমরা যা করেছি সবাইকে জানিয়ে করেছি। লুকোচুরি তো করিনি। সে (রাকিব) সোশ্যাল মিডিয়াতে এসে যেসব করছে এসব ঠিক হয়নি। আমার বেলায় এমন হলে আমি সোজা থানায় গিয়ে মামলা করতাম।’

এমআর/

RTV Drama
RTVPLUS