logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

পঞ্চগড় প্রতিনিধি, আরটিভি অনলাইন

  ০৭ জানুয়ারি ২০২০, ২১:০৭
আপডেট : ০৭ জানুয়ারি ২০২০, ২১:৩৯

বাবার সঙ্গে দ্বন্দ্বের জেরে মেয়েকে ভর্তি ফরম দিলেন না প্রধান শিক্ষক

বাবার সঙ্গে দ্বন্দ্বের জেরে মেয়েকে ভর্তিফরম দিলো না প্রধান শিক্ষক

কামেলী আক্তার। চলতি বছরে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা পাস করেছে সে। স্বপ্ন এবার বাড়ির পাশে অবস্থিত দ্বিমুখী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ভর্তি হবে। কিন্তু তার বাবার সঙ্গে বিরোধ থাকায় তাকে ভর্তির ফরম দেননি বিদ্যালয়টির ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক।

ফলে সে (কামেলী আক্তার) এখনও স্কুলে ভর্তি হতে না পেরে হতাশায় দিন কাটাচ্ছে। আর অন্যদিকে তার সহপাঠীরা নতুন বই পেয়ে বেশ উচ্ছ্বাসের সঙ্গে ক্লাস শুরু করেছে।

এদিকে ওই শিক্ষার্থীর বাবা আব্দুল করিম বেন্টু এ ব্যাপারে তেঁতুলিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন। তাতেও কোনও কাজ হচ্ছে না বলে জানা গেছে।

ওই শিক্ষার্থীর বাবা আব্দুল করিম বেন্টু বলেন, আমি ২০১০ থেকে ২০১৮ পর্যন্ত ওই বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির নির্বাচিত সদস্য ছিলেন। ২০১৮ সালের কথাকাটাকাটিকে কেন্দ্র করে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আবু জাফরের সঙ্গে আমার বিরোধ শুরু হয়। এ ঘটনার প্রতিকার চেয়ে আমি ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে আদালতে একটি মামলা দায়ের করি। বর্তমানে সেটি চলমান রয়েছে। এরই জের ধরে তার মেয়েকে ভর্তি ফরম দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ আব্দুল করিমের।

তবে, বিদ্যালয়টির ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আবু জাফর বলেন, যেসব শিক্ষার্থী জিপিএ ২-এর কম পেয়েছে, তাদের এই বিদ্যালয়ে ভর্তি নেয়া হবে না।  আর প্রত্যেক শ্রেণিতে ৮০ জনের অধিক শিক্ষার্থী ভর্তি না করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। নূন্যতম যোগ্যতা না থাকায় ওই শিক্ষার্থীকে ভর্তি ফরম দেয়া হয়নি। এ সময় তিনি ওই শিক্ষার্থীর বাবার সঙ্গে তার বিরোধ থাকার কথা স্বীকার করেন।

এ বিষয়ে তেঁতুলিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রফিকুল আলম বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে বিষয়টি তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছি। তদন্ত প্রতিবেদন পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আর জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা শাহীন আকতার বলেন, জিপিএ ২-এর নিচে পাওয়া শিক্ষার্থীকে ভর্তি ফরম দেয়া যাবে না এমন কোনও বিধান নেই। বিষয়টি আমি গুরুত্বের সঙ্গে পর্যালোচনা করে পরবর্তীতে সিদ্ধান্ত নেব।

এজে/ এমকে

RTVPLUS