পোশাক খাতে অস্থিরতা চলতে দেয়া হবে না: বাণিজ্যমন্ত্রী

প্রকাশ | ০৮ জানুয়ারি ২০১৯, ১৪:৫০ | আপডেট: ০৮ জানুয়ারি ২০১৯, ১৯:১৩

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট

নবনিযুক্ত বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, পোশাক খাতের অস্থিরতা নিরসনে জরুরি বৈঠক ডাকা হয়েছে। এ অস্থিরতা চলতে দেয়া হবে না।

মঙ্গলবার দুপুরে বাণিজ্যমেলা প্রাঙ্গণে উপস্থিত সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

ন্যূনতম মজুরি বাস্তবায়নসহ বিভিন্ন দাবিতে টানা তিনদিন ঢাকায় পোশাক শ্রমিকদের বিক্ষোভের মুখে গার্মেন্ট মালিক ও শ্রমিক প্রতিনিধিদের জরুরি বৈঠকে ডেকেছে সরকার।

অপরদিকে আজ শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, বিকেল ৪টায় শ্রম ভবনের সম্মেলন কক্ষে শ্রম প্রতিমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ানের সভাপতিত্বে এই বৈঠক হবে।

এবার প্রথমবারের মতো অনলাইনে কেনা যাবে বাণিজ্য মেলার টিকিট। এছাড়া ২০২১ সালের মধ্যে পূর্বাচলে বাণিজ্য মেলা শুরু হবে বলে জানা গেছে। টিকিটের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে প্রাপ্ত বয়স্ক ৩০ টাকা, অপ্রাপ্ত বয়স্ক ২০ টাকা এবং অনলাইনে হলে ২ টাকা চার্জ প্রযোজ্য।

ফলে বাণিজ্য মেলায় আগ্রহীরা যে কোনও স্থান থেকে ওয়েব ও মোবাইল অ্যাপসের মাধ্যমে মোবাইল ব্যাংকিং, ইন্টারনেট, ক্রেডিট কার্ডের মাধ্য্যমে মেলার টিকিট কিনতে পারবেন। ওয়েব ঠিকানা: www.e-ditf.com। এছাড়া মোবাইল অ্যাপস হলো: E-DITF।

আগামীকাল বুধবার (৯ জানুয়ারি) ২৪তম আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা শুরু হবে। মাসব্যাপী এই মেলার উদ্বোধন করবেন রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ। মেলা চলবে ৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত মেলা খোলা থাকবে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুারোর (ইপিবি) যৌথ আয়োজনে এবারও রাজধানীর শেরে বাংলানগরে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের পশ্চিম পাশে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সাধারণত প্রতিবছর ১ জানুয়ারি মেলা শুরু হয়ে থাকে। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের কারণে এবার বাণিজ্যমেলা এক সপ্তাহ দেরিতে শুরু হচ্ছে।

ইপিবির মহাপরিচালক অভিজিৎ চৌধুরী আরটিভি অনলাইনকে বলেন, এবারের বাণিজ্য মেলাকে আরও দৃষ্টিনন্দন করতে প্রধান গেট মেট্রোরেলের আদলে তৈরি করা হচ্ছে। পাশাপাশি সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডের থিম থাকবে মেলা জুড়ে। এরই মধ্যে মেলার প্রস্তুতি শেষ হয়েছে। এখন শুধু উদ্বোধনের অপেক্ষা।

ইপিবি সূত্র জানায়, মেলায় সবমিলিয়ে ৫৫০টি স্টল থাকবে। এর মধ্যে রয়েছে- সংরক্ষিত মহিলা স্টল ২০টি, প্রিমিয়ার প্যাভিলিয়ন ৬০টি, প্রিমিয়ার মিনি প্যাভিলিয়ন ৩৮টি, সাধারণ প্যাভিলিয়ন ১৮, সাধারণ মিনি প্যাভিলিয়ন ২৯টি, প্রিমিয়ার স্টল ৬৭টি, রেস্টুরেন্ট তিনটি, সংরক্ষিত প্যাভিলিয়ন ৯টি, সংরক্ষিত মিনি প্যাভিলিয়ন ৬টি, বিদেশি প্যাভিলিয়ন ২৬টি, সংরক্ষিত মিনি প্যাভিলিয়ন ৯টি, বিদেশি প্রিমিয়ার স্টল ১৩টি, সাধারণ স্টল ২০১টি ও ফুড স্টল ২২টি।

আরো পড়ুন:

এসআর/পি