রোজাদারকে অপ্রয়োজনীয় ও অশালীন কথা থেকে বিরত থাকতে হবে

প্রকাশ | ২৩ মে ২০১৯, ১৫:৫২

আরটিভি অনলাইন ডেস্ক

আমরা অনেকেই রমজানে সময় কাটানোর জন্য বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা দিই, গল্প করি। কিন্তু রোজাদারকে অপ্রায়োজনীয় ও অশালীন কথা থেকে বিরত থাকতে নিষেধ করেছেন রাসুলুল্লাহ (সা.)।

যখন বন্ধুদের সঙ্গে অপ্রয়োজনীয় বিষয়ে আড্ডা হয়, তখন যেনো সেখানে অশালীন কোনো কথা বার্তা না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।

পবিত্র কুরআনে আল্লাহ বলেন, তোমরা আল্লাহকে অধিক পরিমাণে স্মরণ করো, যাতে তোমরা সফলতা অর্জন করতে পারো। (সুরা আনফাল, আয়াত : ৪৫)

রমজানে রোজা রেখে অশালীন কথা বলা, গালি দেওয়া নিষেধ। তাই রোজা রেখে এ ধরনের কাজে লিপ্ত হওয়া উচিত নয়। রাসুল (সা.) ইরশাদ করেছেন, ‘তোমাদের কেউ যখন রোজা রাখে তখন সে যেন অশালীন কথাবার্তা না বলে ও হৈচৈ না করে।’ ( বুখারি, হাদিস : ১৯০৪) রমজানে রোজা রেখে কেউ এ ধরনের কাজে লিপ্ত হলে তার রোজার বরকত নষ্ট হয়ে যায়। তার সারা দিনের কষ্টই অনর্থক হয়ে যাবে।

হজরত আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত রাসুল (সা.) ইরশাদ করেছেন, বহু রোজাদার এমন রয়েছে, যাদের রোজা দ্বারা পিপাসা ছাড়া আর কোনো লাভ হয় না এবং বহু রাত জেগে নামাজ আদায়কারী আছে, যাদের রাত জাগা ছাড়া আর কোনো লাভ হয় না। (মুসনাদে আহমাদ, হাদিস : ৯৬৮৫) তাই রমজানের দিনগুলোতে কারো সঙ্গে বাগবিতণ্ডায় লিপ্ত হওয়া, কাউকে গালি দেওয়া ও অহেতুক হৈচৈ করা থেকে বিরত থাকতে হবে।

এমকে