logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ৩০ কার্তিক ১৪২৬

বেহাল দশা গাজীপুর সাফারি পার্কের

মারা গেছে বাঘিনী, সিংহগুলোও রুগ্ণ হয়ে যাচ্ছে, ক্যাঙ্গারুর অস্তিত্ব বিলীন

রাজীবুল হাসান, গাজীপুর
|  ২২ আগস্ট ২০১৯, ১৬:০৬
মারা গেছে বাঘিনী
মারা গেছে বাঘিনী, সিংহগুলোও রুগ্ণ হয়ে যাচ্ছে, ক্যাঙ্গারুর অস্তিত্ব বিলীন
নানান অব্যবস্থাপনা আর অযত্ন-অবহেলায় গাজীপুর সাফারি পার্কে একের পর এক মারা যাচ্ছে দুর্লভ সব প্রাণী। কয়েকদিন আগেও মারা গেছে একটি বাঘিনী। রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে ময়ূরমহল, হরিণ বেষ্টনীসহ পুরো পার্কেরই বেহাল দশা। লোকবলের অভাব আর অপরিচ্ছন্ন থাকার কারণে শালবন ঘেরা এই পার্কে দর্শনার্থীর সংখ্যাও দিন দিন কমছে। তবে সব অভিযোগ অস্বীকার করেছে পার্ক কর্তৃপক্ষ।

যাত্রা শুরুর পর থেকেই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্ক অল্প সময়েই দর্শনার্থীদের নজর কাড়ে। গাজীপুরের বাইরে থেকেও অনেকে এখানে ঘুরতে আসেন। বর্তমানে এই পার্কে রয়েছে ৮০ প্রজাতির পাঁচ হাজারের বেশি পশু পাখি। অযত্ন আর কর্তৃপক্ষের উদাসীনতায় গেল ১২ আগস্ট মারা গেছে একটি বাঘিনী। এ নিয়ে ছয় বছরে ৪টি বাঘ মারা গেছে। বর্তমানে ১২টি বাঘের পাশাপাশি সিংহগুলোও দিনদিন রুগ্ণ হয়ে যাচ্ছে। ঝোপঝাড় পরিষ্কার না করায় পশু পাখি দেখতে না পেয়ে, ঘুরতে আসা মানুষের অভিযোগের যেন শেষ নেই।

গেল দুইবছরে পার্ক থেকে ক্যাঙ্গারুর অস্তিত্ব বিলীন হয়ে গেছে। ১২টি জিরাফের মধ্যে টিকে আছে পাঁচটি। রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে নেটবিহীন বেষ্টনী থেকে উড়ে গেছে অর্ধশত ময়ূর।

প্রায় চার হাজার একর আয়তনের পার্কটি দেখভালের জন্য আছে মাত্র ২৮ জন কর্মী। পশু-পাখির জন্য যে হাসপাতাল আছে, সেখানেও নিয়মিত চিকিৎসক বসেন না। তবে এসব অব্যবস্থাপনার কথা অস্বীকার করেছে কর্তৃপক্ষ।

পার্কের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে, এটি রক্ষণাবেক্ষণে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়ার দাবী দর্শনার্থীদের।

এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • বিশেষ প্রতিবেদন এর সর্বশেষ
  • বিশেষ প্রতিবেদন এর পাঠক প্রিয়