smc
logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ৫ কার্তিক ১৪২৭

আত্মঘাতী সিদ্ধান্ত নিচ্ছে নির্বাচন কমিশন (ভিডিও)

  আতিকা রহমান, আরটিভি নিউজ

|  ২৬ আগস্ট ২০২০, ২৩:০৪ | আপডেট : ২৬ আগস্ট ২০২০, ২৩:১৯
নির্বাচনী অপরাধে প্রার্থিতা বাতিলের ক্ষমতা খর্বের উদ্যোগকে কমিশনের জন্য চরম ব্যর্থতা হিসেবে দেখছেন বিশেষজ্ঞরা। নির্বাচন পর্যবেক্ষকরা বলেন, নির্বাচন কমিশনকে আরও শক্তিশালী ও প্রভাবমুক্ত করার দাবির মুখে এ ধরণের উদ্যোগ আত্মঘাতী। অবিলম্বে গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ সংস্কারের এমন সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসার দাবি জানান সাবেক নির্বাচন কমিশনার ও পর্যবেক্ষকরা। গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ বা আরপিও অনুযায়ী নির্বাচনী অপরাধে কোনও প্রার্থীর প্রার্থিতা বাতিলের ক্ষমতা রয়েছে নির্বাচন কমিশনের। সম্প্রতি এই বিষয়ে আরপিওর ৯১ এর ই ধারাটি বাতিলের উদ্যোগ নেয় কমিশন। 

গেল সোমবার কমিশনের বৈঠকে এই উদ্যোগের বিরোধিতা করে নোট অফ ডিসেন্ট দেন কমিশনার মাহবুব তালুকদার। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, প্রার্থিতা বাতিলের একক ক্ষমতা থেকে সরে আসা নির্বাচন কমিশনের একটি আত্মঘাতী সিদ্ধান্ত হবে। এতে কমিশন নখদন্তহীন বাঘ নয়, বিড়ালে পরিণত হবে। 

তবে এ ব্যাপারে মাহবুব তালুকদার বা অন্য কোনও কমিশনার কথা বলতে রাজি হননি।

নির্বাচন পর্যবেক্ষকরা বলেন, ক্ষমতা হ্রাস করলে রাজনৈতিক দল ও প্রার্থীদের কাছে কমিশনের গুরুত্ব কমে যাবে।

সাবেক নির্বাচন কমিশনার মো. শাহনেওয়াজ বলেন, এটা কখনই গ্রহণ যোগ্য নয়। যে ক্ষমতাটা রয়ে গেছে, সেই ক্ষমতাটাকে বিলিয়ে দেয়ার কোনও অর্থ নেই। যেখানে অন্যান্য রাজনৈতিক দলসহ সাধারণ জনগণ বলছে নির্বাচন কমিশনকে আরও শক্তিশালী করার কথা। সেখানে নির্বাচন কমিশনের অধিকারকে খর্ব করার জন্য নিজেরাই চেষ্টা করছে, আমি এটার কোনও কারণ দেখি না।  

সুশাসনের জন্য নাগরিক এর সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার বলেন, এখন তারা কেন গোপনে এই প্রচেষ্টা চালাচ্ছে এবং এটা তাদের অযোগ্য ও জনবিরোধীতার প্রতিফলন। নির্বাচন কমিশনের যদি ক্ষমতাই না থাকে, তাহলে থাকা আর না থাকা একই কথা। এর মাধ্যমে তারা প্রমাণ করলেন তাদের যোগ্যতার অভাব হয়েছে। অতএব তাদের উপর কারও আস্থা আছে বলে আমি মনে করি না। এটা একটা সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান। যার নিজেরাই ক্ষতি করছেন।
 
ক্ষমতা কমলে কমিশন একদিকে যেমন অন্তঃসারশূন্য হবে তেমনি নির্বাচন ব্যবস্থার প্রতি ভোটারদের আস্থা আরও কমবে বলে আশঙ্কা পর্যবেক্ষকদের।  

২০১৩ সালে কাজী রকিবউদ্দীন আহমদের কমিশনও এই ধারা সংশোধনের উদ্যোগ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছিল। 

এসএ/এমকে

RTVPLUS
bangal
corona
দেশ আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ ৩৯০২০৬ ৩০৫৫৯৯ ৫৬৮১
বিশ্ব ৪,০৩,৮২,৮৬২ ৩,০১,৬৯,০৫২ ১১,১৯,৭৪৮
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • বিশেষ প্রতিবেদন এর সর্বশেষ
  • বিশেষ প্রতিবেদন এর পাঠক প্রিয়