logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার নিয়ে সংসদ সদস্য ইসরাফিল আলমের ক্ষোভ

মোস্তফা ইমরান রাজু, মালয়েশিয়া প্রতিনিধি
|  ০৭ নভেম্বর ২০১৯, ১৬:৩১
বাংলাদেশ, মালয়েশিয়া
সংগৃহীত
নওগাঁ-৬ আসনের সংসদ সদস্য ইসরাফিল আলম মালয়েশিয়ার শ্রমবাজারে আবারও সিন্ডিকেট হতে যাচ্ছে উল্লেখ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

গত ৫ নভেম্বর মালয়েশিয়া সফর করা এই সাংসদ আগের ও এখনকার পরিস্থিতি এবং সাধারণ প্রবাসীদের সঙ্গে কথা বলে অর্জিত বাস্তব অভিজ্ঞতা ফেসবুকে তুলে ধরেছেন।

তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আগের বিভিন্ন সিন্ডিকেটের সঙ্গে জড়িতদেরকে শাস্তির আওতায় আনার দাবি জানিয়েছেন। এছাড়া মালয়েশিয়ায় অবৈধ লক্ষাধিক শ্রমিকের বৈধকরণ, রিহেয়ারিংয়ে বৈধতার জন্য অর্থ দিয়েও ভিসা না পাওয়া শ্রমিকদের জন্য আইনি পদক্ষেপ এবং বিনা অপরাধে কারাগারে আটক শ্রমিকদের সমস্যার সমাধান করে দেশ থেকে শ্রমিক আনার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

ইসরাফিল আলম নিজের ফেসবুকে দেয়া এক পোস্টে লেখেন, লোভী, নীতিহীন, দুর্নীতিবাজদের সিন্ডিকেট খতম করে প্রবাসী শ্রমিক ভাই ও বোনদের অধিকার প্রতিষ্ঠা করো। দেশ ও জাতির স্বার্থের বিরুদ্ধে ব্যক্তিস্বার্থে অন্ধ হয়ে মানুষ কিভাবে নীতিহীন অবস্থায় দাঁড়িয়ে হাসে, তা আজ দেখলাম মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরে সারাদিন এবং মধ্যরাত পর্যন্ত।

তিনি লেখেন, এখানকার বন্ধ শ্রমবাজার খোলার নামে যে সর্বনাশের খেলা আবার শুরু হয়েছে, তা বন্ধ করতে প্রধানমন্ত্রীর সরাসরি নজরদারি ও হস্তক্ষেপ কামনা করছি। যদি মা সন্তানের হত্যাকারী এবং রক্ষক ভক্ষক হয়, তবে প্রতিকার দেয়ার ও পাওয়ার কিছুই বাকি থাকে না। যে বিস্ময়কর ও অভাবনীয় ঘটনার সাক্ষী হয়ে থাকলাম, ভবিষ্যতে হয়তো তা পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে কোনও প্রবন্ধে বা বইয়ে লেখা হবে।

নওগাঁ-৬ আসনের সংসদ সদস্য লেখেন, হে পাক পরওয়ারদেগার, তুমি সবই দেখছো এবং জানো। দেশের গরিব ও মেহনতি মানুষের স্বার্থের বিরুদ্ধে, যারা অন্ধ আর বিবেকহীন হয়ে অপতৎপরতা চালাচ্ছে, তাদের হাত থেকে বাংলাদেশ এবং বাঙালি জাতিকে তুমি রক্ষা করো।

আরেকটি পোস্টে তিনি লেখেন, মালয়েশিয়ার সেই দুর্নীতিবাজ সিন্ডিকেটের প্রেতাত্মারা আবার ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। ওদেরকে প্রতিরোধ করার জন্য সকল দেশ প্রেমিক এবং প্রবাসী ভাই ও বোনেরা সোচ্চার হোন।

সংগৃহীত

কে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • প্রবাস এর সর্বশেষ
  • প্রবাস এর পাঠক প্রিয়
---SELECT id,hl1,hl2,hl3,rpt,short_hl2,cat_id,parent_cat_id,prefix_keyword,sum,dtl,hl_color,tmp_photo,video_dis,alt_tag,IFNULL(hierarchy, 99) AS hierarchy,entry_time FROM news AS news LEFT JOIN mn_hierarchy AS mnh ON mnh.news_id = news.id AND mnh.mid = 9 WHERE cat_id LIKE "%#9#%" AND publish = 1 GROUP BY id ORDER BY hierarchy ASC, entry_time DESC LIMIT 2
---SELECT id,hl1,hl2,hl3,rpt,short_hl2,cat_id,parent_cat_id,prefix_keyword,sum,dtl,hl_color,tmp_photo,video_dis,alt_tag,IFNULL(hierarchy, 99) AS hierarchy,entry_time FROM news AS news LEFT JOIN mn_hierarchy AS mnh ON mnh.news_id = news.id AND mnh.mid = 8 WHERE cat_id LIKE "%#8#%" AND publish = 1 GROUP BY id ORDER BY hierarchy ASC, entry_time DESC LIMIT 2
---SELECT id,hl1,hl2,hl3,rpt,short_hl2,cat_id,parent_cat_id,prefix_keyword,sum,dtl,hl_color,tmp_photo,video_dis,alt_tag,IFNULL(hierarchy, 99) AS hierarchy,entry_time FROM news AS news LEFT JOIN mn_hierarchy AS mnh ON mnh.news_id = news.id AND mnh.mid = 4 WHERE cat_id LIKE "%#4#%" AND publish = 1 GROUP BY id ORDER BY hierarchy ASC, entry_time DESC LIMIT 2