Mir cement
logo
  • ঢাকা রোববার, ২২ মে ২০২২, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

সাংবাদিক তোফাজ্জলের ছেলেকে কারাগারে পাঠানোয় ডিআরইউর উদ্বেগ

আহসান হাবীব নাহিদ: ফাইল ছবি

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সাবেক যুগ্ম সম্পাদক ও দৈনিক খোলা কাগজের বিশেষ প্রতিনিধি তোফাজ্জল হোসেনের ছেলে আহসান হাবীব নাহিদকে কারাগারে পাঠানোর ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ডিআরইউ।

ডিআরইউ কার্যনির্বাহী কমিটির পক্ষে সংগঠনের সভাপতি নজরুল ইসলাম মিঠু ও সাধারণ সম্পাদক ডা. নূরুল ইসলাম হাসিব শনিবার (১১ ডিসেম্বর) এক বিবৃতিতে এ উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

বিবৃতিতে তারা এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে সাংবাদিক তোফাজ্জল হোসেনের ছেলে আহসান হাবীব নাহিদের মুক্তির পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ যথাযথ কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান।

গত ২৯ নভেম্বর আহসান হাবীব নাহিদ নিখোঁজ হওয়ার পর মাদারীপুরের রাজৈর থানার ২০১৯ সালের সন্ত্রাসবিরোধী আইনে করা এক মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

এ ঘটনায় ছেলের সন্ধান না পেয়ে গত ২৯ নভেম্বর রাজধানীর মোহাম্মদপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করে তোফাজ্জল হোসেনের পরিবার। জিডি নম্বর ২৪১৪।

জিডিতে উল্লেখ করা হয়, আহসান হাবীব নাহিদ ২৯ নভেম্বর সকাল পৌনে ৮টায় রাজধানীর মোহাম্মদপুরের বাসা থেকে বের হয়ে রাত পর্যন্ত বাসায় ফেরেননি। তার ব্যবহৃত মোবাইল নম্বরটিও বন্ধ পাওয়া যায়।

তোফাজ্জল হোসেন জানান, জিডি করার পরদিন ৩০ নভেম্বর দুপুরে র‌্যাব পরিচয়ে পরিবারের সদস্যদের কাছে ফোন দেওয়া হয়। ফোনে বলা হয়, নাহিদ মাদারীপুর জেলে আছেন। কিন্তু মামলার এজাহারে নাহিদের নাম পাওয়া যায়নি। এখনও সে মুক্তি পায়নি।

এর আগে গত ৫ ডিসেম্বর আহসান হাবিব নাহিদের মুক্তির দাবিতে নগর উন্নয়ন সাংবাদিক ফোরাম, বাংলাদেশ (ইউডিজেএফবি) সভাপতি মতিন আব্দুল্লাহ ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক সোহেল মামুন এক বিবৃতিতে নিন্দা ও উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

বিবৃতিতে তারা বলেন, ২০২০ সালের ১৫ জুন দায়ের হওয়া মাদারীপুরে সন্ত্রাসবিরোধী আইনের মামলায় তাকে (নাহিদ) গ্রেপ্তার দেখানো রহস্যজনক। মাদারীপুরে নাহিদ কখনও যাননি। গত ৩০ নভেম্বর তার পরিবার জানতে পারে র‌্যাব-৮ তাকে গ্রেপ্তার করে মাদারীপুর কারাগারে পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় ইউডিজেএফবি সুষ্ঠু তদন্ত এবং আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে নাহিদের মুক্তির দাবি জানায়। অন্যথায় সাংবাদিক সমাজকে সঙ্গে নিয়ে কঠোর কর্মসূচির হুঁশিয়ারি দিয়েছে।

রংপুর বিভাগ সাংবাদিক সমিতি, ঢাকা’র (আরডিজেএ) সভাপতি মোকছুদার রহমান মাকসুদ ও সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান এক যুক্ত বিবৃতিতে নিন্দা ও উদ্বেগ জানান। বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, ২০২০ সালের ১৫ জুন মাদারীপুরে সন্ত্রাসবিরোধী আইনের মামলায় আহসান হাবিব নাহিদকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। এটি শুধু রহস্যজনকই নয়, হাস্যকরও বটে। কারণ তার বাবা সাংবাদিকতার কারণেই তাকে গ্রেপ্তার ও তার পরিবারকে হেনস্তা করা হচ্ছে। কারণ, মামলাটি মাদারীপুরে অথচ সেখানে আহসান হাবিব কখনও যাননি।

আরডিজেএ নেতারা বলেন, একদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন গণমাধ্যমের অবাধ স্বাধীনতার কথা বলছেন, তখন একটি চক্র সরকারকে বিতর্কিত করতে সাংবাদিক পরিবারের বিরুদ্ধে সুকৌশলে মিথ্যা মামলা দিচ্ছে।

প্রসঙ্গত, আহসান হাবিব নাহিদ বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস টেকনোলজি (বিইউবিটি) থেকে সদ্য স্নাতক শেষ করেছেন। তাদের গ্রামের বাড়ি গাইবান্ধা।

এর আগে গত ৬ ডিসেম্বর ডিআরইউ চত্বরে সচেতন সাংবাদিকের ব্যানারে নাহিদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে প্রতিবাদ সমাবেশ করা হয়েছে। সমাবেশে সাংবাদিক নেতারা এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও নাহিদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানান।

এফএ/এসকে

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS