logo
  • ঢাকা সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৬

ডাকসু নির্বাচন: ছাত্রলীগের যেসব সংকট নিয়ে ভাবছে আওয়ামী লীগ

সিয়াম সারোয়ার জামিল, আরটিভি অনলাইন
|  ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৯:২০ | আপডেট : ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৯:৩৩
আগামী ১১ মার্চ অনুষ্ঠেয় ডাকসু নির্বাচনকে সামনে রেখে জোর প্রস্তুতি শুরু করেছে ছাত্রলীগ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন ছাত্রলীগ নেতারা। এরই মধ্যে আওয়ামী লীগের শীর্ষ পর্যায়ের চার নেতাকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তাদের কাছ থেকে পরামর্শ নিতে বৈঠকও করেছেন ছাত্রলীগ নেতারা।

দলীয় সূত্র জানায়, আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দলের চার নেতাকে ডাকসু নির্বাচন নিয়ে দায়িত্ব দিয়েছেন। এরা হলেন যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক ও আব্দুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, ডাকসুর সাবেক ভিপি (বাসদ থেকে) ও বর্তমানে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আক্তারুজ্জামান।

ডাকসুর ইতিহাস ঘেঁটে দেখা গেছে, দেশ স্বাধীন হবার পর ছাত্রলীগ থেকে একবারই ডাকসুতে সহ সভাপতি (ভিপি) নির্বাচিত হয়েছিল। তবে পূর্ণ প্যানেলে জয় পায়নি সংগঠনটি। ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের প্যানেল থেকে ভিপি পদে জয়ী হয়েছিলেন ছাত্রলীগের তৎকালীন সভাপতি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমেদ। যিনি একাদশ সংসদ নির্বাচনে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী ধানের শীষ প্রতীকে বিজয়ী হয়েছেন। পরিষদের ওই প্যানেলে জাসদ ছাত্রলীগ থেকে ডা. মুশতাক আহমেদ সাধারণ সম্পাদক (জিএস) এবং ছাত্র ইউনিয়ন থেকে নাসির-উদ-দৌজা সহকারী সাধারণ সম্পাদক (এজিএস) নির্বাচিত হয়েছিলেন।

জানা গেছে, ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের নামের জোটটি এখনও ক্রিয়াশীল থাকলেও সেই জোটে ছাত্র ইউনিয়ন নেই। বামপন্থী সংগঠনটি এখন প্রগতিশীল ছাত্রজোট নামে পৃথক ৫টি সংগঠনটির নেতৃত্ব দিচ্ছে। ক্যাম্পাসে জাসদ ছাত্রলীগের সেই প্রভাবও নেই। জোটভুক্ত ৬ সংগঠনের বেশিরভাগেরই বিশ্ববিদ্যালয় কমিটি পর্যন্ত নেই। এ অবস্থায় একা হয়ে পড়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের ভাতৃপ্রতীম সংগঠনটি।

এ বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আওয়ামী লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর একজন সদস্য জানান, ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি পূর্ণাঙ্গ করা হয়নি। হল কমিটিগুলোও পুরনো। ফলে এ নিয়ে অসন্তোষ আছে সংগঠনে। বিশেষ করে মেয়েদের হলে অপেক্ষাকৃত দুর্বল অবস্থানে রয়েছে ছাত্রলীগ। এর বাইরে বেশ কিছু সংকট আছে দলের অভ্যন্তরে। সেগুলো কাটিয়ে ওঠার চেষ্টাই করা হচ্ছে। তাছাড়া সাধারণ শিক্ষার্থীদের কিভাবে আরও সম্পৃক্ত করা যায়, সমর্থন বাড়ে, সেজন্যেও কিছু কৌশল নির্ধারণ করা হয়েছে।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান আরটিভি অনলাইনকে জানান, ডাকসু নির্বাচনটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। জননেত্রী শেখ হাসিনার বার্তা ছাত্রলীগকে দেয়া হয়েছে। তারাও নিজেদের মতো করে প্রস্তুতি নিচ্ছে। যেসব জায়গায় সংকট আছে, সেগুলোও গুরুত্ব নিয়ে দেখা হচ্ছে।

ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী আরটিভি অনলাইনকে বলেন, ডাকসু নির্বাচনে ছা্ত্রলীগ যাতে করে সর্বাত্মক প্রস্তুতি নেয়, সেই নির্দেশনা আমরা পেয়েছি। নিজেদের মধ্যে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করার জন্য আমরা নিজেরা বৈঠক করেছি। সাধারণ শিক্ষার্থীদের সঙ্গে নিয়েই আশা করছি নির্বাচনে জয় পাব। 

এসজে/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়