logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ০৩ এপ্রিল ২০২০, ২০ চৈত্র ১৪২৬

করোনা আপডেট

  •     করোনাভাইরাসে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৫ জন আক্রান্ত, মৃত্যু নেই। যুক্তরাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় ১১৬৯ জনের মৃত্যু । করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে শুক্রবার পর্যন্ত বিশ্বে মারা গেছেন ৫৩ হাজার ১৯৫ জন। ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ২৩৫ জন, মোট আক্রান্ত ২০৬৯ জন, মৃত্যু ৫৩ জন। পাকিস্তানে মোট আক্রান্ত ২,৩৫৫ জন, মৃত্যু ৩২ জন

বাংলাদেশি জনশক্তি রপ্তানি সমস্যা সমাধানে ইউএই শেখদের আগ্রহ

মাহাবুব হাসান হৃদয়, ইউএই প্রতিনিধি
|  ২৭ জানুয়ারি ২০২০, ১৪:৪৪
UAE Sheikh's interest in solving Bangladeshi manpower export problem
ছবি সংগৃহীত
আমিরাতের শেখদের অর্থায়নে বাংলাদেশে জিসিসি সেন্টার, তাফ হিম সার্ভিস ও বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার সেন্টার খোলার মধ্য দিয়ে দেশটিতে বাংলাদেশি ভিসা বন্ধের ক্ষেত্রে অনেকখানি সমস্যা সমাধান হবে বলে মনে করেন দেশটির জিসিসি সেন্টারের চেয়ারম্যান শেখ মোহাম্মদ বিন রাশেদ আল মুওল্লা ও তাফ হিমের চেয়ারম্যান শেখ সাকার বিন মোহাম্মদ বিন হুমাইদ আল নুয়াইমি। তাই আমিরাতের শেখদের অর্থয়ানে এই তিনটি সেন্টার প্রতিষ্ঠা করার আগ্রহ প্রকাশ করেন।

যদিওবা এই কাজগুলো বাংলাদেশ সরকারের মন্ত্রণালয় করার কথা ছিল কিন্তু অজ্ঞাত কারণে তা করা হয়নি এবং তা না হওয়াতে দিন দিন আমিরাতে নতুন করে জনশক্তি রপ্তানিতে বিলম্বিত হচ্ছে বলে তাদের ধারনা। তাই বাংলাদেশিদের পক্ষ হয়ে আমিরাতের শেখরাই এইবার সমস্যা সমাধানের আগ্রহ প্রকাশ করেন। এতে প্রবাসীরা মনে করেন বাংলাদেশ সরকার যেন এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে আমিরাতে নতুন করে জনশক্তি রপ্তানিতে এগিয়ে আসেন।

রোববার দুবাইতে তাদার কার্যালয়ের এমনটা জানান আমিরাতের শেখ পরিবারের এই দুই বিনিয়োগকারী সদস্য। তারা এই সময় সাংবাদিকদের জানান, ২০১২ সালে আমরা যে সমস্যার মুখোমুখি হয়েছিলাম তা কিন্তু শিক্ষার অভাবে হয়েছে দেশের কারণে নয়।

সংযুক্ত আরব আমিরাত বিদেশি নাগরিকদের কল্যাণ, সুখী ও সংস্কৃতির জন্য স্বাগত জানিয়ে থাকে। তবে বাংলাদেশের সাথে দেশটির খুব একটি সু-সম্পর্ক রয়েছে। তাই আট বছর পর সংযুক্ত আরব আমিরাত বাংলাদেশের জনশক্তি খাত উন্মুক্ত করার লক্ষ্যে আমরা যেসব বিষয়গুলো অনুসরণ করা সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ মনে করছি। সেগুলো হচ্ছে-

১) আমিরাতের অর্থয়ানে বাংলাদেশে একটি জিসিসি সেন্টার, তাফ হিম সার্ভিস সেন্টার ও বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার সেন্টার তৈরি করা। ২) স্বল্প ব্যয়ে আমিরাতে কর্মী পাঠানো এবং জিসিসি সেন্টার এই প্রক্রিয়াটি নিয়ন্ত্রণ করবে ৩) উভয় দেশের পুলিশ ছাড়পত্র একই স্থান থেকে করা প্রদান করা। ৪) এজেন্টদের থেকে কর্মীদের এক মাসের অগ্রিম বেতন প্রদান করা এবং জিসিসি সেন্টার এই প্রক্রিয়াগুলো নিয়ন্ত্রণ করবে। ৫) আমিরাতে কর্মী পাঠানোর আগে কর্মীদের প্রশিক্ষণ দেয়া। যেমন- সংযুক্ত আরব আমিরাত সম্পর্কে ধারনা দেয়া। দেশটির সংস্কৃতি, মুদ্রা ও আইন সম্পর্কে জেনে রাখা। এই বিষয়গুলো আমাদের তাফ হিম সেন্টার প্রোগ্রামের আওতায় আসবে। কর্মীদের আমিরাতে আসার আগে প্রশিক্ষণ অপরিহার্য যাতে করে আমরা সুসম্পর্ক বজায় রাখতে পারি এবং প্রত্যেকের সংস্কৃতি ও আইনকে সম্মান করি।

আমাদের কথা ইউএইতে দক্ষ এবং প্রশিক্ষিত কর্মী চাই। কর্মীদের জন্য এখানে ওয়াগি প্রটেকশন সিস্টেম (ডব্লিউপিএস) এবং বীমা রয়েছে এতে নিয়োগকর্তা ব্যর্থ হলে প্রত্যেককে সময়মতো এবং পেমেন্ট গ্যারান্টিসহ প্রদান করতে হয়।

corona
দেশ আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ ৬১ ২৬
বিশ্ব ১০১৮৯৪৮ ২১২৩৫৭ ৫৩২১১
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • অন্যান্য এর সর্বশেষ
  • অন্যান্য এর পাঠক প্রিয়