logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬

উৎসবমুখর পরিবেশে মালয়েশিয়ায় বাংলা নববর্ষ উদযাপিত

মোস্তফা ইমরান রাজু, মালয়েশিয়া প্রতিনিধি
|  ১৬ এপ্রিল ২০১৮, ১৫:৫৫ | আপডেট : ১৬ এপ্রিল ২০১৮, ১৬:৩৫
উৎসবমুখর পরিবেশে বাংলা নতুন বছর ১৪২৫ সালকে বরণ করে নিয়েছে মালয়েশিয়া প্রবাসী বাংলাদেশিরা। মালয়েশিয়ার রাজধানী কুয়ালালামপুর ও এর আশপাশের কয়েকটি রাজ্যে বৈশাখ উদযাপিত হয়েছে।

শনিবার পহেলা বৈশাখে কুয়ালালামপুরের পর্যটক প্রিয় বুকিত বিনতাংয়ের রসনা বিলাস রেস্টুরেন্টে প্রবাসীরা একসঙ্গে মিলিত হন। ‘এসো হে বৈশাখ এসো এসো’ গানে কণ্ঠ মিলিয়ে বাংলা নতুন বছরকে বরণ করে নেন তারা। পান্তা-ইলিশ আর ভর্তা-ভাজির আয়োজনে বৈশাখী উৎসব এক অন্য মাত্রা লাভ করে।

রেস্টুরেন্টের স্বত্বাধিকারী তানিয়া রহমান বলেন, প্রবাসে দেশীয় সংস্কৃতি ধরে রাখতে আমাদের এই ক্ষুদ্র প্রয়াস। এসময় বাংলাদেশ কমিউনিটি প্রেসক্লাব মালয়েশিয়ার সভাপতি এস এম রহমান পারভেজ, মালয়েশিয়া আওয়ামী লীগের প্রস্তাবিত কমিটির সভাপতি মকবুল হোসেন মুকুল, যুবলীগের আহ্বায়ক তাজকির আহমেদ, মালয়েশিয়া বিএনপি’র সিনিয়র সহ-সভাপতি মাহবুব আলম শাহ, কোতারায়া বিজনেস কমিউনিটির সভাপতি রাশেদ বাদলসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।  

দিনব্যাপী বৈশাখী উৎসবে ছিল নাচ-গান, মুখে রঙয়ের আলপনা আঁকা ও জনপ্রিয় বাউল গান পরিবেশন। এছাড়া বাংলাদেশ থেকে আসা শিল্পীদের সমন্বয়ে বাউল শাহ আব্দুল করিমের গান আর বাদ্যযন্ত্রের মূর্ছনায় বিমোহিত হয় হয় দর্শক-শ্রোতা।

এদিকে মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি অধ্যুষিত এলাকা কোতারায়ার যুবকদের সংগঠন ‘আমরা প্রবাসী যুব সংঘ’এর উদ্যোগে পঞ্চম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও পহেলা বৈশাখ উদযাপিত হয়েছে। মুজিবর রহমানের সভাপতিত্বে, জাফর ফিরোজের সঞ্চালনা ও বাদল কারারের শুভেচ্ছা বক্তব্যের মধ্য দিয়ে শুরু হয় মূল অনুষ্ঠান।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ফিরোজ খান, উপদেষ্টা মামুনুর রশিদ, দাতো সেলিম, লিটন আবাদ, আক্তার হোসেন গাজি, আব্দুল করিম, এস কে সেন্টু, রাশেদ বাদল, বাহার উদ্দিনসহ আরও অনেকে। বিদেশের মাটিতে দেশীয় আমেজে বৈশাখী উৎসব পালন করায় আয়োজকদের ধন্যবাদ জানান উপস্থিত বক্তারা।

মোহাম্মদ মামুনের কোরআন তেলাওয়াতের মধ্য দিয়ে শুরু হওয়া অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন শাহ পরান, হানিফ, জাকির হোসেনসহ অনেকে।

পঞ্চম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও বৈশাখ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে উপস্থিত হওয়ার জন্য আমন্ত্রিত অতিথিদের ধন্যবাদ জানান ‘আমরা প্রবাসী যুব সংঘ’এর নেতৃবৃন্দ।

সিঙ্গাপুরের সীমান্তবর্তী মালয়েশিয়ার শহর জোহর বারু’র ইউনিভার্সিটি টেকনোলজির ক্যাম্পাসে বাংলাদেশি ছাত্র-ছাত্রীদের আয়োজনে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হয় মঙ্গল শোভাযাত্রা। পরে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে দিনব্যাপী বিভিন্ন অনুষ্ঠান পালন করে করেন তারা।

অন্যদিকে মালয়েশিয়ার কোতা দামানসারা সেগী ইউনিভার্সিটির হসপিটালিটি অ্যান্ড ট্যুরিজম ম্যানেজমেন্টের বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা বর্ষবরণ করেছে। বাহারি রঙয়ের পোশাক আর সুর-ছন্দ ও তাল-লয়ে নতুন বছরকে বরণ করে নেন তারা। অনুষ্ঠানে গান, কবিতা আর বাদ্যযন্ত্রের মূর্ছনায় আগত বিভিন্ন দেশের শিক্ষার্থীরা মুগ্ধ হন। অনেকে শিল্পীদের সঙ্গে সুর মিলিয়ে অনুষ্ঠানস্থল মুখরিত করে তোলেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ দূতাবাসের শ্রম কাউন্সিলর মোঃ সায়েদুল ইসলাম। এছাড়া সেগী কলেজের অপারেশন প্রধান ইদা চিনি, ডিপার্টমেন্ট অব হসপিটালিটি অ্যান্ড ট্যুরিজম বোনি লোপেজ ও কমিউনিটি নেতা শাখাওয়াত হক জোসেফ উপস্থিত ছিলেন।

মালয়েশিয়ার অন্যান্য জায়গায়ও সকাল থেকে বাংলাদেশি নানা সংগঠনের উদ্যোগে উদযাপিত হয়েছে বাংলা নববর্ষ। বাংলাদেশি মালিকানাধীন রেস্টুরেন্টগুলোতেও চলে পান্তা-ইলিশসহ বাহারি বৈশাখী খাবারের মেলা।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়