Mir cement
logo
  • ঢাকা রোববার, ২০ জুন ২০২১, ৬ আষাঢ় ১৪২৮

লাইফস্টাইল, আরটিভি নিউজ

  ১৫ মে ২০২১, ১৮:২২
আপডেট : ১৫ মে ২০২১, ১৮:৫৪

চাপাতি, আগুন, ভাঙা কাঁচ দিয়ে চুল কাটেন নরসুন্দর আব্বাস

চাপাতি, আগুন, ভাঙ্গা কাঁচ দিয়ে চুল কাটেন নরসুন্দর আব্বাস

নতুন বিষয়ের দিকে মানুষের আগ্রাহ সব সময় একটু বেশি থাকে। তাই তো পুরনোকে বিদায় দিয়ে নতুনকে আকড়ে ধরতে চায়। নরসুন্দর আব্বাসও তেমনি প্রচলিত নিময় ভেঙে চুল কাটার নতুন কৌশল বেছে নিয়েছেন। তিনি চুল কাটতে আগুন, চাপাতি আর ভাঙা কাঁচ ব্যবহার করছেন।

চুল কাটার ক্ষেত্রে প্রচলিত যন্ত্রপাতি বড় দাঁতের চিরুনি, ছোট দাঁতের চিরুনি, কাঁচি, ক্লিপের পরেবর্তে নরসুন্দর আব্বাস আগুন ও চাপাতি ব্যবহার করায় প্রথম দিকে গ্রাহক ভয়ে দোকানে আসতেন না। দোকানে চুল কাটতে গ্রাহকরা কম আসায় কাজও কমে যেত। তবে আস্তে আস্তে মানুষের মনে ভয় দূর হওযায় বর্তমানে নরসুন্দর আব্বাসের দোকানে চুল কাটতে গ্রাহকদের ভিড় লেগে যায়। পাকিস্তানের নরসুন্দর আব্বাসের ভীতিকর কৌশল গ্রাহককে টানছে বেশি।

চুল কাটতে বোতল থেকে জল ছিটিয়ে চুল ভেজানোর প্রয়োজন হয়। রকমারি হেয়ারস্টাইল, হেয়ার ট্রিটমেন্টের নরসুন্দর আব্বাসের ভাষ্যমতে, চিরাচরিত চুল কাটার স্টাইল পরিবর্তন করে ২০১৬ সাল থেকে ভিন্ন কৌশলে চুল কাটছেন। চুল কাটার সময় তিনি তার তিন অস্ত্রই ব্যবহার করেন। সব চুল সমান করতে তিনি আগুনের ব্যবহার করেন। এ ক্ষেত্রে আব্বাস ব্যবহার করেন ব্লোটর্চ। এরপর চুলে স্তর তৈরি করতে তিনি মাংস কাটার চাপাতি ব্যবহার করেন। কারও চুল আরও পাতলা করার প্রয়োজন পড়লে আব্বাস ভাঙা কাচ হাতে তুলে নেন।

নরসুন্দর আব্বাস বলেন, সব ক্ষেত্রে প্রতিযোগিতা অনেক বেড়ে গেছে। কাজেই গ্রাহক টানতে ভিন্ন কৌশলের বিকল্প নেই। আরও বেশি গ্রাহক টানতে আমাকে ভিন্ন কিছু করতে হবে। এই চিন্তা থেকে সে এই পদ্ধতি বের করেন। প্রথম দিকে গ্রাহকদের মনে ভয় কাজ করত। তবে এখন আর তার গ্রাহকেরা এসব সরঞ্জাম ব্যবহারে ভয় পান না। বরং ব্লোটর্চ, চাপাতি আর ভাঙা কাচের ব্যবহার আলোচিত হয়েছে। গ্রাহকও বেড়েছে অনেক।

প্রচলিত নিয়মের পরিবর্তে নতুন কৌশল অবলম্বন করায় আব্বাসের চুল কাটার রেট একটু বেশী। ব্লোটর্চ, চাপাতি আর ভাঙা কাচ দিয়ে চুল কাটাতে চাইলে গ্রাহককে গুনতে হয় ২ হাজার রুপি। তাই বলে ক্ষুর-কাঁচির ব্যবহার ছেড়ে দেননি আব্বাস। প্রচলিত এসব সরঞ্জাম ব্যবহার করে চুল কাটার জন্য আব্বাস গ্রাহকের কাছ থেকে নেন ১ হাজার রুপি। শুধু পুরুষের না, তার কাছে চুল কাটতে আসেন নারীরাও। নারীদের চুল কাটতে পুরুষদের তুলনায় ৫০০ রুপি বেশি করে নেন এই নরসুন্দর। ব্লোটর্চ, চাপাতি আর ভাঙা কাচের ব্যবহার ঝুঁকিপূর্ণ। এই পদ্ধতি দিয়ে গ্রাহকের চুল কাটার আগে গ্রাহকের মাথায় কৃত্রিম চুল লাগান। এরপর সরঞ্জামগুলো দিয়ে মানুষের চুল কেটে দেন।

এফএ

RTV Drama
RTVPLUS