logo
  • ঢাকা সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ৪ মাঘ ১৪২৭

হতাশ ছিলেন মুশফিক (ভিডিও)

ছবি- বিসিবি
এলিমিনেটরের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে দিনের প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হয় বেক্সিমকো ঢাকা ও ফরচুন বরিশাল। ওই ম্যাচে ৯ রানে জয় পেয়ে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার নিশ্চিত করে মুশফিকুর রহিমরা।

ঢাকা আগে ব্যাট করে ১৫১ রানের লক্ষ্য দেয় বরিশালকে। ছোট লক্ষ্যে দারুণ লড়াই করছিল বরিশালের ব্যাটাররা। একটা সময় ঢাকার হেরে যাওয়ার অবস্থাও হয়। এতে নিজেকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারেননি ঢাকার অধিনায়ক মুশফিক।

ম্যাচে বেশ কয়েকবার তাকে মেজাজ হারাতে দেখা যায়। ম্যাচ শেষে মুশফিক বলেন, ফিল্ডিং নিয়ে হতাশ ছিলেন। এত কম রানের লক্ষ্য দেয়ার পর ছন্নছাড়া ফিল্ডিং দেখে হতাশ হওয়া মুশফিক ঘুরে দাঁড়ানোর কথাও জানান।

‘আমি সত্যিই হতাশ ফিল্ডিং নিয়ে। কিন্তু এটা খেলারই অংশ। বোলাররা এই ছোট লক্ষ্য ডিপেন্ড করতে গিয়ে সবসময়ই সুযোগ তৈরি করেছে এটা ইতিবাচক দিক। আমি মনে করি আমাদের ভালো আত্মবিশ্বাস আছে আগামীকালকের ম্যাচের জন্য। আশা করি  আমরা ভালো কিছু প্ল্যান নিয়ে এগোবো যা মাঠেও প্রয়োগ করতে পারবো প্রথম ৬ ওভারে ইন শা আল্লাহ।’

মেজাজ হারিয়ে দুইবার সতীর্থ নাসুম আহমেদের দিকে তেড়ে যান। প্রথম ঘটনা বরিশালের ইনিংসের ১৩ তম ওভারের সময়। ওই ওভারে নাসুমকে দুটি হাঁকিয়েছিলেন আফিফ হোসেন। তাতেই চোখেমুখে বিরক্ত চাপ। পরের বলে মিডউইকেটে বল ঠেলে সিঙ্গেল নেন আফিফ। তখন বল কুড়িয়ে আনতে গিয়ে  নাসুমের হাতে বল তুলে দিয়ে মারার জন্য উদ্যত হন!

এর পরের ঘটনা ইনিংসের ১৭তম ওভারে। শফিকুলের বলে শর্ট ফাইন লেগে আফিফ ক্যাচ তুলে দিলে সেটি নিতে যান মুশফিক, সঙ্গে ছুটে যান নাসুমও। মুশফিক ক্যাচ নেন, ক্যাচ নিয়ে ঘুরে দাঁড়িয়ে নাসুমকে যেন মেরেই দিচ্ছিলেন।

এসব নিয়ে মুশফিক বলেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ, সব কিছু ঠিক আছে। জয়ের মধ্যে থাকলেও ব্যক্তি ও দল হিসেবে আমাদের উন্নতির জায়গা আছে আরও। সুতরাং আগামীকাল আরেকটা ম্যাচ আছে, আশা করি জিতবো, দেখা যাক আশা করি দল হিসেবে খেলতে পারব।’

এমআর/

RTV Drama
RTVPLUS