logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

ইন্টারনেটে বিদ্বেষ, ট্রল ও গুজবের বিরুদ্ধে রাজধানীতে পিস সামিট

আরটিভি অনলাইন ডেস্ক
|  ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ১৭:৪৯
ইন্টারনেটে বিদ্বেষ, ট্রল ও গুজবের বিরুদ্ধে রাজধানীতে পিস সামিট
ইন্টারনেটে বিদ্বেষ, ট্রল ও গুজবের বিরুদ্ধে পিস সামিট অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারীরা
গত ১৬ নভেম্বর শনিবার আন্তর্জাতিক সহনশীলতার দিবসকে কেন্দ্র করে প্রেনিউর ল্যাব ট্রাস্ট এবং ইএমকে সেন্টার এর আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল ‘পিস সামিট ৫’ কার্যক্রম। আয়োজনটির মিডিয়া পার্টনার হিসেবে আছে জনপ্রিয় মিডিয়া প্রতিষ্ঠান আরটিভি।

পিস সামিট একটি উন্মুক্ত প্ল্যাটফর্ম। এর লক্ষ্য বাংলাদেশের সমস্যা এবং অভিযোগ নিয়ে আলোচনার জন্য দেশের উন্নয়ন পেশাদার, নীতিনির্ধারক, গবেষক, আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলো এবং তরুণদের একত্রে এক সাথে কাজ করতে প্ল্যাটফরম করে দেয়া।

অনুষ্ঠানে অতিথি ও বক্তব্য রাখেন আমেরিকায় নিয়োজিত সাবেক বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূত এম হুমায়ন কবির; ইএমকে সেন্টারের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক আসিফ উদ্দিন আহমেদ, ইউএসএআইড ‘র (USAID) অবিরোধ প্রজেক্ট রিসার্চ ডাইরেক্টর ডা. কারনা কোহেন; ক্যাপাসিটি ডেভেলপমেন্ট স্পেশালিস্ট অব এটুআই, আইসিটি ডিভিশন এর মানিক মাহমুদ এবং ইউএন ওমেন (UN Women) বাংলাদেশ এর সৈয়দা সামারা মুরতাদা প্রমুখ।

বক্তারা জানান, দেশের ৯ কোটির বেশির মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা কোনো ধরনের ডিজিটাল লিটিরেসি ছাড়াই সংযুক্ত হয়ে গেছেন ইন্টারনেটের মহাসমুদ্রে। সাইবার স্পেস বিভিন্ন চক্রান্ত ও প্রোপাগান্ডা ছড়ানোর এখন প্রধান চ্যানেল হয়ে গিয়েছে। স্কুল শিক্ষার্থী ও তরুণরা আছেন মূল ঝুঁকিতে। একজন মানুষ দৈনিক প্রায় সাড়ে তিন ঘণ্টা মোবাইল ফোনে ব্যয় করেন। নেতিবাচক কন্টেন্ট মানসিক স্বাস্থ্যে ব্যাপকভাবে ক্ষতি করছে।

এরপর ‘ফেক নিউজ প্রোপাগান্ডা অ্যান্ড আইডেনটিফিকেশন’ সেশন পরিচালনা করেন ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশন সংবাদ উপস্থাপিকা আয়েশা মাহমুদ।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের শিষ্টাচারের উপর বক্তব্য রাখেন ইউএনডিপি’র প্রকল্প কর্মকর্তা সিদ্ধার্থ গোস্বামী। বিউটি ইন ডাইভারসিটি সেশনে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আইন বিভাগের প্রভাষক প্রিয়াঙ্কা বোস, লিপিং বাউন্ডারির প্রতিষ্ঠাতা শাগুফে হোসাইন, অহনিশ ফিল্মস এর সিইও হাসান আল বান্নাহ এবং সাইমুম রেজা তালুকদারসহ প্রমুখ ব্যক্তিরা। সমাপনি অধিবেশনে বক্তব্য রাখেন প্রেনিউর ল্যাবের প্রতিষ্ঠাতা আরিফ নিজামী। কন্টেন্ট তৈরি নিয়ে সেশন নেন ইউএনডিপির হেড অব কমিউনিকেশন আব্দুল কাইউয়ম, ফটোগ্রাফার প্রীত রেজা, নগদের মার্কেটিং হেড মন্সুরুল আজিজ।

পিস সামিট এর শেষ পর্বে ১৯৫টি মোবাইল মুভি ও ফটোর মাঝে বেছে নেয়া হয় “মোবাইল ফিল্ম এবং ফটোগ্রাফি চ্যালেঞ্জ”এর সেরা ৩টি কন্টেন্ট। শীর্ষ ৩ বিজয়ী মোট ৩০ হাজার টাকা মূল্যের নগদ পুরস্কার জিতে নেন। তরুণ অংশগ্রহণকারীরা প্রতিযোগিতায় সহনশীলতা, বৈচিত্র্য এবং শান্তির বিষয়বস্তুতে ছবি বা মোবাইল ভিডিও তৈরি করে এতে অংশ নেয়। এই প্রতিযোগিতার মূল উদ্দেশ্য হলো তরুণ প্রজন্মের মাঝে সহনশীলতা, বৈচিত্র্য ও শান্তি বিষয়গুলো জাগিয়ে তোলা।

পিস সামিট ৫ এর মূল লক্ষ্য হলো তরুণ প্রজন্মদের নিয়ে। এখানে সহিংস উগ্রবাদ, বৈচিত্র্য, মানসিক সুস্থতা, অনলাইন সুরক্ষা এবং গুজবের বিরুদ্ধে লড়াইসহ সামাজিক সমস্যাগুলোকে নিয়ে আলোচনা করা হয়। এসব গুরুত্ব পূর্ণ বিষয়গুলো নিয়ে পিস সামিটে আলোচনা করেন দেশ-বিদেশের বিশেষজ্ঞরা।

বিগত পিস সামিটগুলোতে আলোচ্য বিষয়গুলো ছিল সহিংস উগ্রবাদ এবং রোহিঙ্গা শরণার্থী সংকট প্রতিরোধ ও প্রতিরোধ, কীভাবে দেশের সহিংসতা রোধ করা যায় এবং সে সম্পর্কে সচেতনতা বাড়ানো, নির্বাচন ২০১৮ এর প্রভাব এবং এর মধ্যে মিডিয়া কী ভূমিকা পালন করে। এসব গুরুত্ব পূর্ণ বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করে দেশ-বিদেশের বিশেষ কিছু সম্মানিত ব্যক্তি যাদের মাঝে ইরাইন এইচ গায়ত্রী - ন্যাশনাল অ্যাকশন প্ল্যান কনসালট্যান্ট, ইউএন উইমেন ইন্দোনেশিয়া, ড. আতিউর রহমান - সাবেক গভর্নর, বাংলাদেশ ব্যাংক, টমাস কোরথ স্যামুয়েল - দক্ষিণ পূর্ব এশিয়া গবেষণা ও প্রকাশনা পরিচালক, নাদিয়া শাহ - গণতন্ত্র কর্মকর্তা, ইউএসএআইডি বাংলাদেশ, আজাদ রহমান - প্রোগ্রাম প্রধান, সামাজিক পরিবর্তন অ্যাডভোকেসি, ব্র্যাক, এমকে আরিফ - সাবেক পরিচালক, ইএমকে সেন্টার প্রমুখ। সম্মেলনে অর্থনীতিবিদ, সম্পাদক, সাংবাদিক, শিক্ষার্থী, তরুণ পেশাজীবী, একাডেমিকস এবং শিল্প নেতৃবৃন্দ বাংলাদেশের অর্থনীতি এবং গণমাধ্যমের এগিয়ে যাওয়ার পথ নিয়ে আলোচনা করেছেন।

সি/

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • তথ্যপ্রযুক্তি এর সর্বশেষ
  • তথ্যপ্রযুক্তি এর পাঠক প্রিয়