logo
  • ঢাকা রোববার, ২৯ মার্চ ২০২০, ১৫ চৈত্র ১৪২৬

করোনা আতঙ্কে সাধারণ রোগীরাও চিকিৎসা না পাওয়ার অভিযোগ

শরিয়ত খান, আরটিভি অনলাইন
|  ২২ মার্চ ২০২০, ১২:১০
করোনা আতঙ্কে সাধারণ রোগীরাও চিকিৎসা না পাওয়ার অভিযোগ
করোনাভাইরাস আতঙ্কে সাধারণ সর্দি-কাশি, জ্বর বা শ্বাসকষ্টের মতো সাধারণ রোগীরাও হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসা সেবা পাচ্ছেন না। বিভিন্ন হাসপাতাল থেকে তাদের ফিরিয়ে দেয়া হচ্ছে। এ অবস্থায় বিনা চিকিৎসায় মারা যাওয়ার অভিযোগ করছেন স্বজনরা। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বলছে, করোনা আতঙ্কের কারণে তারা পর্যাপ্ত চিকিৎসা সেবা দিতে পারছে না। মূলত ডাক্তার ও নার্সদের পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা না থাকার কারণে এমনটা হচ্ছে বলে জানা গেছে। 

জানা গেছে, জ্বর, সর্দি-কাশি ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে প্রতিদিনই রাজধানীর বিভিন্ন হাসপাতালে ভিড় করছে রোগীরা। তবে ডাক্তারদের পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা না থাকার কারণে রোগীদের ভর্তি করছে না কর্তৃপক্ষ। 

এদিকে, গত ১৮ মার্চ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চারজন ডাক্তার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় তাদের ‘হোম কোয়ারেন্টিনে’ রাখা হয়। এ ঘটনায় সাধারণ মানুষের মতো আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে ডাক্তার ও স্বাস্থ্যকর্মীদের মধ্যেও। ফলে দুর্ভোগের স্বীকার হচ্ছেন জ্বর-সর্দি বা শ্বাসকষ্টের রোগীরা। চিকিৎসা নিতে গেলে বিভিন্ন হাসপাতাল থেকে করোনা আতঙ্কে রোগীদের ফিরিয়ে দেয়া হচ্ছে। গত বৃহস্পতিবার জ্বরে আক্রান্ত এমন এক রোগী বিনা চিকিৎসায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান।

সাধারণ জ্বর, সর্দি বা শ্বাসকষ্টের রোগীদের হাসপাতালে চিকিৎসা না দিয়ে, কভিড-19 পরীক্ষার জন্য আইইডিসিআরে পাঠিয়ে দেয়া হচ্ছে। এখানেও পড়তে হচ্ছে নানা বিড়ম্বনায়। বিদেশফেরত বা এ ধরনের কারও সংস্পর্শে না আসাদের পরীক্ষা করছেন না তারাও।

ব্যক্তিগত সুরক্ষার উপকরণ বা পিপিই না থাকায় অনেক চিকিৎসকই আতঙ্কে আছেন। তবে জ্বর-সর্দি হলেই আইইডিসিআর-এ না যাওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা। পাশাপাশি চিকিৎসকদেরও আতঙ্কিত না হয়ে সতর্ক থেকে স্বাস্থ্যসেবা দেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

এজে/এসএস

সংশ্লিষ্ট সংবাদ : করোনাভাইরাস

আরও
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • বিশেষ প্রতিবেদন এর সর্বশেষ
  • বিশেষ প্রতিবেদন এর পাঠক প্রিয়