• ঢাকা রবিবার, ১৯ মে ২০১৯, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

তারেক রহমানের সিদ্ধান্তেই বিএনপি সংসদে যাবে না: মওদুদ

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ১৯ এপ্রিল ২০১৯, ১৪:৪৯ | আপডেট : ১৯ এপ্রিল ২০১৯, ১৫:৪২
ছবি-সংগৃহীত
বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ জানিয়েছেন, বিএনপি একাদশ জাতীয় সংসদে যাবে না। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সঙ্গে কথা বলেই এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। 

তিনি বলেন, একাদশ জাতীয় নির্বাচনে বিএনপি থেকে নির্বাচিত ৬ সংসদ সদস্যের শপথ নেয়ার প্রশ্নই আসে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ।

আজ শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) দুপুরে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমাজউদ্দীন আহমদ ও কবি আবদুল হাই শিকদারের লেখা ‘খালেদা জিয়া : তৃতীয় বিশ্বের কণ্ঠস্বর’ শীর্ষক বইটির প্রকাশনা উৎসবে তিনি এসব কথা বলেন। শত নাগরিক কমিটি এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ বলেছেন, খালেদা জিয়ার মুক্তি না হওয়া পর্যন্ত সংসদে যাওয়া নিয়ে কোনও আলোচনা নয়।  নির্বাচিতদের শপথ নেয়ার তো প্রশ্নই আসে না। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের সম্মতিক্রমে আমরা স্থায়ী কমিটির সদস্যরা এ সিদ্ধান্ত নিয়েছি। সুতরাং এ সিদ্ধান্ত থেকে ফিরে আসা যাবে না। 

কারাবন্দি খালেদা জিয়ার মুক্তি সরকারের বাধায় হচ্ছে না- এমনটা অভিযোগ তিনি বলেন, মিথ্যা ও বানোয়াট মামলায় বিএনপি নেত্রী আজ কারারুদ্ধ। সরকারের ইচ্ছা থাকলে তিনি আরও আগেই মুক্তি পেতেন। তার সব মামলা জামিনযোগ্য হলেও আমরা তাকে মুক্ত করতে পারছি না। খালেদা জিয়ার মুক্তি মানে দেশে গণতন্ত্র ফিরে আসা। দ্ব্যর্থহীন কণ্ঠে বলতে চাই- তিনি যত দ্রুত ফিরে আসবেন, ততই আমাদের মঙ্গল। তার ফিরে আসা মানেই হলো- বাংলাদেশে গণতন্ত্র ফিরে আসা।

আওয়ামী লীগের সীমাহীন নির্যাতন বিএনপিকে আরও বেশি শক্তিশালী করেছে মন্তব্য করে বিএনপি এ নেতা আরও বলেন, আওয়ামী লীগের নির্যাতনের কারণে আগামী ১০০ বছর রাজনৈতিক দল হিসেবে বিএনপি টিকে থাকবে। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সীমাহীন অত্যাচার নির্যাতন বিএনপিকে আরও বেশি শক্তিশালী করেছে।

বইয়ের লেখক অধ্যাপক এমাজউদ্দীন আহমদসহ অনুষ্ঠানে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুবউদ্দিন খোকন, খায়রুল কবির খোকন, কবি আবদুল হাই শিকদার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. আনোয়ারউল্লাহ, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরউল্লাহ উপস্থিত ছিলেন।

এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়