দেশে এসে আটকা পড়ে অনিশ্চয়তায় হাজারো শিক্ষার্থী (ভিডিও)

প্রকাশ | ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৮:৪৩ | আপডেট: ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৮:৫০

আতিকা রহমান, আরটিভি নিউজ
চীনা বিশ্ববিদ্যালয়, ফাইল ছবি

করোনার কারণে অনেক বাংলাদেশি শিক্ষার্থী বিভিন্ন দেশ থেকে নিজ দেশে ফেরত এসেছেন। বেশিরভাগ দেশে প্রবেশে এখনও নিষেধাজ্ঞা থাকায় অনিশ্চয়তায় পড়েছে শিক্ষার্থীরা। সেই সঙ্গে রয়েছে ভিসার মেয়াদ শেষ হওয়া করোনায় আর্থিক সঙ্কট নিয়ে দুশ্চিন্তা। শিক্ষার্থীদের ভিসার মেয়াদ বৃদ্ধি ও বিশ্ববিদ্যালয় চালু হওয়া মাত্র তাদের বিদেশে যাওয়ার ব্যাপারে সরকারকে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানালেন শিক্ষাবিদরা।

বিশ্বব্যাপী করোনা মহামারি ছড়িয়ে পড়লে শুরুর দিকেই আমেরিকা, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, চীন মালয়েশিয়াসহ অনেক দেশ থেকে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা নিজ দেশে ফিরে আসেন। অনেকে আবার বিভিন্ন দেশে আটকে পড়েন। এছাড়া এখনও নিষেধাজ্ঞা আছে কিছু দেশে। এ পরিস্থিতিতে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা রয়েছে উদ্বেগ উৎকণ্ঠায়। তারা বলছেন, কিছু প্রতিষ্ঠান অনলাইনে ক্লাস নিলেও বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগ দেয়ার ব্যাপারে কোনও নির্দেশনা দিচ্ছে না।

চীনের সিচুয়ান ইউনিভার্সিটি সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং এর শিক্ষার্থী হাসান খোরশেদ রিয়াদ বলেন, আমরা অনেক বার জিজ্ঞেস করেছি, কবে নাগাদ আমরা ফিরতে পারব। তারা বলেন, আমরা নিজেরাও জানি না, এটা সম্পূর্ণ সরকার জানে। আমাদের অনেক শিক্ষার্থীর ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে। আবার দেশে থাকলেও আমাদের টিউশন ফি দিতে হচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্রের মাউন্ট হলিউক কলেজের পরিসংখ্যান ও জনস্বাস্থ্য এর শিক্ষার্থী নাফিয়া সুবাহ বলেন, আমাদের কলেজ বিভিন্ন সেমিনার করত সেখানে ইন্টার্নশিপের সুযোগ বা রিসার্চ এর সুযোগ থাকত। এখন সেগুলো হচ্ছে না।

চীনের চংচিং ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলোজির কম্পিউটার সাইন্সের শিক্ষার্থী বলেন, আমাদেরকে বলা হয়েছে চায়নাতেই গিয়ে সব টিউশন ফি পরিশোধ করতে হবে।

ভিসার মেয়াদ শেষ হওয়ার পাশাপাশি কোন কোন দেশ একেবারে বিদেশি শিক্ষার্থীদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে পারে এমন শঙ্কায় রয়েছেন তারা। আর্থিক সঙ্কটের কারণেও অনেকের বিদেশে পড়তে যাওয়া নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে।

শিক্ষাবিদ অধ্যাপক মনজুরুল ইসলাম বলেন, পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত কোনও দেশই আর বিদেশি শিক্ষার্থীদের গ্রহণ করবে না। হতাশ না হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর সঙ্গে যোগাযোগ রেখে অনলাইনে পড়াশোনা চালিয়ে যেতে হবে। ভিসার মেয়াদ যদি শেষ হয়ে যায় থাকলে এখানকার দূতাবাসের সাথে যোগাযোগ করতে হবে এক্ষেত্রে সরকার সাহায্য করতে পারে।

তিনি আরও বলেন, শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যতের কথা ভেবে করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে তারা যাতে দ্রুত বিদেশে যেতে পারে সে বিষয়ে সরকারকে উদ্যোগ নিতে হবে।

বাংলাদেশিদের অন্যদেশে প্রবেশে যাতে বাধার সম্মুখীন না হতে হয় সেদিকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে নজর রাখার আহ্বান জানালেন তিনি।

এসএ/ এমকে