logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১২ ফাল্গুন ১৪২৭

যেসব কারণে প্রেমিক যুগলের কাছে জনপ্রিয় হচ্ছে ‘টেলিগ্রাম’

ফাইল ছবি

টেলিগ্রাম, নামটি নতুন করে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার কিছু নেই। বিশ্বের বহুল পরিচিত একটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। সম্প্রতি অন্যান্য যোগাযোগ মাধ্যমের থেকে এ মাধ্যমটির ব্যবহার প্রতিনিয়ত বাড়ছে। কিন্তু এতে আলাদা এমন কী ব্যবহার সুবিধা রয়েছে যার জন্য সবাই এখন টেলিগ্রামের দিকে ঝুঁকছে।

বিশেষ করে প্রেমিক প্রেমিকার কাছেই বেশি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে এই মাধ্যমটি। কারণ অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভিডিও কলের প্রাইভেসি খুব বেশি শক্তিশালী নয়। সে তুলনায় টেলিগ্রাম এগিয়ে। এছাড়া টেলিগ্রামের স্পেস, কথার স্পষ্টতা, ও দ্রুত ডাটা ট্রান্সফারের কারণেই তরুণদের কাছে দিন দিন জনপ্রিয়তা বাড়ছে।

মহামারি করোনা ভাইরাসের সময় সবাই যখন ঘরবন্দি ছিলেন। এই সময়ে সবাই সোশাল মিডিয়াতে বন্ধু-বান্ধব ও আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে যোগাযোগ রেখেছেন। এর মাঝে কোনো কোনো সোশাল মিডিয়া তাদের প্রাইভেসি পলিসি পরিবর্তন করায় সবাই বেঁছে নিয়েছেন টেলিগ্রাম। অন্যান্য সোশাল মিডিয়া থেকে টেলিগ্রামে অতিরিক্ত থাকা সুযোগ-সুবিধার বিষয়গুলো পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হল।

সিনেমা: অন্যান্য সোশাল মিডিয়াতে সর্বোচ্চ ১০০ এমবি মাপের ফাইল পাঠানো যায়। কিন্তু টেলিগ্রামে এই পরিমাপ ২ জিবি পর্যন্ত। এখানে সিনেমার ফাইল পাঠানোর পর প্রেরক ও প্রাপক দুজন একসঙ্গে ওই সিনেমা ফাইলটি দেখতে পারেন। এমনকি ভিডিও দেখার পাশাপাশি কোনো কিছু বলার থাকলে সেটাও লিখে পাঠানো যায়।

সঠিক সময়ে ম্যাসেজ: সাধারণত অন্যান্য সোশাল মিডিয়ায় কাঙ্ক্ষিত ম্যাসেজটি আগে থেকে লিখে সময় নির্ধারণ করে রাখা যায় না। তবে টেলিগ্রামে সেই সুযোগ রয়েছে। এখানে আগে থেকে ম্যাসেজ লিখে সময় নির্ধারণ করে রাখলে ঠিক ওই সময়ে অটোমেটিক (স্বয়ংক্রিয়ভাবে) ম্যাসেজটি কাঙ্ক্ষিত মানুষের কাছে পৌঁছে যায়। এতে করে রাতে ঘুমানোর আগে ‘শুভ সকাল’ ম্যাসেজ লিখে প্রিয় মানুষটির নম্বর ও ভোরের সময় নির্ধারণ করে রাখলে ভোরে আপনি ঘুমানোর মধ্যেই প্রিয় মানুষটি আপনার শুভেচ্ছা বার্তা পাবে।

প্রতিটি সোশাল মিডিয়ার ভালো-মন্দ দুই দিক রয়েছে। সেদিক থেকে এই টেলিগ্রাম অন্য সব মিডিয়ার থেকে অতিরিক্ত কিছু ব্যবহার সুবিধা দিচ্ছে। এর ভালো দিক স্বাভাবিকভাবেই বেশি। এ কারণে টেলিগ্রাম ব্যবহারে জনপ্রিয়তা এখন ক্রমশ বাড়ছে। বিশেষ করে তরুণ-তরুণীদের কাছে এখন সোশাল মিডিয়া মানেই টেলিগ্রাম।

সূত্র: আনন্দবাজার

এসআর/ এমকে

RTV Drama
RTVPLUS