logo
  • ঢাকা সোমবার, ১২ এপ্রিল ২০২১, ২৯ চৈত্র ১৪২৭

ভারতের সেরাম থেকে আরও ৪ কোটি ভ্যাকসিন কিনতে চায় বাংলাদেশ

Bangladesh wants to buy another 4 crore vaccines from Seram Institute
ফাইল ছবি

সেরাম ইন্সটিটিউট অব ইন্ডিয়ার কাছ থেকে আরও ৪ কোটি ডোজ অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার করোনা প্রতিরোধী ভ্যাকসিন কিনতে চাচ্ছে বাংলাদেশ। গতকাল বৃহস্পতিবার (৪ মার্চ) স্বাস্থ্য সচিব আবদুল মান্নান ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে এই তথ্য জানিয়েছেন।

৩ কোটি ডোজ ক্রয় চুক্তির আওতায় এরই মধ্যে ভ্যাকসিন পাচ্ছে বাংলাদেশ। এছাড়া ভারত সরকারের উপহার হিসেবে সেরামের কাছ থেকে ২০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন পেয়েছে বাংলাদেশ। অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন কোভিশিল্ড নামে উৎপাদন করছে সেরাম।

স্বাস্থ্য সচিব আবদুল মান্নান বলেন, আলোচনা চলছে। দেখা যাক কী হয়।

এই বিষয়ে সেরামের মন্তব্য জানতে চাইলে সাড়া পাওয়া যায়নি।

স্বাস্থ্য সচিব আরও জানান, কোভ্যাক্সের কাছ থেকেও ৬ কোটি ৮০ লাখ টিকা পাওয়ার কথা রয়েছে বাংলাদেশের, যার মধ্যে জুনের মধ্যে ১ কোটি ডোজের মত পাওয়া যাবে বলে আশা করা হচ্ছে। বিশ্বজুড়ে নিম্ন ও মধ্যম আয়ের দেশগুলোও যাতে টিকা পায়, তা নিশ্চিত করতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও গ্যাভির নেতৃত্বে কোভ্যাক্স নামের এই প্ল্যাটফর্ম গড়ে তোলা হয়েছে।

সেরাম ইনস্টিটিউটের সঙ্গে প্রথম চুক্তির আওতায় যে ৩ কোটি ডোজ টিকা বাংলাদেশ সরকার কিনেছে, তা সরবরাহের দায়িত্বে আছে বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস। তারাই বাংলাদেশে সেরাম ইনস্টিটিউটের কোভিশিল্ড টিকার ‘এক্সক্লুসিভ ডিস্ট্রিবিউটর’।

তবে ভবিষ্যতে সেরাম ইনস্টিটিউট থেকে টিকা আনার কাজটি কাদের মাধ্যমে করা হবে, বাংলাদেশ সরকার এখনও ‘সে সিদ্ধান্ত নেয়নি’ বলে স্বাস্থ্য সচিবের বরাতে জানিয়েছে রয়টার্স।

এ বিষয়ে রয়টার্সের প্রশ্নের উত্তরে বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের চিফ অপারেটিং অফিসার (সিওও) রাব্বুর রেজা বলেছেন, নতুন করে টিকা কেনার কোনো অর্ডার আমরা দিইনি। এখন পর্যন্ত মোট ৩ কোটি ডোজের অর্ডারই আমরা দিয়েছি। বাড়তি অর্ডারের বিষয়টি নির্ভর করবে সরকারের ওপর।

বাংলাদেশে অ্যাস্ট্রাজেনেকা ভ্যাকসিনের একমাত্র পরিবেশক বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড। সচিব আবদুল মান্নান জানান, ভবিষ্যতে ভ্যাকসিন কেনার বিষয়টি কাদের হাতে থাকবে সে বিষয়ে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত নেয়নি সরকার।

কেএফ

RTV Drama
RTVPLUS