পদ্মায় পানি বাড়ায় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর সতর্কতা

প্রকাশ | ০১ অক্টোবর ২০১৯, ০৯:৪২

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট

ভারতে উত্তরপ্রদেশ ও বিহারে রেকর্ড বৃষ্টিতে বন্যা পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। ভারত বন্যার পানির চাপ কমাতে সোমবার ফারাক্কা বাঁধের সব কয়টি লকগেট খুলে দিয়েছে। এতে পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদ জেলার একাংশ ও বাংলাদেশে বন্যার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। গেট খুলে দেওয়ায় নদীর নিম্নগতিতে প্লাবনের আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।

চরম বিপদসীমার ওপর দিয়ে বইছে ভারতের গঙ্গা ও ফুলহর নদীর পানি। ইতোমধ্যে একাধিক জায়গায় নদীবাঁধ ভেঙে প্লাবিত হয়েছে বিস্তীর্ণ এলাকা। তার প্রভাব পড়েছে বাংলাদেশেও। ফারাক্কার গেট খুলে দেওয়ায় পদ্মা নদী সংলগ্ন রাজশাহী, কুষ্টিয়া, পাবনা, রাজবাড়ী জেলায় বন্যা পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে।

সেই আশঙ্কার কথা প্রকাশ করে সতর্কতা হিসেবে ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ শাহরিয়ার আলম।

সোমবার তিনি লিখেন, ‘পদ্মা নদীর পানি অক্টোবরের ৫ তারিখ পর্যন্ত বাড়তে পারে, তারপর কমা শুরু হতে পারে। ঢাকায় কথা বলে প্রথম দফায় কিছু ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে।’

‘একটু আগে ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা প্রতিমন্ত্রীর সাথে বিস্তারিত কথা হয়েছে। আমি রাজশাহীর জেলা প্রশাসককে নির্দেশনা দিয়েছি গোদাগাড়ী ও পবাসহ সকল চরাঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হলে (প্রয়োজন হলে) মানুষ সরিয়ে মুল ভুখণ্ডে কয়েকদিনের জন্য নিয়ে আসার জন্য। এরজন্য প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি রাখতে বলা হয়েছে। মন্ত্রণালয় থেকে দ্রুত এবং বাড়তি বরাদ্দ দেয়া হচ্ছে।’

‘স্থানীয় উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা এবং স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা সমন্বয়ের মাধ্যমে কাজগুলো করবেন।’

পি