Mir cement
logo
  • ঢাকা সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

মাহমুদুল হক জালীস-এর একগুচ্ছ কবিতা

বেদনার এপার ওপার

অন্ধকার ঘনিয়ে আসার

সাথে সাথে মনে জানালায় চুপেচুপে

ভেসে উঠে তোমার চাঁদমাখা মুখ!

দিগন্ত থেকে দিগন্ত-জোড়ায়

লুটোপুটি খায় বেদনার ঢেউ,

এপার ওপারে আছড়ে পড়ে

যন্ত্রণার সুতীব্র হাওয়া,

রক্তে দাপাদাপি করে কৃষ্ণ রাতের

অনন্ত জোয়ার, সূর্যের উদ্ধত বাণে

ছিঁড়ে গেছে মনের মিলন!

পূর্বারাগী না হয়ে সুসজ্জিত করো

অবহেলিত এই তপোবন,

বেদনার এপারে ওপারে পাগলপ্রায় হয়ে

ছুটাছুটি করছি রাতদিন।

আকাশের আয়নায় ভেসে উঠে তবো মুখ,

মনের ক্যানভাসে মাইলের পর

মাইলের খাঁ খাঁ রোদ্দুর!

জুতার তলায় ঝিমিয়ে পড়েছে

পৃথিবীর সব সুখ, কান্নার ধ্বনিতে

দুলে উঠে নক্ষত্ররাজি,

চাঁদের আলোর ন্যায় ম্রিয়মান

হয়ে যাচ্ছে চলার পথ,

যেদিকে তাকাই শুধুই স্মৃতির

আনাগোনা আটকে ধরে হাতপা!

আমি দাঁড়াতে গিয়েও বারবার পড়ে যাই

বেদনার পুরনো বাতাসে,

আমাকে জ্বালিয়ে দেয় অগ্নিবীণার

রাক্ষুসে দাউদাউ করা আগুন,

বেদনার এপারে ওপারে বাষ্পীভূত হয়ে

উড়ে যায় কলজে পোড়া সুখ।

ভালবাসার জল

কূলহীন নদে জীবন ভাসিয়ে

বেয়ে চলছি অবিরাম,

কোথাও কোন ঠাঁই নেই।

চারিদিকে থৈথৈ পানির

প্রাণোচ্ছল হাসি,

সুখদুখে আছড়ে পড়ছে

দূর থেকে ধেয়ে আসা

প্রকাণ্ড এক ঊর্মিমালা।

জীবনাশঙ্কার খেলা দেখছো

তুমি নিরাপদ দূরত্বে দাঁড়িয়ে,

আমি হতবিহ্বল হয়ে ডুবে

যাচ্ছি অতল জলের বুকে।

বেঁচে থাকার যে আশাটুকু

জেগেছিল পয়লা সাক্ষাৎ লাভে,

অকস্মাৎ একখণ্ড কালো মেঘ এসে ক্ষতবিক্ষত করে দিয়েছে

ঝলমলে সেই গগন।

তুমি কী পার না কথার

ঈষৎ মায়া দিয়ে,হাতের কোমল স্পর্শ দিয়ে, চোখের নির্মল চাহনি দিয়ে

জীবনটাকে সজীব করে দিতে!

একটা নিরীহ মানবকে ভালবাসার জল দিয়ে ভরপুর করে দিতে।

নিজের সবকিছু ভাগাভাগি করে

অনন্তকাল সঙ্গী করে নিতে।

প্রেয়সীর হাত

জীবনের দুর্গম সাঁকোতে

নাও ভাসিয়েছি অনিকেত

পথচারীর অলক্ষ্যে চলার মতো,

প্রেমের উজানে নাও নোঙর ফেলেছি

জলতরঙ্গের সবুজাভ বেলাভূমিতে,

হেঁটে হেঁটে চলে গেছি

পৃথিবীর শুভ্র জীবনের

স্বর্ণখচিত তাজমহলে!

ভালোবাসার জলে স্নান করেছি

ঊর্বর প্রশান্তিময় প্রেয়সীর কোমল হাতে।

প্রেম বাগানে সুখের পত্র পল্লব

ফোঁটার আগেই আঘাত হানলো

অবিশ্বাসের বিষাক্ত ছোবল,

বিষাদ বিণ দাবানলের ন্যায়

ছড়িয়ে পড়ল অবিচ্ছেদ্য জীবনের অংশে,

ক্ষুধিত প্রেমের বিজলি চমকে

ভস্ম হল জীবনের সব আনন্দ।

এখন আমার নিঃশ্বাস মেধায়

ছড়িয়ে গেছে দুখের এ্যাসিড,

নাক্ষত্রিক দীপ্রতায় ভেসে এসে

নিঃশব্দে আকাশ ফাটা আর্তনাদ,

দেহের রক্তকিংশু লেলিহান শিখায়

প্রলোভিত হয়েছে শ্মশানের মতো,

তুমি নাই তাই দিনরাত্রকে আবৃত করে

জড়িয়ে রাখি স্মৃতির গ্রীবা।

টিআই

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS