Mir cement
logo
  • ঢাকা সোমবার, ১৭ মে ২০২১, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

চকবাজারে আগুন: আজও থামেনি নিহতদের পরিবারের কান্না (ভিডিও)

চকবাজারে চুড়িহাট্টায় আগুন: আজও থামেনি নিহতদের পরিবারগুলোর কান্না
চকবাজারে চুড়িহাট্টায় আগুনে পুড়ে যাওয়া নেই ভবন

রাজধানীর চকবাজারে চুড়িহাট্টায় আগুনে পুড়ে নিহতদের পরিবারগুলোর কান্না আজও থামছে না। পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তিকে হারিয়ে অসহায় পরিবারগুলো।

ঢাকা দক্ষিণ সিটির সাবেক মেয়রের সময়ে সহযোগিতার নামে ২১ পরিবারের একজন করে সদস্য পেয়েছেন ৪৭৫ টাকার দিন হাজিরায় অস্থায়ী ঝাড়ুদারের চাকরি। স্থায়ী চাকরি চান তারা। অন্যদিকে মামলায় তদন্ত প্রতিবেদন তো দূরের কথা দোষীদের পরিচয় জটিলতায় বেশি দূর এগোতে পারেনি পুলিশ।

২০১৯ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি রাতে চুড়িহাট্টার আগুনে বাবা হারানো নাসরিন আক্তার এভাবেই বলছিলেন কষ্টের কথা। আগুন তাদের পরিবারের উপার্জনক্ষম মানুষ আর স্বপ্নকে কেড়ে নিয়েছে।

ভুক্তভোগীরা বলেন, আমাদের চাকরি দেয়া হয়েছে রাস্তা পরিষ্কার করা। আমরা কেন মেথরের চাকরি করবো। আমরা আশা-করছিলাম সরকারি চাকরি দিবে। সন্তান নিয়ে চলতে খুব কষ্ট হচ্ছে। আমাদের যে চাকরি দিয়েছে তা করা সম্ভব না। খামের ভেতরে কি আছে তা আমরা জানি না। বাসায় এসে দেখি রাস্তা পরিষ্কার করার চাকরি দিয়েছে। সরকারি স্থায়ী চাকরির মাধ্যমে সন্তান-স্বজনদের নিয়ে সম্মানের সঙ্গে বাঁচতে চাই।

এ বিষয়ে ডিএমপি চকবাজার থানার তদন্তকারী কর্মকর্তা মো. কবির হোসেন হাওলাদার আরটিভি নিউজকে বলেন, আমরা ঠিকানাগুলো নির্ধারণ করতে পারছি না। এর পরেও আমরা চেষ্টা করছি।

এদিকে ঘটনার ১৯ মাসে ওয়াহিদ ম্যানসন এর মালিকের দুই ছেলে ছাড়া অন্য কাউকে গ্রেপ্তারতো পরের কথা শনাক্তই করতে পারেনি পুলিশ। আইনের এমন ফাঁক ফোঁকরের সুযোগে জামিনে মুক্ত হয়ে ঘুরছে ওয়াহিদ ম্যানসনের মালিকের দুই ছেলে।

জিএম/পি

RTV Drama
RTVPLUS