Mir cement
logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

দেড় বছরে জেট ফুয়েলের দাম বেড়েছে ১১৭ শতাংশ (ভিডিও) 

দেড় বছরে দেশে উড়োজাহাজের জ্বালানি জেট ফুয়েলের দাম বেড়েছে ১১৭ শতাংশ। যার প্রভাব পড়েছে টিকিটের দামে। এতে শঙ্কিত দেশীয় এয়ারলাইনসগুলো। ব্যয় নিয়ন্ত্রণ করা না গেলে, ব্যবসা টিকিয়ে রাখা কঠিন হবে বলে মনে করছেন তারা। কর মওকুফের পাশাপাশি জেট ফুয়েলে ভর্তুকি দেওয়ার পরামর্শ এভিয়েশন বিশেষজ্ঞদের।

তথ্যমতে, কিছুদিন আগেও ঢাকা থেকে যশোর রুটে সর্বনিম্ন ভাড়া ছিল তিন হাজারের ঘরে। এক মাসের ব্যবধানে যা ঠেকেছে পাঁচ হাজারের কাছাকাছি। শুধু যশোর না, অভ্যন্তরীণ সব রুটেই এই হারে বেড়েছে টিকিটের দাম; যা অধিকাংশ যাত্রীর ক্রয়ক্ষমতার বাইরে।

করোনার দুই বছরে জেট ফুয়েলের দাম বেড়ে প্রায় দ্বিগুণ হয়েছে। ২০২০ সালের অক্টোবর থেকে দাম বাড়তে শুরু করে। তখন লিটারপ্রতি দাম ছিল ৪৬ টাকা। বর্তামানে ১০০ টাকা।

বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের (বিপিসি) তথ্য বলছে, ১৮ মাসে ১৪ বার বেড়েছে জেট ফুয়েলের দাম। সবশেষ গেল ৬ এপ্রিল প্রতিলিটারে দাম বেড়েছে ১৩ টাকা। একটি ফ্লাইট পরিচালনার প্রায় ৪০ ভাগই খরচ হয় জ্বালানি কিনতে। ব্যয় মেটাতে তাই বিমান ভাড়া বাড়িয়েছে প্রতিষ্ঠানগুলো।

ইউএস বাংলা এয়ারলাইনসের মহাব্যবস্থাপক মো. কামরুল ইসলাম বলেন, প্রতিটা রুটেই ভাড়া বেশি নির্ধারণ করতে হচ্ছে। কারণ, আমাদের এবং এয়ারলাইনস টিকে থাকার জন্য এটা করা ছাড়া আমাদের কিছু করার নেই।

নভোএয়ারের এমডি মফিজুর রহমান বলেন, অতীতের অভিজ্ঞতা খুবই খারাপ। অনেকগুলো এয়ারলাইনস বসে গেছে। এই খারাপ অবস্থা যখন কাটিয়ে উঠছিল ঠিক তখই তেলের দাম বেড়ে গেল, যেটা সরাসরি চাহিদার ওপর প্রভাব ফেলবে।

তিনি বলেন, তেলের দাম বাড়ার সঙ্গে ভ্যাট যুক্ত হলে এয়ারলাইনস সেটা বহন করতে পারবে না। তাই সরকারকে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে হবে।

এভিয়েশন বিশেষজ্ঞ কাজী ওয়াহিদুল আলম বলেন, সম্ভাবনাময় এভিয়েশন খাতকে বাঁচাতে সরকারকে উদ্যোগ নিতে হবে। তিনি বলেন, ফুয়েলে লিটারপ্রতি পাঁচ টাকা বাড়লেও সেটার প্রভাব এয়ারলাইনসগুলোর ওপর পড়ে। তখন তারা বাধ্য হয় ভাড়া বাড়াতে।

সাধ্যের মধ্যে দাম রাখতে না পারলে আগামীতে আকাশপথ থেকে যাত্রীরা মুখ ফিরিয়ে নিতে পারে আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS