Mir cement
logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

ট্রান্সজেন্ডার নারী নিয়ে মানুষের ভুল ধারণা

ট্রান্সজেন্ডার নারী নিয়ে মানুষের ভুল ধারণা

আগামীকাল সোমবার ৮ মার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবস। দিবসটি উপলক্ষে বেসরকারি টেলিভিশন বৈশাখী টিভিতে দেশের ইতিহাসে প্রথম সংবাদ উপস্থাপন ও নাটকে অভিনয় করতে যাচ্ছেন দুজন ট্রান্সজেন্ডার নারী। তবে ইতোমধ্যে অনেকে সামাজিক যোগাযোগ ফেসবুক, ইউটিউবসহ বিভিন্ন মাধ্যমে ট্রান্সজেন্ডার নারীদের হিজরা হিসেবে আখ্যায়িত করছেন। মূলত ট্রান্সজেন্ডার বা রূপান্তরিত লিঙ্গ হলো- মানুষ যে জৈবিক লিঙ্গ নিয়ে জন্মগ্রহণ করেন এরসঙ্গে নিজেকে সনাক্ত করতে পারেন না। শারীরিকভাবে পুরুষ অথবা নারী হিসেবে জন্মগ্রহণ করলেও এদের মানসিক লিঙ্গবোধ তাদের জৈবিক লিঙ্গের বিপরীত বা এদের লৈঙ্গিক অনুভূতি সুস্পষ্টভাবে নারীসুলভ বা পুরুষসুলভ নয়। কিছু ট্রান্সজেন্ডার এক লিঙ্গ থেকে অন্য লিঙ্গে রূপান্তরিত হতে চিকিৎসার সহায়তা নেয়। এদের ট্রান্সসেক্সচুয়াল বা রূপান্তরকামী বলা হয়। এটা ট্রান্সজেন্ডারদের লৈঙ্গিক পরিচয়ের একটি স্থায়ী সমাধানের অভিব্যক্তি বলা যেতে পারে। তবে হিজড়া এবং ট্রান্সজেন্ডার এক নয়।

সমাজের প্রচলিত ধারণা মানুষকে মাঝে মাঝে পিছিয়ে নিয়ে যায়। শত চেষ্টা করেও অনেকে সমাজের মন্দ ধারণা থেকে বের হতে পারেন না। কিন্তু এবার সমাজের সেই মন্দ প্রচলিত ধারণা ভেঙে দেশের ইতিহাসে প্রথমবার বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল বৈশাখী টিভিতে সংবাদ পাঠ করবেন ট্রান্সজেন্ডার নারী।

আগামীকাল সোমবার বৈশাখী চ্যানেলটিতে ট্রান্সজেন্ডার নারী তাসনুভা আনান শিশিরের পাশাপাশি আরেকজন ট্রান্সজেন্ডার নারী নুসরাত মৌ ওই টিভির নাটকে অভিনয় করবেন। বৈশাখী টিভির এমন উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাচ্ছে নানা শ্রেণি পেশার মানুষ। প্রশংসিত হচ্ছে বৈশাখী টিভি।

বিশ্ববিদ্যালয়ে মাস্টার অব পাবলিক হেলথের শিক্ষার্থী তাসনুভা আনান শিশিরের অতীত স্মৃতি বরাবরই যন্ত্রণাদায়ক৷ শিশির বলেন, একটা ছেলের শরীর নিয়ে কারো আচরণ যদি মেয়েলি হয়, তাহলে, সেই আচরণে কেউ সমর্থন দেয় না, বরং অনবরত বুলিং, হেনস্থার শিকার হতে হয়, যৌন হয়রানির শিকার হতে হয়৷ সেরকম প্রতিবন্ধকতা ভেদ করেই আজকের জায়গা তৈরি করতে হয়েছে৷

ট্রান্সজেন্ডার নারী সংবাদ পাঠ ও নাটকে অভিনয়ের খবর শুনতে পেয়ে এক নারী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে লিখেছেন, ‘তারা ভিন্ন নয়, তারাও আমাদের মত আল্লাহর সৃষ্টি, মানুষ। সকল ক্ষেত্রে তাদের ও আমাদের মত সমান অধিকার প্রাপ্য। ভালোবাসা।’

আরেকজন অভিনেতা রাশেদ সীমান্তের পোস্টে মন্তব্য করেছেন, ‘শুভ উদ্যোগ। জেনে ভালো লাগলো। এভাবেই ছেলে- মেয়ে বা তৃতীয় লিঙ্গের পরিচয় ছাপিয়ে মানুষ হোক মূল্যায়িত। সবার উপরে মানুষ সত্য, তাহার উপরে নাই।’

বৈশাখী টিভির বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বৈশাখী টেলিভিশন স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর এই বছর, স্বাধীনতার মাস মার্চে নারী দিবস উদযাপনের আগে সংবাদ বিভাগ ও নাটকে দুইজন ট্রান্সজেন্ডার নারীকে যুক্ত করেছে।

বৈশাখী টেলিভিশনের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং প্রধান সম্পাদক জনাব টিপু আলম মিলন এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘ট্রান্সজেন্ডাররাও আমাদের সমাজেরই অংশ। অনেক বড় আর গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ। তাদের মেধাও আমাদের সম্পদ। সঠিকভাবে কাজে লাগাতে পারলে আমরাই লাভবান হবো। আর তারাও উন্নত জীবনের দেখা পাবেন। নাগরিক হিসেবে দেশ ও সমাজে ভূমিকা রাখতে পারবেন। সে ভাবনা থেকেই আমরা উদ্যোগটি নিয়েছি।’

তাসনুভা আনান শিশির গণমাধ্যমকে জানান, ওই টেলিভিশনটিতে তিনি নাটকের কাজে গিয়েছিলেন। সেখানে তার উচ্চারণ উপস্থাপন দেখে টেলিভিশন কর্তৃপক্ষ তাকে অডিশন দিতে বলে। পরে অডিশন দিয়ে সংবাদ পাঠক হিসেবে নির্বাচিত হন তিনি। বৈশাখী টিভিকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়েছেন শিশির। জীবনভর মানুষের কাছে বঞ্চনার শিকার হওয়া মৌ এবার নাটকের অভিনেত্রী। তিনিও আপ্লুত। বৈশাখী টিভির প্রতি কৃতজ্ঞতার শেষ নেই তারও।

এফএ

RTV Drama
RTVPLUS