Mir cement
logo
  • ঢাকা শনিবার, ২৫ জুন ২০২২, ১১ আষাঢ় ১৪২৯

আর ছাড় নয়, এবার প্রতিরোধ করব : গয়েশ্বর

সরকারকে হুঁশিয়ারি করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, ‘মিটিং-মিছিল হরতাল করার মৌলিক অধিকার আমাদের আছে। জীবন রক্ষার অধিকার আমাদের আছে। যারা আমাদের ওপর হামলা করবে তাদের বিরুদ্ধে পাল্টা হামলা, পাল্টা আঘাত করে প্রতিরোধ করব। কাউকে ছাড় দেওয়ার সময় নেই।’

বৃহস্পতিবার (১২ মে) ঢাকা মহানগর বিএনপির (উত্তর দক্ষিণ) উদ্যোগে জাতীয় প্রেসক্লাবের সম্মুখে বিক্ষোভ সমাবেশে গয়েশ্বর এসব কথা বলেন।

দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে গয়েশ্বর বলেন, যারা রাজপথের আন্দোলনে আছেন, তারা স্লোগান বক্তব্য এবং টেলিভিশনে ছবি তোলা বন্ধ করেন। সরকার পতনে তাদের সকল অনিয়মের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে সবকিছু মোকাবিলা করতে হবে। এখন স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনের সময়।

বিএনপি ও বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের ওপর আওয়ামী সন্ত্রাসী হামলার সমালোচনা করে বিএনপির এই নেতা বলেন, এ হামলা পরিকল্পিত। আমরা শুধু মার খাব সেই দিন শেষ। জনগণ তাদের বাংলাদেশের অপেক্ষায়। এই সরকার ও সংসদ রেখে কোনো নির্বাচন এদেশে হবে না। আমরা যদি নির্বাচনে না যাই, তাহলে কার সঙ্গে খেলবেন?

বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য বলেন, শ্রীলঙ্কা সরকারের অবস্থা দেখেও যদি বর্তমান অনির্বাচিত সরকার শিক্ষা না নেয়, তাহলে বুঝতে হবে তাদের পরিণতিও ভয়াবহ হতে পারে। আমরা তাদের পরিণতি এরকম হোক, তা চাই না। আমরা চাই তারা ভালোভাবে প্রস্থান করুক। পদত্যাগ করুন, নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন হবে।

সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী তাদের কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠকে বলেছেন রাজনৈতিক দলগুলোর সভা-সমাবেশে বাধা দেওয়া হবে না। ঠিক তার পরের দিনই বিএনপির সিনিয়র নেতা ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনের বাসভবনে হামলা চালানো হয়। তার মানে হচ্ছে সবাইকে বুঝতে হবে শেখ হাসিনা যা বলেন, করেন তার উল্টো। তিনি যা করেন তা কখনোই বলেন না; যা বলেন তা করেন না।

গয়েশ্বর আরও বলেন, যারা এ সরকারের নির্বাচনি ফাঁদে পা দেবে, তাদেরকে ঘেরাও করতে হবে। সব সময় নজরে রাখতে হবে, কেউ এই সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না। অনির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হেলিকপ্টারে চলার সময় পাবেন কি না, সেটা তাকে বিবেচনা করতে দিতে হবে।

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS