logo
  • ঢাকা রবিবার, ২১ জুলাই ২০১৯, ৬ শ্রাবণ ১৪২৬

দলে দুই ধারা নিয়ে বিপাকে এরশাদের জাতীয় পার্টি

সিয়াম সারোয়ার জামিল, আরটিভি অনলাইন
|  ১৬ মে ২০১৯, ০৯:১৯ | আপডেট : ১৬ মে ২০১৯, ১০:৩২
হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ তার জীবদ্দশাতেই দলের দুটি ধারা নিয়ে বেশ বিপাকেই আছেন। একটি পক্ষে আছেন তাঁর ছোট ভাই জি এম কাদের। অন্যপক্ষে আছেন তার স্ত্রী রওশন এরশাদ। সম্প্রতি জিএম কাদেরকে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দেয়ায় দলে কোন্দল নতুন করে মাথাচাড়া দিয়েছে। এর ফল কী হবে- তা নিয়ে শঙ্কায় আছেন পার্টির নেতাকর্মীরা। 

জাতীয় পার্টির শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, জিএম কাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হলেও এরশাদের দেখানো পথেই এগিয়ে যাবে জাতীয় পার্টি। এতে পার্টি আরও মজবুত হবে। আবার দলের অনেকের ভিন্নমতও আছে। তাদের দাবি এরশাদের অবর্তমানে নতুন করে ভাঙন দেখা দিতে পারে দলটিকে। দলে বিদ্যমান দুটি ধারার মধ্যে রওশন এরশাদের ধারাটি সংগঠনের ভবিষ্যৎ চেয়ারম্যান ও মহাসচিব পদ দুটি দখলে নিতে চায়। জি এম কাদেরের গ্রুপটি বর্তমান অবস্থান ধরে রাখতে বদ্ধপরিকর।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দলের একজন প্রেসিডিয়াম সদস্য আরটিভি অনলাইনকে জানান, জিএম কাদেরকে হঠাৎ পার্টির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান করার পর পার্টির একাংশ এটাকে মেনে নিতে পারেনি। ফলে এ নিয়ে দলের ভেতরে বাইরে চলছে আলোচনা। ক্ষোভে ফুঁসছেন রওশনপন্থীরা। তারা চেষ্টা করছেন জিএম কাদেরকে সরিয়ে রওশন এরশাদকেই ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান করতে। এ জন্য এরশাদের সঙ্গে ওই অংশের নেতারা আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছেন। 

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, দলীয় গঠনতন্ত্রের ২০/১/ক ধারায় পার্টির চেয়ারম্যানকে একক ক্ষমতা দেয়া হয়েছে। সংগঠনের কাউকে পদ থেকে বাদ দেয়া বা বহিষ্কার করার ক্ষেত্রে এরশাদকে কারো ওপর নির্ভর করতে হয় না, দলীয় কাউন্সিলেও অনুমতি নিতে হয় না। ফলে কোনও সিদ্ধান্ত নিয়ে ক্ষোভে ফুসলেও এ নিয়ে কারো প্রতিবাদ করারও সুযোগ থাকে না। রওশনপন্থীরাও তাই নীরবতা পালন করছেন।  

এ বিষয়ে জাতীয় পার্টির মহাসচিব মশিউর রহমান রাঙা আরটিভি অনলাইনকে বলেন, পার্টি শক্তিশালী হওয়াটা নির্ভর করে আমরা কতটা ঐক্যবদ্ধ। সবাই ঐক্যবদ্ধ থাকলে যেকোনো পরিস্থিতিতে সামনে এগোনো সম্ভব। বারবার নেতৃত্ব বদল হবার কারণে দলও ক্ষতিগ্রস্ত হয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, এক শ্রেণির সুবিধাভোগী অভ্যন্তরীণ বিরোধ জিইয়ে রাখতে চায়। এতে তারা লাভবান হয়। 

তবে রংপুরের এই সংসদ সদস্য মনে করেন, জাতীয় পার্টি টিকে থাকবে পল্লীবন্ধু এরশাদের দেশের প্রতি অবদানের কারণে। ইসলামী মূল্যবোধ প্রতিষ্ঠার মধ্য দিয়ে দেশে যে অবদান তিনি রেখেছেন তা দেশবাসী কখনও ভুলে যাবে না বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

এ বিষয়ে পার্টির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জি এম কাদের আরটিভি অনলাইনকে বলেন, এ দেশে এরশাদই প্রথম শান্তির সঙ্গে উন্নয়নের বাণী শুনিয়েছেন। তিনি যে উন্নয়নের ধারার সূত্রপাত করে গেছেন দেশের মানুষ এখনো তা স্মরণ করে। এরশাদের আদর্শ ধারণ করে তাঁর দেয়া গঠনতন্ত্র অনুসারে সংগঠনের সবাই মিলে জাতীয় পার্টিকে এগিয়ে নেয়া সম্ভব বলেও দাবি করেন তিনি।

এসজে/এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়