logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ৬ কার্তিক ১৪২৬

সার্ভিক্যাল ক্যানসারমুক্ত প্রথম দেশ হবে অস্ট্রেলিয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ০৩ অক্টোবর ২০১৮, ১১:৩৫ | আপডেট : ০৩ অক্টোবর ২০১৮, ১১:৪৩
ভ্যাকসিন ও স্ক্রিনিং রেট মেনে চললে সার্ভিক্যাল ক্যানসারমুক্ত বিশ্বের প্রথম দেশ হতে পারে অস্ট্রেলিয়া। গবেষকদের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে বিবিসি। নতুন পরিকল্পনা অনুযায়ী এ ধরনের ক্যানসারমুক্ত হতে দেশটির সময় লাগবে ২০ বছর।

বর্তমানে অস্ট্রেলিয়ায় প্রতি লাখে ৭ জন মানুষ সার্ভিক্যাল ক্যানসারে আক্রান্ত হয়। ২০২২ সালে এ সংখ্যাটি ৬-এ নামিয়ে আনা হবে এবং প্রতি লাখে ৪ জনে নামিয়ে আনা সম্ভব হবে ২০৩৫ সালে।

সার্ভিক্যাল ক্যানসার হয় মূলত হিউম্যান প্যাপিলোমা ভাইরাসের (এইচপিভি) মাধ্যমে। অস্ট্রেলিয়া ২০০৭ সালে মেয়েদের জন্য এই ভাইরাসের ভ্যাকসিন বা টিকা আবিষ্কার করে। পরবর্তীতে এটা ছেলেদের জন্যও আবিষ্কৃত হয়

কিন্তু ওই টিকার পরিবর্তে গবেষকরা নতুন আরেকটি পদ্ধতি আবিষ্কার করেছেন যার মাধ্যমে সার্ভিক্যাল ক্যানসার প্রতিরোধ সম্ভব হবে। নতুন এই পদ্ধতি সম্পর্কে জানিয়েছে ‘ক্যানসার কাউন্সিল নিউ সাউথ ওয়েলস’ নামের একটি দাতব্য প্রতিষ্ঠান। বুধবার ‘দ্য লেনসেট পাবলিক হেলথ জার্নালে’ এ তথ্য প্রকাশ করে তারা।

নতুন পদ্ধতির মাধ্যমে প্রতি পাঁচ বছরে ২০ শতাংশ সার্ভিক্যাল ক্যানসার কমানো যাবে। সে হিসেবে সম্পূর্ণভাবে এ ধরনের ক্যানসার দূর করতে সময় লাগবে ২০ বছর।

জানা গেছে, এইচপিভি ভাইরাস শারীরিক সম্পর্কের মাধ্যমে ছড়ায়। নারীরা এই ধরনের ক্যানসারে অনেক বেশি আক্রান্ত হয়। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) মতে, নারীরা সবচেয়ে বেশি যেসব ক্যানসারে আক্রান্ত হয় তার মধ্যে সার্ভিক্যাল ক্যানসারের অবস্থান চতুর্থ।

সার্ভিক্যাল ক্যানসার রোগে মৃত্যু হারও অনেক বেশি। বিশেষ করে উন্নয়নশীল এবং অনুন্নত দেশগুলোতে সার্ভিক্যাল ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে অনেক মানুষ মারা যায়। ডব্লিউএইচও- এর হিসাব বলছে, এই রোগে আক্রান্ত প্রতি ১০ জনের ৯ জনই মারা যায় উন্নয়নশীল ও অনুন্নত দেশগুলোতে।

আরও পরুন :

ডি/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়

আরও খবর