logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারি ২০২১, ১২ মাঘ ১৪২৭

মাশরাফীর ভাবনায় ‘খেলা চালিয়ে যেতে চাই’

ছবি- সংগৃহীত
২০২০ সালের মার্চে সবশেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছিল বাংলাদেশ। সিলেটে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ দিয়ে মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা ইতি টেনেছিলেন অধিনায়কত্বের। এর পর থেকেই অনেকের ভাবনায় ছিল, মাশরাফীর ক্রিকেট বোধহয় এখানেই শেষ।

কিন্তু অধিনায়ক মাশরাফীর শেষ সংবাদ সম্মেলনে পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছিলেন, যতদিন পারেন খেলাটা উপভোগ করবেন। সেটা জাতীয় দল কিংবা ঘরোয়া ক্রিকেট হোক।

‘আমি খেলতে চাই সেটা জাতীয় দল কিংবা ঘরোয়া ক্রিকেটে হোক। আরও কিছুদিন খেলাটাকে উপভোগ করতে চাই। আজকের পর থেকে যদি নির্বাচকরা মনে করে আমি খেলতে পারব তবে অবশ্যই জাতীয় দলে খেলব।’

মাশরাফীর চাওয়া ছিল এটুকুই। কিন্তু দশ মাস খেলা না হওয়া আর ভবিষ্যৎ বিবেচনায় মাশরাফীকে বাদ দিয়েই ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজের দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

এই সিরিজ থেকে মাশরাফীর বাদ দেয়াটা যে সহজ ছিল না সেটিও স্বীকার করেছেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু। এও বলেছেন, ২০২৩ বিশ্বকাপের কথা ভেবে বাদ দেয়া হয়েছে মাশরাফীকে।

‘এটা একটা কঠিন সিদ্ধান্ত ছিল। তাহলেও বাস্তবতা আমাদের মানতেই হবে। সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে। আমরা সবাই সম্মিলিত ভাবে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি। মাশরাফীকে বাদ দিতে হয়েছে। আমরা ২০২৩ বিশ্বকাপে ফোকাস রেখে এগোচ্ছি।’

কিন্তু মাশরাফী কি বলছেন? বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে সফল অধিনায়ক বাদ পড়ার পরও নিজের কথায় অনড়। আরটিভি নিউজকে তিনি জানিয়েছেন, এটাকে পেশাদারী ভাবেই নিয়েছেন। নির্বাচকরা তাদের কাজ করেছেন।

‘এটা সম্পূর্ণ পেশাদার। নির্বাচক ও ম্যানেজমেন্ট যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে এটাকে আমি পেশাদারী ভাবে নিচ্ছি। আমার এখানে কিছু বলার আছে বলে মনে করি না। আমি তো বলেছি, জাতীয় দলে জায়গা না পেলেও খেলা চালিয়ে যাব। খেলাটা আমি উপভোগ করি এর বাইরে আর কিছু ভাবছি না।’

অথচ ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গেই সবচেয়ে বেশি  ৩০ উইকেট নিয়েছেন মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা। এর পর রয়েছেন আব্দুর রাজ্জাক ও মুস্তাফিজুর রহমান (১৯)। সাকিব আল নিয়েছেন ১৮টি, মাহমুদউল্লাহ ১৪টি, মেহেদী হাসান মিরাজ ও রুবেল হোসেন নিয়েছেন ১২ টি করে উইকেট।

এমআর/

RTV Drama
RTVPLUS