logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

‘হঠাৎ হল ছেড়ে কোথায় যাবো, কি করবো’

জাবি সংবাদদাতা
|  ০৫ নভেম্বর ২০১৯, ১৮:৩৭ | আপডেট : ০৫ নভেম্বর ২০১৯, ১৮:৫২
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়
হল ছাড়ছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে চলমান আন্দোলনে হঠাৎ হল ত্যাগের নির্দেশে বিপাকে পড়েছে বিশ্ববিদ্যালয়টির কয়েক হাজার শিক্ষার্থী। বিশেষ করে মেয়ে শিক্ষার্থীদের ভোগান্তি তীব্র আকার ধারণ করেছে। প্রতিবাদে মেয়ে শিক্ষার্থীরা প্রশাসনের এমন হঠকারী সিদ্ধান্তকে নৈতিকতা বিবর্জিত মানুষের কাজ আখ্যা দিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করেছে। 

প্রশাসন থেকে নির্দেশনার পরপরেই শিক্ষার্থীদের হলগুলোতে আতঙ্কিত অবস্থা বিরাজ করে। ঘণ্টাখানেকের মধ্যে হল ছেড়ে কোথায় যাবে, কি করবে এমন চিন্তায় বেশিরভাগ শিক্ষার্থী হা-হুতাশ করতে দেখা যায়। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে এখানে শিক্ষার্থীরা পড়তে আসে তাই হঠাৎ আল্টিমেটামে বিপাকে পড়েন তারা। 

বিশ্ববিদ্যালয়ের মওলানা ভাসানী হলের ছাত্র শরিফুল ইসলাম বলেন, প্রশাসন সাধারণ শিক্ষার্থীদের সঙ্গে ছেলেখেলা খেলছে। হঠাৎ নির্দেশনায় কোথায় যাবো আমরা? 

আ ফ ম কামালউদ্দিন হলের মিরাজ ইসলাম বলেন, আমরা হতাশ হঠাৎ এমন সিদ্ধান্তে। এখন কোথায় যাবো ভিসি ম্যাডাম বলতে পারেন? 

সুফিয়া কামাল হলের ছাত্রী হাসনা হেনা বলেন, সাধারণ মেয়ে শিক্ষার্থীরা এখন কি করবে? বাড়ি অনেক দূরে? নিরাপত্তায় আশঙ্কায় আছি। কি করবো বুঝতেছি না। 

এদিকে ক্যাম্পাস অনির্দিষ্ট সময়ের জন্য বন্ধ হওয়ায় দীর্ঘমেয়াদি সেশনজটের কবলে পড়বে বিভিন্ন বিভাগ এমন আশঙ্কা করছেন অনেকে।
 
ফার্মেসী বিভাগের এক ছাত্র বলেন, এমনিতে অনেক দিনের সেশনজটে আছি আবারো জট শুরু হলো।  

এর আগে দুপুরের দিকে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলনকারীদের ওপর হামলার ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। এছাড়া শিক্ষার্থীদের হল ছাড়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুর আড়াইটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ফারজানা ইসলামের নেতৃত্বে সিন্ডিকেটের জরুরি এক সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • শিক্ষা এর সর্বশেষ
  • শিক্ষা এর পাঠক প্রিয়