৬টি আসনে ভোটগ্রহণের জন্য প্রস্তুত ইভিএম

প্রকাশ | ২৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ০২:৪৮ | আপডেট: ২৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৫:১১

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহৃত হবে ছয়টি আসনে। নির্বাচন দুয়ারে এসে পড়ায় শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি সারছে কেন্দ্রগুলো। নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ে দৈবচয়নের মাধ্যমে বাছাই করা আসন ৬টি হলো- ঢাকা-৬ ও ১৩ আসন, চট্টগ্রাম-৯, রংপুর-৩, খুলনা-২ এবং সাতক্ষীরা-২।

জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে চট্টগ্রাম-৯ কোতোয়ালী-বাকলিয়া আসনে ভোট গ্রহণের লক্ষ্যে এক হাজার ৮শ’ ৪০টি সেট ইভিএম প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

নির্বাচন অফিসের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ভোটগ্রহণে কোনও ইভিএমে সমস্যা হলে তাৎক্ষণিকভাবে আরেকটি ইভিএম চালু করা হবে। চট্টগ্রাম জেলা নির্বাচনী অফিসার মো. মুনীর হোসাইন খান আরটিভি অনলাইনকে বলেন, ইভিএমএ সুন্দর ও সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন সম্পন্ন করার জন্য দুইদিন ব্যাপী প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। আমরা সেভাবেই প্রস্তুতি নিয়েছি।  

রংপুরের ছয়টি আসনের মধ্যে রংপুর-৩ একটি আসনে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট হতে যাচ্ছে। অনভিজ্ঞ ও নিরক্ষর বয়স্ক ভোটাররা যাতে সহজে এই পদ্ধতিতে ভোট দিতে পারে সেজন্য বেশি বেশি প্রচারের কথা বললেন নমুনা ভোট দিতে আসা কয়েকজন।

ইভিএমে প্রথমবার নমুনা ভোট প্রদানকারী একজন বলেন, সাদা বোতাম টিপ দিলে মার্কা আসবে আর সবুজ বোতাম টিপ দিলে ভোট হবে।

খুলনা-২ আসনের সব ক’টি কেন্দ্রেই নমুনা ভোটগ্রহণ করা হয়। কিভাবে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট দিতে হবে তা সংশ্লিষ্ট এলাকার ভোটাররা স্ব স্ব কেন্দ্রে গিয়ে দেখেছেন। নমুনা ভোট গ্রহণকারী একজন নির্বাচনী কর্মকর্তা আরটিভি অনলাইনকে বলেন, ইভিএম নিয়ে মানুষের মধ্য যে ভয় কাজ করছে তা দূর করার জন্যই আমরা নমুনা ভোট দেয়ার ব্যবস্থা করেছি। 

সাতক্ষীরা-২ আসনে পরীক্ষামূলকভাবে ভোট নেয়া হয়। এখানে একশ’ ৩৭টি কেন্দ্রে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোটারদের প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। সাতক্ষীরা জেলা রিটার্নিং অফিসার এসএম মোস্তফা কামাল জানান, ইভিএম পদ্বতিতে ভোটের ক্ষেত্রে ভোটারদের সচেতন করার জন্য ইতিমধ্যে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। সুষ্ঠু সুন্দর পরিবেশে সকলেই ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন বলেও জানান তিনি।

এবার নির্বাচনে ইভিএম পদ্বতিতে ভোট গ্রহণের জন্য ৪৮টি আসন বাছাই করা হয়েছিল। এই ৪৮টি আসন থেকে দৈবচয়নের মাধ্যমে এই ৬টি আসন বেছে নেয়া হয়েছে।

এর আগে ইসির যুগ্ম সচিব এসএম আসাদুজ্জামান স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘আগামী ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৬টি সংসদীয় আসনে সম্পূর্ণভাবে ইভিএমে ভোটগ্রহণ করা হবে। সিটি করপোরেশন এবং জেলা সদর সংশ্লিষ্ট ৪৮ আসনের মধ্যে থেকে দৈবচয়নের মাধ্যমে ওই ৬টি আসন নির্ধারণ করা হয়।

আরএস/জেএইচ