logo
  • ঢাকা শনিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৯, ৯ ভাদ্র ১৪২৬

উপাচার্যের বাসভবনের সামনে নুরসহ কোটা আন্দোলনকারীদের অবস্থান

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ০২ এপ্রিল ২০১৯, ২০:৪১ | আপডেট : ০২ এপ্রিল ২০১৯, ২২:০৭
ছবি-সংগৃহীত
ডাকসু নবনির্বাচিত ভিপি নুরুল হক নুর ছাত্রলীগের মারধরের শিকার হওয়ার প্রতিবাদের উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান নিয়েছেন ভিপি নুরুসহ কোটা আন্দোলনকারী। তারা বিচার না পাওয়া পর্যন্ত তারা সেখানে অবস্থান করবেন বলে জানিয়েছেন।

bestelectronics
আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে তারা এই অবস্থান নেয়।

হামলার বিষয়ে নুরুল হক নুর সাংবাদিকদের বলেন, ফরিদ হাসান নামে আরবি সাহিত্যের মাস্টার্সের এক শিক্ষার্থীকে গতকাল (সোমবার) মারধর করা হয়। সে হলে পুনরায় গেলে মারধর করা হবে, এ কারণে আমি তার সঙ্গে গিয়েছিলাম। তার রক্তমাখা জামা পরিবর্তনের জন্য তার রুমে জামা আনতে যায়। এসময় হল শাখা ছাত্রলীগের কর্মীরা আমাদের আটকে রেখে নানা ধরনের কটূ কথা বলে। হল থেকে বের হওয়ার সময় আমার ওপর হামলা করা হয়েছে। মেয়েদের ওড়না ধরে টানা হয়েছে, ডিম মেরেছে। ছাত্র ফেডারেশনের বেনজীর, শামসুন নাহার হল সংসদের ভিপি তাসনিম আফরোজ ইমিসহ চার-পাঁচ জন আহত হয়েছে। হামলার বিচার না হওয়া পর্যন্ত আমি ভিসির বাসভবনের সামনে উঠব না।

এর আগে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের হাতে মারধরের শিকার এক আবাসিক শিক্ষার্থীকে দেখতে গিয়ে সলিমুল্লাহ মুসলিম হলে অবরুদ্ধ হন নুরুল হক নূর। হল সংসদের নেতৃত্বে থাকা ছাত্রলীগ নেতারা তাকে অবরুদ্ধ করে লাঞ্ছিত করেন বলে অভিযোগ ওঠে। পরে প্রায় দুই ঘণ্টা তিনি সেখানে অবরুদ্ধ থাকেন। তবে হল প্রাধ্যক্ষের দাবি, তাকে অবরুদ্ধ করা হয়নি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মারধরের ঘটনার প্রতিবাদে বিকেলে ক্যাম্পাসে ডাকসু ভিপি নুর, স্বতন্ত্র জোটের ভিপি প্রার্থী অরণি সেমন্তি খান, ডাকসুর সমাজসেবা সম্পাদক আকতার হোসেনসহ বিভিন্ন প্যানেলের প্রার্থীদের নেতৃত্বে সাধারণ শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল করেন। 

মিছিল শেষে প্রক্টর কার্যালয়ে অভিযোগ দেয়ার পর তারা এসএম হল অভিমুখে রওয়ানা দেন। হলের অভ্যন্তরে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা আগে থেকেই অবস্থান নেন। ভিপি নুরসহ সবাই পৌঁছালে স্লোগান দিয়ে তাদের উপর ডিম নিক্ষেপ করেন ছাত্রলীগ কর্মীরা। পরে নুরকে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়। পরে সেখান থেকে বের হয়ে প্রতিবাদস্বরূপ নুর ভিসির বাসভবনের সামনে গিয়ে অবস্থান নেন।

সোমবার দিবাগত রাতে উর্দু বিভাগের মাস্টার্সের ছাত্র ফরিদ হাসানকে মারধর করে রক্তাক্ত করার অভিযোগ ওঠে হল শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে। ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত ফরিদ ১১ মার্চ অনুষ্ঠিত হল সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র থেকে জিএস প্রার্থী হয়েছিলেন।

আরসি/এসএস

bestelectronics bestelectronics
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়