ফেবার চাই না, সংসদ নেতা বললে পদত্যাগ করব: হারুনুর রশীদ

প্রকাশ | ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৭:৩৮ | আপডেট: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৮:৩৯

আরটিভি নিউজ
ছবি সংগৃহীত

বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্য হারুনুর রশীদ নিজ নির্বাচনী এলাকায় ভূমিদস্যুদের করা মামলায় নাজেহাল।  

আমি যে এলাকার এমপি, আমি আইনশৃঙ্খলা কমিটির উপদেষ্টা, সেখানে আমি প্রতিকার পাবো না? আমাকে কেন হয়রানি করা হবে। একটি মামলা ১৮ মাস ধরে ঝুলিয়ে রেখেছে? কেন? যে তদন্ত কর্মকর্তা মামলাটি ঝুলিয়ে রেখেছে তাকে জবাবদিহিতার আওতায় আনার দাবি জানাচ্ছি। বললেন হারুনুর রশীদ। 

আজ বুধবার (৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়ার সভাপতিত্বে সংসদ অধিবেশনে কার্যপ্রণালী বিধির ২৭৪ এর ব্যক্তিগত কৈফিয়ত চেয়ে বক্তব্য রাখেন বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্য হারুনুর রশীদ। এসময় সংসদ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংসদে উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন:  শিগগিরই শ্রমবাজারে সুদিন আসবে: প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী

গাড়ির শুল্ক নিয়ে দায়েরকৃত মামলার তিনি বলেন, আমাকে ৫ বছরের সাজা দেয়া হয়েছে। সঙ্গে ৫০ লাখ টাকা জরিমানা। আপিল বিভাগে আপিল করার পর সেটি স্থগিত ছিল, আবার কে যেন রিট পিটিশন করেছে। কেন আমাকে এভাবে বিব্রত করা হচ্ছে। মিডিয়ায় বলছে, এই মাসেই সংসদ সদস্য পদ চলে যাবে। আমাকে কোর্ট থেকে কিছু করতে হবে না।

বিএনপি দলীয় এই সংসদ সদস্য বলেন, আমি পদত্যাগ করে চলে যাব। আমাকে ফেবার করতে হবে না।

হারুনুর রশীদ বলেন,  আমি ফেবার চাই না। অবিলম্বে তদন্ত রিপোর্ট চাই। আমি অভিযুক্ত হলে অভিযোগ দিয়ে তদন্ত রিপোর্ট দেন, আদালতে বিচার হোক। কিন্তু কেন ১৮ মাস ফেলে রাখলেন?

তিনি সংসদ নেতার উদ্দেশে বলেন,  আপনি এমপিদের সুযোগ বাতিল করে দেন। আমি কেন বিব্রতকর অবস্থার মধ্যে থাকব। কেন আমাকে মিডিয়াতে উত্তর দিতে হবে, এমপিশিপ আগামী মাসেই চলে যাবে। সংসদ নেতা আপনি বলে দেন, কোর্ট থেকে বলা লাগবে না, আমি কালকেই সংসদ থেকে পদত্যাগ করে চলে যাব। আমি রিজাইন দেবো। পরিষ্কারভাবেই বলতে চাই।

আরও পড়ুন:  নির্বাচনে বিএনপি অংশ নিচ্ছে, এটি শুভ সংবাদ: কাদের

এম