সরকার-ইসির মিথ্যা আশ্বাসে সব দল নির্বাচনে অংশ নেয় : রিজভী

প্রকাশ | ০৪ জানুয়ারি ২০১৯, ১৫:১৮

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট

সরকার আর নির্বাচন কমিশনের (ইসি) মিথ্যা আশ্বাসে সব দল নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করে। কিন্তু পুলিশ, ডিবি, বিজিবি, র‌্যাব, বিচার বিভাগ, সিভিল প্রশাসন, দুদক আর নির্বাচন কমিশনকে সম্পূর্ণ কাজে লাগিয়ে ইতিহাসের ঘৃণ্যতম এ নির্বাচন সংঘটিত করা হলো। বললেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

আজ শুক্রবার সকালে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে রিজভী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার ৩৬ বছর রাজনৈতিক জীবন পূর্ণ হলো গতকাল(বৃহস্পতিবার)। ১৯৮২ সালের ৩ জানুয়ারি তিনি বিএনপির প্রাথমিক সদস্য হিসেবে দলে যোগ দেন। এর দুই মাসের মধ্যে গণতন্ত্র হত্যা করে এইচ এম এরশাদ সামরিক শাসন জারি করেন। দীর্ঘ ৯ বছরের সংগ্রামে, সংকটে আপসহীন ধারায় জনগণের সাথে অঙ্গীকার রক্ষা করে তিনি গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে নিয়ে আসেন।

রিজভী বলেন, দেশী-বিদেশি চক্র জাতীয়তাবাদী নেত্রীর উত্থান সহ্য করতে পারেনি। দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব ও গণতন্ত্রকে যিনি আগলে রেখেছিলেন অতন্দ্র প্রহরীর মতো, তাকে অপদস্থ করার জন্য চক্রান্তকারীরা চক্রান্তের জাল বুনতে থাকে।

তিনি বলেন, ভোটারশূন্য নির্বাচনে বিদেশি মদদপুষ্ট অগণতান্ত্রিক ফ্যাসিবাদী শক্তি গণতন্ত্রকে দাফন করতে বেগম জিয়াকে মিথ্যা মামলায় কারাগারে আটকে রেখে জুলুমের পর জুলুম চালিয়ে যাচ্ছে। বিনা চিকিৎসা, অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ এবং কারাবিধিনুযায়ী নিকটজনদের সাক্ষাৎ করতে নানা ফন্দি ফিকির করে বিলম্ব করা হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, মূলত ৭ দিন পর পর আত্মীয়-স্বজনদের দেখা করার কথা। অথচ বেগম জিয়ার জন্য কারা কর্তৃপক্ষ ১৫ দিন পর পর সাক্ষাতের বিধান করে। এবারে ২০/২১ দিন অতিবাহিত হলেও আত্মীয়-স্বজনদের তার সাক্ষাৎ করতে দেয়া হয়নি। দলের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ ও ব্যক্তিগত চিকিৎসকবৃন্দ বিগত ৪ মাস ধরে বেগম জিয়ার সাথে দেখা করতে পারছেন না।

রিজভী অভিযোগ করে বলেন, স্মরণকালের সবচেয়ে জঘন্য মহাজালিয়াতির নির্বাচন হয়েছে বাংলাদেশে। সারাদেশে অধিকাংশ আসনের অনেক কেন্দ্রে আগের রাতে ব্যালট দিয়ে বাক্স ভর্তি করে রাখা হয়েছে। ফলে ভোটের দিন বহু কেন্দ্রে সকাল ১০/১১ টার মধ্যে ব্যালট পেপার শেষ হয়ে যায়। হাজার-হাজার লোক ভোট দিতে এসে ভোট দিতে পারেনি।

তিনি বলেন, এসব কিছু বন্ধ করতে ইসি শুধু যে কিছুই করেনি তা নয়, তারা সকল আদেশ-নিয়ম এভাবে জারি করেছে যেন এসবকিছু নির্বিঘ্নে নিখুঁতভাবে করা যেতে পারে।

এমসি/জেএইচ