logo
  • ঢাকা বুধবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৩ ফাল্গুন ১৪২৬

নগরবাসীকে আধুনিক ঢাকা উপহার দিতে চাই: ব্যারিস্টার তাপস (ভিডিও)

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ২২:০৭ | আপডেট : ২৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৯:২৭
ঢাকার উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের ভোটগ্রহণ হবে আগামী ৩০ জানুয়ারি। ঢাকা দক্ষিণ সিটি থেকে নির্বাচনে মেয়র পদে লড়তে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন ঢাকা-১০ আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।

নির্বাচন প্রসঙ্গে শুক্রবার (২৭ ডিসেম্বর) আরটিভিকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘ঢাকা সিটি করপোরেশনের মেয়র পদে নির্বাচন করার আমার কোনো ইচ্ছা ছিল না। আমি ঢাকা-১০ আসনের সাংসদ হিসেবে তিন মেয়াদে কাজ করতে গিয়ে অনুভব করেছি, উন্নয়নমূলক কাজ করতে ঢাকা সিটি করপোরেশন ও অন্যান্য সংস্থার ওপর বহুলাংশে নির্ভর করতে হয়। তাই জনগণের ইচ্ছা বা আমার পরিকল্পনা অনুযায়ী কাজ করতে গিয়ে বারবার হতাশ হয়েছি।’

‘আমাদের প্রাণপ্রিয় নেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা যেভাবে দেশটাকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত বাংলাদেশের যে লক্ষ্য তিনি দিয়েছেন- সেখানে রাজধানী ঢাকাকে উন্নত করতেই হবে, এর কোনো বিকল্প নেই।’

কিন্তু রাজধানী ঢাকার মানুষেরা এখনও ন্যূনতম নাগরিক সেবা পাচ্ছেন না জানিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘এই বিষয়টি আমাকে দারুণভাবে পীড়া দিচ্ছে। তাই আরও বৃহৎ পরিসরে কাজ করার প্রয়োজন থেকেই মেয়র পদে নির্বাচন করব। দলীয় মনোনয়ন যদি পাই এবং আল্লাহর রহমতে জনগণ যদি আমাকে নির্বাচিত করে, তাহলে আমার প্রধান কাজ হবে ২০৪১ সালের মধ্যে ঢাকাকে উন্নত বাংলাদেশের রাজধানী হিসেবে পরিস্ফুটিত করা।’

ঢাকার মানুষের মৌলিক সুবিধা নিশ্চিত করার পাশাপাশি নগর পরিকল্পনাবিদদের সমন্বয়ে ২০৪১ সালকে কেন্দ্র করে ৩০ বছরের দীর্ঘমেয়াদী একটি মহাপরিকল্পনা করার কথা জানান তিনি। এতে ঐতিহ্যবাহী ঢাকার নিজস্ব যে অপরূপ সৌন্দর্য রয়েছে, সেটাকে সংরক্ষণ করে সেগুলো প্রস্ফুটিত করার পরিকল্পনা থাকবে।

সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করলে অল্প সময়ের মধ্যেই পরিবর্তন আনা সম্ভব উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আজকে ডেঙ্গুতে কেন মানুষ মারা যাবে? মশার এমন উপদ্রব কেন হবে? এই জায়গাগুলো আগে নিশ্চিত করতে হবে। এর সঙ্গে সুন্দর পরিবেশ ও পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা নিশ্চিত করতে হবে। নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করলেই মানুষ খুশি হবে।’

এজে/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • রাজনীতি এর সর্বশেষ
  • রাজনীতি এর পাঠক প্রিয়