কাশ্মীরে তীব্র ঠাণ্ডায় উষ্ণতা এনে দিচ্ছে ‘মানবতার দেয়াল’

প্রকাশ | ০৪ জানুয়ারি ২০১৯, ২২:০৭

লাইফস্টাইল ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের শ্রীনগরে শীতের পোশাক সাজিয়ে রাখা একটি দেয়াল নজরে আসে আলি মোহাম্মদের। ওইদিন বেশ ঠাণ্ডা ছিল। শীত নিবারণে সামান্য পোশাক গায়ে জড়িয়ে ছিলেন আলি। পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় ৬০ বছর বয়সী আলি দাঁড়িয়ে যান।

পাশে থাকা যুবককে জিজ্ঞেস করেন- বাবা, সুয়েটারের দাম কতো? উত্তরে যুবক বলেন, এগুলো বিক্রির জন্য নয়। এগুলো অভাবী মানুষের জন্য। যারা শীতের পোশাক কিনতে পারে না তাদের জন্য। বৃদ্ধ বলেন, আমার চেয়ে অভাবী কে আছে? তিনি কাঁদতে কাঁদতে বলেন, আমার তিনটি মেয়ে। আয়ের কোনও উৎস নেই।

এরপর আলি একটি জ্যাকেট, কয়েকটি সোয়েটার এবং জুতা নিয়ে হাসিমুখে চলে যাওয়ার সময় বলেন, এখানে পোশাক পেয়ে খুবই ভালো লাগছে। শীতে আমার মতো অভাবী মানুষদের এখন আর পোশাক কিনতে হবে না। এসব পোশাক যারা দিয়েছে, আল্লাহ তাদের মঙ্গল করুন।

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে একদল যুবক একেবারেই ভিন্নভাবে একটি দেয়াল সাজিয়েছে। এই দেয়ালে সারিবদ্ধভাবে রাখা হয়েছে শীতের পোশাক। অভাবী লোকজন এখান থেকে বিনামূল্যে তাদের প্রয়োজন অনুযায়ী পোশাক নিতে পারে।

এছাড়া স্বচ্ছল মানুষজন তাদের ইচ্ছানুযায়ী এখানে দান করতে পারে যেকোনও পোশাক। স্থানীয় লোকজন এটাকে ‘মানবতার দেয়াল’ হিসেবেই চেনে। সম্প্রতি মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক গণমাধ্যম আলজাজিরায় এই দেয়াল নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, ইরান ও তুরস্কে এ ধরনের কার্যক্রম চালু আছে। আর সেখান থেকেই অনুপ্রাণিত হয়ে কাশ্মীরে এই কার্যক্রম চালু করেছে অঞ্চলটির যুবকরা। নিজেদের এই উদ্যোগ সম্পর্কে এক যুবক জানান, আমাদের এখানে অনেক অভাবী মানুষ আছে। তীব্র ঠাণ্ডায় নিজেদের উষ্ণ রাখার জন্য প্রয়োজনীয় পোশাক কেনার সামর্থ্য এদের অনেকেরই নেই।

তিনি আরও বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আমাদের এই কার্যক্রম বেশ প্রশংসিত হয়েছে। এরপর থেকে অনেকেই এখানে দান করছেন। আমরা চেয়েছিলাম কাশ্মীরের অন্য এলাকাগুলোর যুবকদের উৎসাহিত করতে যেন তারাও এ ধরনের দেয়াল তৈরিতে এগিয়ে আসে। অবশেষে আমাদের এই উদ্দেশ্য সফল হয়েছে।

প্রসঙ্গত, কাশ্মীরে এখন তীব্র শীত পড়ছে। তাপমাত্রা নেমে গেছে শূন্য ডিগ্রির নিচে। ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহ থেকে জানুয়ারির শেষ পর্যন্ত কাশ্মীরের তাপমাত্র মাইনাস আট ডিগ্রি পর্যন্ত নেমে যায় এবং প্রচণ্ড তুষারপাত হয়। জম্মু-কাশ্মীর সরকারের অর্থনৈতিক সমীক্ষা ২০১৪-২০১৫ অনুযায়ী, কাশ্মীরের ২১.৬ ভাগ মানুষ দারিদ্র্যসীমার নিচে বাস করে। এসব মানুষ সাধারণত শীতের পোশাক কেনারও সামর্থ্য রাখে না।

ডি/পি