logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট ২০১৯, ৭ ভাদ্র ১৪২৬

নৌকার প্রার্থীর কাছে কাবু বিএনপির সাবু

এম,মনিরুজ্জামান, রাজবাড়ী
|  ২৫ ডিসেম্বর ২০১৮, ১১:১১ | আপডেট : ২৫ ডিসেম্বর ২০১৮, ১১:২৩
আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী জিল্লুর হাকিমের প্রচারণার কাছে কাবু হয়ে পড়েছেন ধানের শীষের প্রার্থী সাবু। প্রচারণার শুরুর দিন থেকেই রাজবাড়ী-২ আসনে মাঠে সরব রয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বর্তমান সংসদ সদস্য মো. জিল্লুল হাকিম। তবে বিএনপির প্রার্থী নাসিরুল হক সাবুকে মাঠে তেমন দেখা যাচ্ছে না।

bestelectronics
এ আসনে পাঁচজন প্রার্থী থাকলেও নৌকা ও ধানের শীষের মধ্যেই মূল লড়াই হবে। জাতীয় পার্টিসহ অন্য তিন প্রার্থীর কোনও অবস্থান নেই মাঠে।

নৌকা ও ধানের শীষের প্রার্থীরা উন্নয়নের আশ্বাস নিয়ে তিন উপজেলার ভোটারদের কাছে যাচ্ছেন। শহরের রাস্তাঘাট থেকে শুরু করে গ্রামেও ছেয়ে গেছে নৌকার ব্যানার ও পোস্টারে। চারদিকে মাইকে চলছে নৌকা প্রতীকের মো. জিল্লুল হাকিমের প্রচার-প্রচারণা। প্রায় প্রতিদিনই বিভিন্ন হাট-বাজারে নির্বাচনী সভা-সমাবেশ করছেন তিনি। উৎসবের আমেজে নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছেন নৌকা প্রতীকের নেতাকর্মীরা।

পাংশা উপজেলার ১০টি, বালিয়াকান্দি উপজেলার সাতটি ও কালুখালী উপজেলার সাতটি ইউনিয়ন নিয়ে রাজবাড়ী-২ সংসদীয় আসন গঠিত।

জিল্লুল হাকিম চারবার সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছেন। ১৯৯৬ সালে প্রথম নির্বাচনে তিনি জাতীয় পার্টির প্রার্থীকে পরাজিত করে সংসদ সদস্য হন। পরের বার বিএনপির প্রার্থী নাসিরুল হক সাবুর কাছে হেরে যান জিল্লুল হাকিম।

স্বাধীনতার পর এ আসনে আওয়ামী লীগ চারবার, বিএনপি দুইবার, জাসদ একবার, জামায়াত একবার ও জাতীয় পার্টির প্রার্থী দুইবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।

রাজবাড়ী-২ (পাংশা, কালুখালি, বালিয়াকান্দি) আসনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী সাবেক এমপি মুক্তিযোদ্ধা নাসিরুল হক সাবু ও আওয়ামী লীগের বর্তমান এমপি এবার নিয়ে চারবার ভোটযুদ্ধে সরাসরি মুখোমুখি হয়েছেন। তবে বিএনপির প্রার্থী নাসিরুল হক সাবু প্রচারণায় এবার পিছিয়ে রয়েছেন।

নাসিরুল হক অভিযোগ করে বলেছেন, তাকে মাঠে নামতে দেয়া হচ্ছে না। পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা হয়েছে। গায়েবি মামলা দিয়ে তার শতাধিক নেতাকর্মীকে জেলে পাঠানো হয়েছে।

অভিযোগ অস্বীকার করে এ আসনের তিনবারের এমপি নৌকার প্রার্থী মো. জিল্লুল হাকিম বলেন, এটা ডাহা মিথ্যা কথা। আসলে বিএনপি রাজবাড়ী-২ আসনে একেবারেই জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। বিএনপির সময়ে এখানের কোনও উন্নয়ন হয়নি। একাধিক হত্যাকাণ্ড সংগঠিত হয়েছে। এজন্য জনগণ ধানের শীষের প্রার্থী থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে।

ভোটাররা জানান, আসন্ন নির্বাচনের এলাকায় শান্তি প্রতিষ্ঠা ও উন্নয়ন করতে পারবে এমন সৎ ও যোগ্য প্রার্থীকে দেখে ভোট দেবেন তারা।

এবারের নির্বাচনে রাজবাড়ী-২ আসনের মোট ভোটার সংখ্যা চার লাখ ৬২ হাজার ৪৭৩ জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার রয়েছেন দুই লাখ ৩৪ হাজার ৫৪৪ জন এবং নারী ভোটার রয়েছেন দুই লাখ ২৭ হাজার ৯২৯ জন।

এ আসনের পাংশা ও বালিয়াকান্দি উপজেলায় হিন্দু ভোটার তুলনামূলকভাবে অনেক বেশি। বালিয়াকান্দি উপজেলার জংগল ইউনিয়নের ৯৫ ভাগ ভোটারই হিন্দু। এই হিন্দু ভোটাররা বরাবরই এ আসনে বিজয়ের সমীকরণে ফ্যাক্টর হয়ে দাঁড়ায়। এবারও তার ব্যতিক্রম হবে না।

জেবি

bestelectronics bestelectronics
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়