Mir cement
logo
  • ঢাকা বুধবার, ০৪ আগস্ট ২০২১, ২০ শ্রাবণ ১৪২৮

এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার বিষয়ে চুড়ান্ত সিন্ধান্ত জানাবেন শিক্ষামন্ত্রী

The final decision on SSC-HSC examination will be announced by the Education Minister
ফাইল ছবি

প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস সংক্রমণের ভয়াবহতায় বন্ধ রয়েছে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। বিশেষ করে ঝুঁলে রয়েছে স্কুল এবং কলেজ শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার বিষয়টি। এমন পরিস্থিতিতে আগামীকাল (১৫ জুলাই) ভার্চুয়াল প্রেস কনফারেন্সের মাধ্যমে চুড়ান্ত সিদ্ধান্তের কথা জানাবেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

বুধবার (১৪ জুলাই) এক খুদে বার্তায় এ তথ্য জানান শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা এম এ খায়ের।

তিনি জানান, এসএসসি এবং এইচএসসি পরীক্ষা-২০২১ সংক্রান্ত বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি ভার্চুয়াল প্রেস কনফারেন্স করবেন। আগামীকাল বৃহস্পতিবার (১৫ জুলাই) সকাল ১১ টায় এটি অনুষ্ঠিত হবে।

জানা গেছে, এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের কীভাবে বিকল্প মূল্যায়ন করা হবে, সেটি ঠিক করতে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। পরীক্ষা না নেওয়াসহ এ কমিটির তিনটি প্রস্তাব চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছে। এর মধ্যে একটি প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সূত্র জানায়, এই দুই পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব না হলে বিকল্প পদ্ধতিতে পাস করানোর চিন্তাভাবনা করছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এ জন্য একাধিক প্রস্তাব তৈরি করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে পাঠানো হয়েছিল। প্রস্তাবে বলা হয়, রচনামূলক বা সৃজনশীল প্রশ্ন বাদ দিয়ে কেবল বহু নির্বাচনী প্রশ্নে (এমসিকিউ) পরীক্ষা নেওয়া যেতে পারে। বিষয় ও পূর্ণমান (পরীক্ষার মোট নম্বর) কমিয়েও পরীক্ষা নেওয়া যেতে পারে। এক্ষেত্রে প্রতি বিষয়ের দুই পত্র একীভূত করা যায়।

আরও প্রস্তাব করা হয়, ২০০ নম্বরের বদলে ১০০ নম্বরের পরীক্ষা নেওয়া হবে। তবে উভয়ক্ষেত্রেই করোনা পরিস্থিতির উন্নতি জরুরি। অর্থাৎ সংক্রমণ ১০ শতাংশের নিচে নেমে এলে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করে পরীক্ষা নেওয়া যেতে পারে। স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতে কেন্দ্রের সংখ্যা বর্তমানের তুলনায় দ্বিগুণ করে এই পরীক্ষা নেওয়া যায়।

এটি সম্ভব না হলে এসএসসির ক্ষেত্রে জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষার ফলের ৫০ শতাংশ এবং অ্যাসাইনমেন্ট ও শ্রেণিকক্ষের কার্যক্রমের ওপর ৫০ শতাংশ ফলাফল নিয়ে ফল প্রস্তুত করা যায়। এইচএসসির ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীর এসএসসির ফলের ৫০ শতাংশ, জেএসসির ২৫ শতাংশ এবং অ্যাসাইনমেন্টের ফলের ২৫ শতাংশ সমন্বয় করে ফল প্রকাশের জন্যও প্রস্তাব করা হয়েছিল।

গত ৫ ফেব্রুয়ারি এসএসসি পরীক্ষার্থীদের ৬০ দিন ও এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের ৮৪ দিন ক্লাস করিয়ে পরীক্ষা নেওয়ার সংক্ষিপ্ত সিলেবাস প্রকাশ করে ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড। তবে করোনা পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায় পরীক্ষা আয়োজন করা নিয়ে সংশয় দেখা দেয়। এ অবস্থায় এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের বিকল্প মূল্যায়নের কথা জানান শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

তবে কীভাবে বিকল্প মূল্যায়ন করা যায় তা ঠিক করতে ১১ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা শিক্ষা বোর্ড, মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড, কারিগরি শিক্ষা বোর্ড, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ও বাংলাদেশ পরীক্ষা উন্নয়ন ইউনিটের (বেডু) সদস্যরা রয়েছেন।

কেএফ

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS