Mir cement
logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২২, ১৩ মাঘ ১৪২৮
discover

ওমিক্রন ঠেকাতে প্রবাসীদের উদ্দেশ্যে যা বললো স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

The Department of Health said that the purpose of the expatriates to prevent omicron
ফাইল ছবি

ইউরোপ-আফ্রিকাসহ যেসব দেশে করোনাভাইরাসের নতুন ধরন (ভ্যারিয়েন্ট) ওমিক্রন ছড়িয়েছে পড়েছে সেসব দেশে অবস্থানরত বাংলাদেশি নাগরিকদের আপাতত দেশে না ফেরার আহ্বান জানানো হয়েছে। আজ বুধবার (১ ডিসেম্বর) দুপুরে কোভিড-১৯ পরিস্থিতি নিয়ে আয়োজিত ভার্চুয়াল স্বাস্থ্য বুলেটিনে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মুখপাত্র ডা. নাজমুল ইসলাম এ আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, প্রবাসী ভাই-বোনেরা যারা এই সময় দেশে আসতে চান, বিশেষ করে যারা দক্ষিণ আফ্রিকায় আছেন বা ইউরোপের যেসব দেশগুলোতে ওমিক্রণের ভ্যারিয়েন্টটি অধিক সংখ্যায় শনাক্ত হচ্ছে- তাদের প্রতি আমাদের বিনীত অনুরোধ থাকবে আপনারা ভ্রমণ পরিকল্পনা আপাতত স্থগিত রাখুন। পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত ভ্রমণ পরিকল্পনা একেবারে বন্ধ রাখুন। এই কাজটি করলে প্রত্যক্ষ-পরোক্ষভাবে আমাদের সারা বাংলাদেশে করোনা রোধে যে সর্বোচ্চ চেষ্টাটি আছে সেটা বেগবান হবে।

নাজমুল ইসলাম বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ওমিক্রনকে ‘ভ্যারিয়েন্ট অব কনসার্ন’ হিসেবে ঘোষণা করেছেন সেটা সম্পর্কে প্রতিনিয়ত আমরা নতুন তথ্য-উপাত্ত পাচ্ছি। এদিকে আমাদের গভীর মনোযোগ আছে এবং সরকার এই পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য সব প্রস্তুতি ইতোমধ্যে সম্পন্ন করেছে। আমরা মনে করি, এই মুহূর্তে ভ্রমণ সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়িয়ে দিতে পারে। এই সংক্রমণের ঝুঁকি থেকে দেশবাসীকে রক্ষা করার জন্য আমরা পরিস্থিতির সঙ্গে মিল রেখে আমাদের বিভিন্ন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে হচ্ছে। বন্দরগুলোতে আমরা সতর্কতা দিয়েছি। কোয়ারেন্টিনের বিধি-নিষেধ শিথিল করা হয়েছিল সেটি আর শিথিল নেই। কোয়ারেন্টিনের বিধি-নিষেধ আমরা কঠোরভাবে প্রতিপালনের নির্দেশনা দিয়েছি।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে যারা এসেছেন স্থানীয় প্রশাসনের সহযোগিতা নিয়ে আমরা তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছি, তাদের চিহ্নিত করছি। যাদের পরীক্ষার দরকার তাদের পরীক্ষা করছি। সামগ্রিকভাবে এই মুহূর্ত পর্যন্ত সমস্ত পরিস্থিতি আমাদের নিয়ন্ত্রণে আছে, আতঙ্কিত হওয়ার কারণ নেই।

কেএফ/এসকে

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS