DMCA.com Protection Status
  • ঢাকা বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০১৯, ১১ বৈশাখ ১৪২৬

যেখানে বাজে না ভোটের দামামা

অমিতাভ অপু, স্টাফ রিপোর্টার
|  ১২ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৩:০৩ | আপডেট : ১২ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৩:১১
ঢাকার দোহার উপজেলার মূল ভূখণ্ড থেকে বিচ্ছিন্ন চরাঞ্চল নারিশা জোয়ার ও কৃষ্ণদেবপুর। চরের প্রতিটি মানুষকে ঘিরে রয়েছে এক অদম্য জীবন সংগ্রামের গল্প। রয়েছে বেঁচে থাকার অনিবার্য তাগিদ। বছর ঘুরে ভোট এলেও যেখানে বাজেনা ভোটের দামামা। চারিদিকে থৈ থৈ পানি, নদীর মোহনায় জেগে উঠা ছোট্ট এক টুকরো ভূখণ্ড। সেখানেই মাথা গোঁজার চেষ্টা। জীবনধারণের অপরিহার্য উপাদান বলতে কিছুই নেই। তবু বেঁচে থাকার প্রয়োজনে নিরন্তর যুদ্ধ। ভোট আসে সরকারও আসে কিন্তু এখানে বাজেনা কোন দামামা। দোহার উপজেলা মূল ভূখণ্ড থেকে বিচ্ছিন্ন চরাঞ্চল নারিশা জোয়ারের বাসিন্দা ৭০ বছর বয়সী রতন মৃধার কথা থেকে প্রকাশ পায় ভোট নিয়ে তাদের ভাবনার কথা।

রতন মৃধা জানান, বয়স্ক ভাতা দেয়, যাদের টাকা পয়সা ব্যাংকে আছে তাদের। ভোটের আগে ভাতা দেয়, ভোটের শেষে আর দেয় না।

শুধু রতন মৃধা নয়, নির্বাচন ঘিরে প্রত্যাশা ও প্রাপ্তির মিল না থাকায় চরের বাসিন্দাদের ভোট নিয়ে নেই কোনও আগ্রহ বা চাওয়া পাওয়া। 

চরের বাসিন্দারা জানান, এখানে স্কুল দেয়ার কথা ছিল তা দেয়া হয় নাই। বন্যা আসলে কোনও নিরাপত্তা নাই, বন্যা আসলে ভাসতে হয়। ভোটের আগে সবাই বলে এটা দেব ঐটা দেব কিন্তু ভোটের পরে তাদের খবরই থাকে না। 

চরের বাসিন্দা মোহাম্মদ জসিম বলেন, বর্ষা কালে অনেক কষ্ট হয়। ঘরের ভেতরেও পানি উঠে যায়, তখন আমাদের নৌকায় থাকতে হয়।

শিক্ষার আলো থেকে বঞ্চিত চরের শিশুরা। নির্বাচন এলে স্কুল করার প্রতিশ্রুতি নিয়ে এগিয়ে এলেও নির্বাচন শেষ হলে বাস্তবে তা আলোর মুখ দেখে না। যে বয়সে বই খাতা-কলম নিয়ে পড়া-লেখার পাশাপাশি হৈ-হুল্লোড় আর আনন্দে মাতোয়ারা থাকার কথা শিশুদের। কিন্তু সেই বয়সে কাঁধে ওঠে সংসারের বোঝা। 

এক শিক্ষার্থী বলেন, আমাদের নদী পার হয়ে স্কুলে যেতে অনেক কষ্ট হয়। আমাকে আব্বা ভর্তি করে নাই, অনেক টাকা লাগে স্কুলে ভর্তি হলে। 

অপর একজন বলেন, নদী ভাঙায় আর্থিক অভাবের কারণে আমরা স্কুলে যাতেতে পারি না। পড়াশোনা করতে পারি না।

আসছে একাদশ জাতীয় নির্বাচন, এবার অন্তত নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা মুখ ফিরে নিবেন না এ অঞ্চলের মানুষ গুলো থেকে। শিক্ষার আলো জ্বলবে প্রতিটি ঘরে, অবকাঠামোগত উন্নয়নের পাশাপাশি শিশুরা পাবে আলোকিত এক উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ এমনটাই প্রত্যাশা চরাঞ্চলের সবার।

জেএম/এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়